• বৃহস্পতিবার   ২৮ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৩ ১৪২৭

  • || ০৫ শাওয়াল ১৪৪১

সর্বশেষ:
ভ্যাট রিটার্ন জমার সময় বাড়ালো ৯ জুন পর্যন্ত করোনা থেকে সুস্থ এক হাজারের অধিক পুলিশ সদস্য ব্রাজিলে হু হু করে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে দুর্যোগে জনগণের পাশে থাকাই আওয়ামী লীগের ঐতিহ্য: কাদের আম্ফানে সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের ক্ষয়ক্ষতি পৌনে দুই কোটি টাকা
৪৮

জলঢাকায় বিএনপির কমিটি প্রত্যাখান করল নেতাকর্মীরা

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৬ অক্টোবর ২০১৯  

জলঢাকা উপজেলা ও পৌর কমিটি গঠনে এক মঞ্চে অনুষ্ঠিত ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে ঘোষিত কমিটি প্রত্যাখান করেছে নেতাকর্মীরা। সেই সঙ্গে ঘোষিত কমিটি বাতিল করার দাবি জানায় তারা।

গতকাল শনিবার (৫ অক্টোবর) উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন বিএনপির নেতাকর্মীরা জানায়, দলটির একটি বড় অংশকে বাদ দিয়ে ৩ অক্টোবর উপজেলা ও পৌর কমিটি গঠনে সম্মেলন করা হয়। সম্মেলনের স্থান করা হয় ময়নুল ইসলাম নামের এক ব্যবসায়ীর মিল চাতালে। সেখানে শুধু মাত্র বাছাই করা লোক ছাড়া, অন্যান্য নেতাকর্মীদের ক্ষেত্রে প্রবেশে কড়া নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। সেখানে তারা নিজেদের মতো করে কমিটি ঘোষণা করে। উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক করা হয়, যথাক্রমে ফাহমিদ ফয়সাল চৌধুরী ও ময়নুল ইসলামকে। পৌর কমিটিতে সভাপতি হিসাবে রাখা হয়, এলাকার চিহ্নিত দাদন ব্যবসায়ী রশিদুল ইসলাম বাঙ্গালী ও সাধারন সম্পাদক করা হয় গোলাম সারোয়ার ভুট্টুকে।

সদ্য ঘোষিত উপজেলা ও পৌর কমিটি প্রত্যাখান করে পৌর বিএনপির সাবেক আহবায়ক আহম্মেদ সাঈদ চৌধুরী বলেন, দলের গঠনতন্ত্র অনুয়ায়ী ঘোষিত দুই কমিটি অবৈধভাবে করা হয়েছে। এছাড়াও যাদেরকে কমিটিতে অন্তরর্ভুক্ত করা হয়েছে, তারা সকলেই বিতর্কিত এবং তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে।

নীলফামারী জেলা বিএনপির যুগ্ম-আহবায়ক আলহাজ সৈয়দ আলী সাংবাদিকদের বলেন, জলঢাকার তৃণমূল বিএনপি যে অভিযোগ করছে, তা যৌক্তিক। তিনি আরও জানান, জেলা কমিটির ২-৩ জন ছাড়া বড় একটি অংশ এ সম্মেলনে অংশ নেননি। তৃণমূলের বৃহৎ একটি অংশ সম্মেলনে ছিলনা, বিষয়টি স্বীকার করে নীলফামারী জেলা বিএনপির সদস্য সচিব জহুরুল ইসলাম বলেন, সম্মেলনে যদি কাউন্সিলররা বিতর্কিত ব্যক্তিদের স্থান দেন, তাহলে আমাদের কি করার আছে।

রাজনীতি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর