ব্রেকিং:
দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ কমাতে চলমান ‘কঠোর লকডাউনের’ মেয়াদ আরো এক সপ্তাহ বাড়ানো হয়েছে। ভাঙচুরের মামলায় হেফাজত নেতা মামুনুল হকের সাত দিনের রিমান্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।
  • সোমবার   ১৯ এপ্রিল ২০২১ ||

  • বৈশাখ ৬ ১৪২৮

  • || ০৬ রমজান ১৪৪২

সর্বশেষ:
চলমান `কঠোর লকডাউন` আরো এক সপ্তাহ বাড়ল পুলিশের উদ্যোগে ৫ টাকায় ইফতার যাত্রা শুরু ১১০০ শয্যার করোনা হাসপাতালের সারাদেশে চার কার্যদিবসে ভার্চুয়ালি ৯০৪৬ জনের জামিন আজ ৬ষ্ঠ দিনের মতো সারাদেশে চলছে সর্বাত্মক লকডাউন

ক্যাম্পাসে ভিসি কলিমউল্লাহর কুশপুতুল দাহ করল ছাত্রলীগ

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৪ মার্চ ২০২১  

বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহর ঢাকায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে সংবাদ সম্মেলনে দেওয়া বক্তব্যের প্রতিবাদে উপাচার্যের কুশপুত্তলিকা দাহ ও বিক্ষোভ মিছিল করেছে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ ও সাধারণ শিক্ষার্থীরা। বৃহস্পতিবার সন্ধ্য়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে উপাচার্যের কুশপুত্তলিকা দাহ করেন তারা।

কুশপুত্তলিকা দাহ ও বিক্ষোভ শেষে শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি আবু মোন্নাফ আল কিবরিয়া তুষার বলেন, মামা ভাগিনা মিইল্লা বিশ্ববিদ্যালয় খাইছে গিইল্লা। বঙ্গবন্ধুর কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা যে উন্নয়ন প্রকল্পের বরাদ্দ দিয়েছেন সেই উন্নয়ন প্রকল্পের বরাদ্দ তার (উপাচার্যের) ভাগিনা আর্কিটেক মঞ্জুর কাদের যিনি এই বিশ্ববিদ্যালয়ে কখনো আসেননি। তারা বাজেটগুলোকে মামা ভাগিনা মিলে চুষে খেয়েছেন ঢাকার লিয়াজোঁ অফিসে বসে।

তিনি আরো বলেন, উপাচার্য ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকেই তার উদ্ভট কর্মকাণ্ড আর পাগলামী বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদেরকে অতিষ্ট করেছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার পরিবেশ নষ্ট হয়েছে। এইরকম পাগল ভিসি যিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার পরিবেশটিকে নষ্ট করেছেন শিক্ষার্থীদের জীবন তিনি ধ্বংস করেছেন। এমনকি তিনি তার বিরুদ্ধে যখন দুর্নীতির সুস্পষ্ট প্রমাণ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন পেয়েছে তিনি তা প্রত্যাখ্যান করেছেন। তার পাগলামী দেখে আমরা অতিষ্ট হয়ে গেছি। তিনি রাষ্ট্রীয় যন্ত্র শিক্ষা মন্ত্রণালয়, জাতীয় সংসদের স্পিকারকে নিয়ে কটাক্ষ করেছেন। তিনি ক্ষমা না চাওয়া পর্যন্ত আমরা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ তাকে এই ক্যাম্পাসে অবাঞ্চিত ঘোষণা করলাম।

এ সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু হল ছাত্রলীগের সভাপতি পোমেল বড়ুয়া বলেন, 'বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ এর বিরুদ্ধে যে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে তা ঢাকতেই ঢাকায় সংবাদ সম্মেলন করে মিথ্যাচার করেছেন। আমরা চাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ প্রকল্পে যে দুর্নীতি হয়েছে এই দুর্নীতির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করে তার শাস্তি নিশ্চিত করা হোক।
 
এ সময় শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মী এবং সাধারণ শিক্ষার্থীসহ প্রায় শতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।