রোববার   ০৮ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৪ ১৪২৬   ১০ রবিউস সানি ১৪৪১

৩৯

অনলাইনে প্রকাশিত হলো এনআরসি’র চূড়ান্ত তালিকা

প্রকাশিত: ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য আসামের বহুল আলোচিত জাতীয় নাগরিকপঞ্জি ‘এনআরসি’ –এর চূড়ান্ত তালিকা অনলাইনে প্রকাশ করা হয়েছে। এর ফলে প্রত্যেক আসামবাসী বৈধ নাগরিক তালিকায় তাদের নাম উঠেছে কিনা তা অনলাইনে দেখতে পাবেন।

গত ৩১ আগস্ট এনআরসি’র চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হয়। ৩ কোটি ৩০ লাখ ২৭ হাজার ৬৬১ জন আবেদনকারীর মধ্যে তালিকায় ঠাঁই পেয়েছেন ৩ কোটি ১১ লাখ ২১ হাজার ৪ জন। আর বাদ পড়েছে ১৯ লাখ ৬ হাজার ৬৫৭ জনের নাম।

এর আগে গত বছরের ৩০ জুলাই প্রকাশিত এনআরসি তালিকা থেকে বাদ পড়েছিল প্রায় ৪০ লাখ আবেদনকারীর নাম।

www.nrcassam.nic.in অথবা www.assam.mygov.in ওয়েবসাইটে লগ ইন করে এই চূড়ান্ত তালিকা দেখা যাবে। এই দুই ওয়েবসাইটের “Supplementary Inclusions/Exclusions Lists (Final NRC) status” লিঙ্কে ক্লিক করে টাইপ করতে হবে আবেদনকারীর অ্যাপ্লিকেশন রেফারেন্স নম্বর (এআরএন)। এর মাধ্যমেই জানা যাবে তালিকাতে সংশ্লিষ্ট আবেদনকারীর নাম অন্তর্ভুক্ত হয়েছে কিনা।

এছাড়া এনআরসি তালিকায় নাম উঠেছে কিনা তা এনআরসি সেবা কেন্দ্র অথবা সার্কেল অফিসারের অফিস কিংবা ডেপুটি অফিসারের অফিসে গিয়ে দেখতে পারা যাবে। ছুটির দিন বাদে সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টার মধ্যে এই তালিকা দেখা যাবে।

এনআরসি তালিকা থেকে যাঁদের নাম বাদ পড়েছে, তাঁরা বিশেষ আদালতে আবেদন করার সুযোগ পাবেন। ফরেনার্স ট্রাইব্যুনালে আবেদন করতে পারবেন তালিকাছুটরা। তাঁদের ১২০ দিনের মধ্যে আবেদন করতে হবে। 

আসাম রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে আশ্বাস দেয়া হয়েছে, তালিকা থেকে নাম বাদ পড়ার সঙ্গে সঙ্গেই কাউকে বিদেশি হিসেবে গণ্য করা হবে না। এই ট্রাইব্যুনালে আবেদন করে যদি কেউ হেরে যান, তাহলে তাঁরা হাইকোর্ট বা সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করতে পারবেন। তবে যদি কারও নাম এনআরসি চূড়ান্ত তালিকা থেকে বাদ পড়ে, আবার ট্রাইব্যুনালেও হেরে যান ওই আবেদনকারী, তাহলে গ্রেফতারির মুখে পড়তে পারেন তিনি। 

আসামের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনওয়াল আশ্বাস দিয়েছেন, “তালিকায় স্থান না পাওয়াদের আইনি সাহায্যের জন্য সবরকম সহযোগীতা করবে রাজ্য সরকার।”

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –
এই বিভাগের আরো খবর