ব্রেকিং:
রংপুর মেডিকেল কলেজের (রমেক) পিসিআর ল্যাবে ১৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৭৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ৩৯ দশমিক ৩৬ শতাংশ। শুক্রবার বিকেলে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রংপুর মেডিকেল কলেজের (রমেক) অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাঃ একেএম নুরুন্নবী লাইজু।
  • শনিবার   ১৫ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ৩১ ১৪২৭

  • || ২৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

সর্বশেষ:
শোক দিবস উপলক্ষে চারটি বিশেষ ডিজাইনের ই-পোস্টার প্রকাশিত জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে রাতে আ`লীগের বিশেষ ওয়েবিনার ঢাকায় ভারতীয় হাইকমিশনার হলেন বিক্রম দোরাইস্বামী দায়িত্ব পালনে কোনো কর্মকর্তার বিরুদ্ধে অপেশাদার আচরণের অভিযোগ পেলে ছাড় দেয়া হবে না: এসপি বিপ্লব এখনো কোনো পরীক্ষা বাতিলের সিদ্ধান্ত হয়নি: শিক্ষা মন্ত্রণালয়
৫৩৫

অজ্ঞান পার্টির চার সদস্যকে গ্রেফতার

নীলফামারি বার্তা

প্রকাশিত: ১৯ নভেম্বর ২০১৮  

আন্তঃজেলা অজ্ঞান পার্টি ছিনতাইকারী চার সদস্যকে গ্রেফতার করেছে নীলফামারী থানা পুলিশ।গত শনিবার  রাতে রংপুরকিশোরীগঞ্জ এবং জলঢাকাউপজেলার বিভিন্ন স্থান থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।এবংগত রবিবার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তাদের স্বীকারোক্তিজবাববন্দী রেকর্ডের মাধ্যমে দুপুরে জেলা কারাগারে পাঠানো গ্রেফতারকৃত আন্তৎজেলা অজ্ঞানপাটি ছিনতাইকারীরা হলেন রংপুর বিভাগীয় শহরের আমাশু কুকরুল এলাকারসুরুজ্জামানের ছেলে তৌহিদুল ইসলামতোতা(২২), নীলফামারী জেলার কিশোরীগঞ্জ উপজেলার চন্ডি উত্তর পাড়ার বদিউজ্জামানের ছেলে শাহীনুর ইসলাম ওরফে শাহীন পাঠান(২২ একইউপজেলার বড়ভিটা এলাকার মনসুর আলীর ছেলে মশিউর রহমান(৩০এবং জলঢাকা উপজেলার কৈমারী ইউনিয়নের বিন্নাকুড়ি গ্রামের মৃতআজিজুলহকের ছেলে আব্দুল আজিজ(২৮)
নীলফামারী থানা সুত্র জানায়সদর উপজেলার ইটাখোলা ইউনিয়নের সিংদই এলাকার অটোরিকসা চালক ওয়াহেদুল ইসলামের অটোটি গত ৪নবেম্বরমাধারমোড় থেকে ভাড়ায় নীলসাগর নিয়ে যায় তৌহিদুল ইসলাম  শাহীন পাঠানসহ সহযোগীরা।
ওই দিন বিকেলে যাত্রীদের সাথে থাকা জুস খেয়ে অজ্ঞান হয়ে পড়লে চওড়া বড়গাছা ইউনিয়নের বাংলাবাজার এলাকায় অটোচালককে ফেলে দিয়েঅটোরিকসা নিয়ে পালিয়ে যায় যাত্রী বেশের ছিনতাইকারীরা।  ঘটনায় থানায় মামলা করেন অটোচালক ওয়াহেদুল ইসলাম।
গতকাল শনিবার বিকেলে নীলফামারী জেলা শহরের ট্রাফিক মোড়ে তৌহিদুল ইসলাম  শাহীন পাঠানকে দেখতে পেয়ে তৌহিদুলকে আটক করে পুলিশেহস্তান্তর করে স্থানীয়রা ওই দিন রাতেই তাকে নিয়ে অভিযান পরিচালনা করা হলে রংপুর এবং কিশোরীগঞ্জ  জলঢাকা উপজেলার নিজ নিজ এলাকা থেকে তাদের গ্রেফতারকরা হয় অভিযান কালে আসামী আজিজের কাছ থেকে একটি অটো উদ্ধার করা হয় নীলফামারী থানার উপ পরিদর্শক(এসআইহারিছুর রহমান জানানস্থানীয়দের হাতে আটক তৌহিদুল ইসলামকেনিয়ে আমরা অভিযানেবের হয়ে অন্যআসামীদেরও গ্রেফতার করতে সম হই রবিবার দুপুরে তারা আদালতে স্বীকারোক্তি দেন।পরে আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়।
নীলফামারী থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসিমমিনুল ইসলাম মমিন জানানগ্রেফতার ব্যক্তিরা আন্তঃ জেলা অজ্ঞান পার্টির সদস্যএরা ছিনতাইর উদ্দেশ্যেবিভিন্ন ভাবে ঘুরে বেড়ায় চক্রের সাথে কারা রয়েছে তাদেরও গ্রেফতার করতে আমরা তৎপরতা চালাবো।

নীলফামারী বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর