ব্রেকিং:
শহীদদের নামে রংপুরের সড়কগুলোর নামকরণের দাবি উত্তরের ফসলি জমি গিলে খাচ্ছে তামাক আজ ২০ ফেব্রুয়ারি ‘বিশ্ব সামাজিক ন্যায়বিচার দিবস’ মহান শহীদ দিবস উপলক্ষে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এলাকাকে পাঁচটি সেক্টরে বিভক্ত করে তিন ধাপের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছে র‌্যাব নারী বিশ্বকাপ ওয়ার্ম-আপ ম্যাচ: পাকিস্তানকে ৫ রানে হারালো বাংলাদেশ

শুক্রবার   ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ৮ ১৪২৬   ২৬ জমাদিউস সানি ১৪৪১

সর্বশেষ:
আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে শুক্রবার অমর একুশে গ্রন্থমেলার দ্বার খুলবে সকাল ৮টায় সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচন ১১ ও ১২ মার্চ দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে দুই ডাকাত নিহত লালমনিরহটের হাতীবান্ধা উপজেলায় ষাটোর্ধ্ব এক বৃদ্ধা মাকে মারধর করে ঘর থেকে বের করে দিয়েছেন ছেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অমর একুশে ফেব্রুয়ারি ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের প্রাক্কালে ২০ ব্যক্তি এবং এক প্রতিষ্ঠানের মাঝে ‘একুশে পদক-২০২০’ প্রদান করেছে
১১

আবরারের জন্মদিনে ছোট ভাইয়ের আবেগঘন স্ট্যাটাস 

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

২০১৯ সালের ৭ অক্টোবর বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক প্রকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় বুয়েটের মেধাবী শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার প্রায় চারমাস পার হয়েছে। আজ তার জন্মদিন। বড় ভাইয়ের জন্মদিনে ফেসবুকে আবেগঘন স্ট্যাটাস দিয়েছেন ছোট ভাই আবরার ফাইয়াজ।
স্ট্যাটাসটি নিচে হুবহু তুলে ধরা হলো-

‘১২ ফেব্রুয়ারি ১৯৯৮। রাত ৯টার কাছাকাছি। কুষ্টিয়ার একটা হাসপাতালে জন্ম হয় ‘আবরার ফাহাদ রাব্বি’র। আজকে তার ২২ বছর পূর্ণ হতো; কিন্তু তা তো আর হলো না।

শুনেছি ছোটবেলায় জন্মদিন করা হতো আমাদের। কিন্তু বড় হওয়ার পর কখনো হয়নি। ভাইয়া এগুলো পছন্দ করতো না। তাই সাধারণত বাড়ির ভেতরেই আমরা ৩ জন মিলে কিছু করতাম। কিন্তু বড় হওয়ার সাথে সেটা শুধুই তারিখে পরিণত হয়। আমাদের ভেতরে ভালো মিল থাকলেও কখনো লজ্জায় ভাইয়াকে জন্মদিনের উইশও করা হয়নি। ও নিজেও করতে পছন্দ করতো না। কখনো করলেও খুশি হতো কিন্তু লজ্জায় তা প্রকাশ না করে একটা সিরিয়াস ভাব নিতো। মাঝে মাঝে হয়তো আম্মু কেক কিনে আনতো; সেটাই দুইজন কাটতাম। আর আম্মু রান্না করতো কিছু।
আজ ৪ মাস হয়ে গেল ও আর নেই আমাদের মাঝে। বেঁচে থাকলে হয়তো আজকেও কিছু হতো না। হয়তো শুধু বন্ধুদের ট্রিট দিত। একসাথে কেক কাটতো। কিন্তু সময় থাকতে তো আমরা মূল্য বুঝি না। তাই এখন এই তারিখগুলোয় তোর অস্তিত্বের সাথে জড়িয়ে গেছে।

শুধু একটা কথায় বলবো- যেখানে থাকিস ভালো থাকিস ভাইয়া। কখনো তো জন্মদিনে কিছু করতে পারলাম না।’