ব্রেকিং:
সপ্তাহখানেক নিখোঁজ থাকার পর সন্ধান মিলেছে রংপুরের আলোচিত বক্তা আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনানের। আজ শুক্রবার (১৮ জুন) বিকেলে তার খোঁজ পাওয়া যায়।
  • শনিবার   ১৯ জুন ২০২১ ||

  • আষাঢ় ৪ ১৪২৮

  • || ০৭ জ্বিলকদ ১৪৪২

সর্বশেষ:
নতুন প্রজন্মকে অপরাধমূলক কাজ থেকে দূরে রাখতে হবে- শিক্ষামন্ত্রী রংপুরের শতরঞ্জি পেল জিআই পণ্যের স্বীকৃতি রৌমারীতে মাদরাসাছাত্রদের মারধরের অভিযোগে শিক্ষক আটক গ্রাহক সেবা বৃদ্ধি করার নির্দেশ বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রীর

আমাদের ওপর আস্থা রাখুন, ন্যায় বিচার করা হবে- লালমনিরহাটের ডিসি

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৮ নভেম্বর ২০২০  

বুড়িমারীতে আবু ইউনুস মোঃ শহিদুন্নবী জুয়েল (৫০)কে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যার পর লাশ পুড়িয়ে ছাই করার ঘটনায় ন্যায় বিচারের জন্য রবিবার(৮ নভেম্বর) দুপুরে লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক আবু জাফরের সঙ্গে দেখা করেছেন আবু ইউনুস মোঃ শহিদুন্নবী জুয়েলের স্বজনরা।

এ সময় জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে এক আবেগঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়। জুয়েলের স্বজনদের লালমনিরহাট জেলা প্রশাসক আবু জাফর বলেন, "(ডিসি, পুলিশ সুপার ও আদালত) আমাদের ওপর আস্থা রাখুন। জুয়েলকে নির্মমভাবে হত্যার পর লাশ পুড়িয়ে ছাই করার ঘটনায় ন্যায় বিচার নিশ্চিত করা হবে। এ লক্ষে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ সহ বিভিন্ন সংস্থা কাজ করছে। এ জন্য সময় প্রয়োজন। এতে আপনাদের সহযোগিতা করতে হবে।"

রবিবার (৮ নভেম্বর) দুপুরে লালমনিরহাট জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে আবু ইউনুস মোঃ শহিদুন্নবী জুয়েলের মেয়ে জেবা তাসনিয়া অনন্ন্যার হাতে আর্থিক সহায়তার চেক তুলে দেন জেলা প্রশাসক আবু জাফর। এ সময় উপস্থিত ছিলেন নিহতের বড় ভাই রংপর কারমাইকেল কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আবু ইউসুফ মোঃ তৌহিদুন্নবী।

প্রসঙ্গত, গত ২৯ অক্টোবর লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারীতে বুড়িমারী কেন্দ্রীয় জামে মসজিদেে কোরআন শরিফ অবমাননার গুজব ছড়িয়ে আবু ইউনুস মোঃ শহিদুন্নবী নামে এক ব্যক্তিকে হত্যার পর লাশ পুড়িয়ে ছাই করার ঘটনায় পৃথক তিনটি মামলা রুজু করা হয়। এতে ১১৪ জনকে এজাহার নামীয় আসামী সহ অজ্ঞাত শত শত ব্যক্তিকে আসামি করা হয়।  এখন পর্যন্ত ৯ দফায় ২৮ জন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে।