ব্রেকিং:
ট্রেনের টিকিট শুধু অনলাইনেই বিক্রি হবে বলে জানিয়েছেন রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন। বসলো পদ্মাসেতুর ৩০তম স্প্যান: দৃশ্যমান সাড়ে ৪ কিলোমিটার গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় ছয়জন নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে দুইজন স্বাস্থ্যকর্মী, তিনজন গার্মেন্টসকর্মী ও একজন মাওলানা।
  • শনিবার   ৩০ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৬ ১৪২৭

  • || ০৭ শাওয়াল ১৪৪১

সর্বশেষ:
বসলো পদ্মাসেতুর ৩০তম স্প্যান: দৃশ্যমান সাড়ে ৪ কিলোমিটার করোনা-আম্ফান-কালবৈশাখী: দিনাজপুরে দিশেহারা লিচুচাষিরা গাইবান্ধায় ঈদের ছুটিতে আসা ৩ গার্মেন্টসকর্মী করোনায় আক্রান্ত ঠাকুরগাঁওয়ে এক রাস্তার সমস্যা অনেক গাইবান্ধায় রড চুরির ঘটনায় মৃত দুই ব্যক্তির নামে মামলা
৩০২

করোনা রোগীদের জন্য দেশেই তৈরি হবে ভেন্টিলেটর: জানিয়েছেন পলক     

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২ এপ্রিল ২০২০  

অল্প কিছু দিনের মধ্যেই দেশে ভেন্টিলেটর তৈরি হবে বলে জানিয়েছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।

বিশ্বখ্যাত মেডিক্যাল ডিভাইস কোম্পানি মেডিট্রনিক্স নামের একটি কোম্পানি এ ক্ষেত্রে বাংলাদেশকে সহায়তা দেবে বলেও জানান তিনি।

মেডিট্রনিক্স বুধবারের মধ্যে বাংলাদেশকে তাদের পেটেন্ট দেবে বলে জানিয়েছে। এরপরই ভেন্টিলেটর তৈরির কাজ শুরু হওয়া কথা জানিয়েছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী।

গত সোমবার (৩০ মার্চ) এক অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে পলক বলেন, মেডিট্রনিক্সের সাবেক চেয়ারম্যান ও প্রধান নির্বাহী ওমর ইশরাক বাংলাদেশের সন্তান, যিনি এখন প্রসেসর কোম্পানি ইন্টেলের প্রধান। বাংলাদেশের জন্য তিনি এই সহায়তা দিতে রাজি হয়েছেন।

ভেন্টিলেটর হলো এমন একটি যন্ত্র যাতে শ্বাসকষ্টের রোগীদের বিকল্প পন্থায় শ্বাস-প্রশ্বাস চালু রাখা যায়। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলে ফুসফুস অনেক ক্ষেত্রেই ঠিক মতো কাজ করে না। ফলে শ্বাস-প্রশ্বাস বন্ধ হয়ে অনেকই মারা যাচ্ছেন।

শুধু বাংলাদেশ নয়, গোটা বিশ্বেই এখন ভেন্টিলেটরের ব্যাপক চাহিদা। কিন্তু সেই তুলনায় ভেন্টিলেটরের যোগান রয়েছে খুবই কম।

সংশ্লিষ্টরা জানান, এই মুহুর্তে বাংলাদেশে মাত্র এক হাজারের মতো ভেন্টিলেটর আছে। আর অবস্থা যা দাঁড়িয়েছে তাতে এই মুহূর্তে ভেন্টিলেটর আমদানির কোনো সুযোগ নেই।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি জানান, বিষয়টা নিয়ে তারা মেডিট্রনিক্সের সঙ্গে অনেকবার কথা বলেছেন। গত শনিবারও তিনি এবং এটুআই-এর লোকেরা ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে তাদের সঙ্গে কথা বলেছেন। বুধবারের মধ্যে তাদের কাছ থেকে পেটেন্টের কপি পাওয়া যাবে। তখন বাংলাদেশের কোনো কোম্পানি, হতে পারে সেটি ওয়াল্টনের মাধ্যমে ভ্যান্টিলেটর দেশেই তৈরি হবে।

পলক বলেন, অনেক দিন থেকেই এটুআই ভেন্টিলেটর নিয়ে কাজ করছিল, তবে মেডিট্রনিক্সের সহায়তা পাওয়ায় তাদের কাজ অনেক সহজ এবং দ্রুত হবে।

জাতীয় বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর