ব্রেকিং:
নিরাপদ সড়ক ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে নিজ নিজ অবস্থানে থেকে সবাইকে দায়িত্বশীল হতে হবে; জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস এর আলোচনা সভায় বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ফিটনেসবিহীন গাড়ি চলাচল বন্ধ করতে হবে। আনুষ্ঠানিকভাবে সিংহাসনে বসেছেন সম্রাট জাপানের সম্রাট নারুহিতো। অভিষেক অনুষ্ঠানে যোগ দিতে জাপানে অবস্থান করছেন রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ। কানাডায় সাধারণ নির্বাচনে জয়ের পথে জাস্টিন ট্রুডোর লিবারেল পার্টি, গঠন করতে হতে পারে জোট সরকার। ভারতের মহারাষ্ট্র এবং হরিয়ানায় বুথ ফেরত জরিপে বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোটের জয়ের আভাস। ২৪ অক্টোবর ফল ঘোষণা। আসন্ন নির্বাচনকে প্রভাবিত করার অভিযোগে, চারটি রুশ ও ইরানি অ্যাকাউন্ট বন্ধ করলো ফেসবুক। ব্রেক্সিট ইস্যুতে সরকারের উত্থাপিত হ্যাঁ অথবা না ভোটের প্রস্তাবকে নাকচ করলেন যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্ট। সুনির্দিষ্ট সময়ে সরকার গঠনে ব্যর্থ ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। এবার সুযোগ পাবে প্রধান বিরোধীরা। চিলিতে ভয়াবহ সহিংসতায় নিহত ১১। গ্রেফতার দেড় হাজারের বেশি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ১০ হাজার সেনা সদস্য মোতায়েন। থাইল্যান্ডের রাজার সাথে বিশ্বাসঘাতকতা এবং অশোভনীয় আচরণের দায়ে রাজসঙ্গির মর্যাদা প্রত্যাহার। যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটনের কাছে পাঠানো ৩০০০ গোপন ইমেইল থেকে, মুয়াম্মার গাদ্দাফিকে হত্যার ঘটনায় ফ্রান্সের জড়িত থাকার তথ্য ফাঁস।

বুধবার   ২৩ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৭ ১৪২৬   ২৩ সফর ১৪৪১

সর্বশেষ:
দুপুরে সাকিব-তামিমদের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বিসিবির কর্মকর্তারা। ক্রিকেটারদের ধর্মঘটের পরিপ্রেক্ষিতে উদ্ভূত পরিস্থিতির সমাধানে বোর্ড পরিচালকদের নিয়ে জরুরি সভায় বিসিবি, মিটিং শেষে বড় সিদ্ধান্ত আসার সম্ভাবনা। দেশের মানুষের মাথাপিছু আয় ১৯০৯ ডলারে উন্নীত। গত এক বছরে সরাসরি বৈদেশিক বিনিয়োগ বেড়েছে প্রায় ৫১ শতাংশ, মন্ত্রিসভার বৈঠকে তথ্য প্রকাশ। নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে পালিত হচ্ছে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস। সড়ক দুর্ঘটনায় নোয়াখালীতে নির্মাণ শ্রমিক ও যশোরে শিশু নিহত। ডাক বিভাগের ডিজিটাল লেনদেন নগদকে, পরিচয় অ্যাপ্লিকেশনের সাথে যুক্ত করে এক মিনিটে নগদ একাউন্ট সেবা উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। পদ্মা সেতুর দুটি নতুন থানা ও একটি নতুন পৌরসভা গঠনের অনুমোদন দিয়েছে প্রশাসনিক পুনর্বিন্যাস সংক্রান্ত জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি। ১১ দফা দাবিতে ধর্মঘটের ডাক দিয়েছেন জাতীয় ক্রিকেটাররা। তবে ধর্মঘটের আওতামুক্ত থাকবে বয়সভিত্তিক ক্রিকেট।
৩০

`অর্থনৈতিক উন্নয়নের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ অসাধারণ সাফল্য অর্জন করেছে`

প্রকাশিত: ৪ অক্টোবর ২০১৯  

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, গত এক দশকে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক উন্নয়নের ক্ষেত্রে অসাধারণ সাফল্য অর্জন করেছে।

বৃহস্পতিবার (৩ অক্টোবর) সিঙ্গাপুরের রাজধানী সিঙ্গাপুর সিটিতে অনুষ্ঠিত ‘ডুইং বিজনেস অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক কর্মশালায় তিনি এসব কথা বলেন। এসময় তিনি আরও বলেন, শক্তিশালী নেতৃত্ব, সুশাসন, সঠিক উন্নয়ন পরিকল্পনা, স্থিতিশীল সরকার এবং রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা বাংলাদেশের অর্থনীতিকে মজবুত করে তুলেছে। বাংলাদেশকে উন্নয়নের মডেল বানিয়েছে।

ঢাকায় প্রাপ্ত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়। আন্তর্জাতিক ফিন্যান্স কর্পোরেশন, এন্টারপ্রাইজ সিঙ্গাপুর এবং ইনফ্রাস্টাকচার এশিয়া এ কর্মশালার আয়োজন করে।

আইনমন্ত্রী বলেন, বিনিয়োগের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ সবাইকে অবাক করে দিয়েছে। বাংলাদেশ বৈদেশিক সহায়তা গ্রহণকারী দেশ থেকে এখন বিনিয়োগের অনুকূল ভূমিতে পরিণত হয়েছে। দেশে বিনিয়োগের পরিমাণ ক্রমান্বয়ে বেড়ে এখন জিডিপির ৩১ শতাংশে দাঁড়িয়েছে। বেসরকারি বিনিয়োগ আগের দশকের তুলনায় পাঁচগুণ বৃদ্ধি পেয়ে ৭০.০৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে উন্নীত হয়েছে।

তিনি বলেন, পিপিপির ভিত্তিতে বাংলাদেশ এখন বিশ্বের ত্রিশতম বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ এবং উন্নয়নের রোল মডেল হিসাবে বিশ্বব্যাপী স্বীকৃতি অর্জন করছে। এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক আউটলুক ২০১৯ উল্লেখ করেছে যে বাংলাদেশ এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলে দ্রুত বর্ধনশীল অর্থনীতির দেশ। এইচএসবিসি তাদের ২০১৮ সালের প্রতিবেদনে ভবিষ্যদ্বাণী করেছে যে, ২০৩০ সালের মধ্যে বাংলাদেশ হবে ২৬তম বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ এবং বিশ্বের তিনটি দ্রুততম অর্থনীতির একটি হয়ে উঠবে।

মন্ত্রী বলেন, দক্ষিণ এশিয়ায় মধ্যে বাংলাদেশেই সবচেয়ে উদার বিনিয়োগ নীতি রয়েছে। এখানে বিদেশী বিনিয়োগ সুরক্ষার জন্য আইনি ব্যবস্থা রয়েছে, উদার কর অবকাশ নীতি রয়েছে, যন্ত্রপাতি আমদানিতে শুল্ক ছাড়ের ব্যবস্থা রয়েছে, বিদেশীদের বিনিয়োগের পর লভ্যাংশ এবং মূলধনের সম্পূর্ণ নিয়ে যাওয়ার সুবিধা রয়েছে। বৈদেশিক বিনিয়োগ জাতীয় সংসদে পাসকৃত আইন এবং দ্বিপক্ষীয় বিনিয়োগ চুক্তি দ্বারা সুরক্ষার ব্যবস্থা রয়েছে।

তিনি বলেন, গত দশ বছরে, বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি হয়েছে গড়ে ৭ শতাংশ যা গত ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে ৮ দশমিক ১৩ শতাংশে পৌঁছেছিল এবং চলতি অর্থবছরে এটি ৮ দশমিক ২ হওয়ার প্রত্যাশা করা হচ্ছে। মূল্যস্ফীতি হ্রাস পেয়ে ৫ দশমিক ৪ শতাংশ হয়েছে। মাথাপিছু আয় বেড়ে ১৯০৯ মার্কিন ডলারে উন্নীত হয়েছে। বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ৩২ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে উন্নীত হয়েছে। রফতানি আয় তিনগুণেরও বেশি হয়ে ৪১ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে দাঁড়িয়েছে। মানব উন্নয়ন সূচক বার্ষিক ১ দশমিক ৬ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। স্পেকটেটর সূচক ২০১৯ অনুসারে, বাংলাদেশ গত ১০ বছরে সর্বাধিক প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছে।

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –
এই বিভাগের আরো খবর