ব্রেকিং:
লক্ষ্মীপুর ও বগুড়াতে নতুন দুইটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে নির্বাচিত হলে নব্বই দিনের মধ্যেই সব নাগরিক সুবিধা দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়ার প্রতিশ্রুতি তাপসের আইএসও সনদ পেল ১১ প্রতিষ্ঠান

মঙ্গলবার   ২৮ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ১৪ ১৪২৬   ০২ জমাদিউস সানি ১৪৪১

সর্বশেষ:
সময়ানুযায়ী উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য প্রকল্প পরিচালকদের কড়া নির্দেশ দিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী ইরানি জনগণের কাছে ক্ষমা চেয়ে খোলা চিঠি পাঠিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের একটি শান্তিবাদী সংগঠন আওয়ামী লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর সভা অনুষ্ঠিত হবে মঙ্গলবার
২৮

খুলনা টাইগার্সের লক্ষ্য ১৪৫

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১২ ডিসেম্বর ২০১৯  

বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) দ্বিতীয় দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে মুখোমুখি চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ও খুলনা টাইগার্স। প্রথমে ব্যাট করে খুব একটা সুবিধা করতে পারেনি চট্টগ্রাম। দলীয় প্রচেষ্টায় মোয়ামুটি মানের সংগ্রহ পেয়েছে দলটি। নির্ধারিত ওভার শেষে চট্টগ্রামের সংগ্রহ ৬ উইকেট হারিয়ে ১৪৪ রান। 

এর আগে টস জিতে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন খুলনার অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হয় সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায়। 

সিমন্স ও ওয়ালটনের ব্যাটে শুরুটা ভালোই হয় চট্টগ্রামের। উদ্বোধনী জুটিতে আসে ৪৫ রান। তবে খুলনার বোলাররা আঁটসাঁট বোলিং করে হাত খুলতে দিচ্ছিলেন না কাউকেই। ২৬ রান করা সিমন্সকে বোল্ড করে চট্টগ্রাম শিবিরে প্রথম আঘাত হানেন শফিউল ইসলাম। 

এরপরই ১৮ রানে আউট হন হন চ্যাডউইক ওয়ালটন। আগের ম্যাচের হাফ সেঞ্চুরিয়ান ইমরুল কায়েস এদিন করেন ১২ রান। দ্রুত উইকেট হারাতে থাকা চট্টগ্রামের হাল ধরেন নুরুল হাসান সোহান ও নাসির হোসেন। তবে হাত খুলে খেলতে পারছিলেন না তারাও। 

নাসিরের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝিতে ১৯ রানে রান আউট হন সোহান। এরপরই ফেরেন ২৪ রান করা নাসির। চট্টগ্রাম অধিনায়ক এমরিট ব্যাট হাতে ব্যর্থ। শেষ পর্যন্ত মুক্তার আলীর ছোট ক্যামিওতে ১৪৪ রান পর্যন্ত যেতে পারে চট্টগ্রাম। দলীয় সর্বোচ্চ ২৯* রান আসে তার ব্যাট থেকেই। 

খুলনার হয়ে একটি করে উইকেট শিকার করেছেন রবি ফ্রাইলিংক, শফিউল ইসলাম, শহিদুল ইসলাম ও আমিনুল ইসলাম বিপ্লব।