সোমবার   ২১ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৫ ১৪২৬   ২১ সফর ১৪৪১

সর্বশেষ:
বাংলাদেশের উন্নয়ন সরেজমিন পরিদর্শনে আজ রোববার ঢাকায় আসছেন নিউইয়র্ক সিটির পাঁচ সিনেটর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার প্রত্যয়ে কাজ করতে তরুণ সমাজসহ সবার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ জাপান ও সিঙ্গাপুরে আট দিনের সরকারি সফরে আজ রোববার ঢাকা ত্যাগ করবেন রোনালদোর গোলে জুভেন্টাসের জয় সৌম্যের ফিফটিতে রাজশাহী বিভাগের বিরুদ্ধে খুলনার সহজ জয়
১৯৪

জলঢাকায় ১৩২/৩৩ কেভি বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র উদ্বোধন করলেন শেখ হাসিনা

প্রকাশিত: ৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯  

নীলফামারীর জলঢাকা উপজেলায় ১৩২/৩৩ কেভি ক্ষমতা সম্পন্ন একটি বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার (৬ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে জাতীয় গ্রিডে সংযুক্ত নয়টি গ্রিড উপকেন্দ্র ও ১২টি উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়ন কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন তিনি। 

জানা গেছে, নীলফামারীর ৬ উপজেলার এলাকায় লোডশেডিং ও লো-ভোল্টেজ সমস্যার সমাধান করে ক্রমবর্ধমান বিদ্যুৎ চাহিদা পূরণ করার লক্ষ্যে উপকেন্দ্রটি স্থাপন করা হয়েছে। জলঢাকা ১৩২/৩৩ কেভি বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র উদ্বোধন উপলক্ষে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে ভিডিও কনফারেন্সের আয়োজন করা হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন নীলফামারী-৩ (জলঢাকা) আসনের মহাজোটের সংসদ সদস্য মেজর(অবঃ) রানা মোঃ সোহেল, বিদ্যুৎ বিভাগের যুগ্ন সচিব গোলাম রব্বানী, জেলা প্রশাসক নাজিয়া শিরিন, বিদ্যুৎ বিভাগের পিজিসিবি’র ডেপুটি প্রজেক্ট ডিরেক্টর মো আনিছুর রহমান খান, স্থানীয় সরকার অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক আব্দুল মোতালেব সরকার, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) শাহীনুর আলম, পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জেনারেল ম্যানেজার (জিএম) এস.এম হাসনাত হাসান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রুহুল আমিন, বিদ্যুৎ বিভাগের পিজিসিবি’র সহকারী প্রকৌশলী খন্দকার ফয়সাল আউয়াল সহ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি দপ্তরের কর্মকর্তারা ও সাংবাদিকবৃন্দ।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ৪২ কোটি ৮১ লাখ টাকা ব্যয়ে জলঢাকা-ডিমলা তিস্তা ব্যারেজ সড়কের পাশ্ববর্তী ৫.২ একর জমির উপর বিদ্যুৎ উপকেন্দ্রটি স্থাপন করা হয়েছে। এ উপকেন্দ্রের সক্ষমতা ১৫০ এমভিএ। এতে ২টি ৫০/৭৫ এমভিএ, ১৩২/৩৩ কেভি ক্ষমতায় ২টি পাওয়ার ট্রান্সফরমার বে, ২টি ১৩২ কেভি লাইন বে, ১টি ১৩২ কেভি বাস কাপলার বে এবং ৮টি ৩৩ কেভি ফিডার বে স্থাপন করা হয়। জাপান ইন্টারন্যাশনাল কো-অপারেশন এজেন্সি (জাইকা)-এর সহযোগিতায় বিদ্যুৎ উপকেন্দ্রটি বাস্তবায়ন করে পওয়ার গ্রীড কোম্পানি অব বাংলাদেশ লিমিটেড।

জলঢাকা বিদ্যুৎ উপকেন্দ্রটি স্থাপনের ফলে নীলফামারী, ডোমার, ডিমলা তিস্তা ব্যারেজ এলাকা, জলঢাকা ও দেবীগঞ্জ এলাকার প্রায় তিন লাখ গ্রাহকের বিদ্যুৎ চাহিদা পূরণ হবে। এসব এলাকায় বিদ্যুতের লোডশেডিং ও লো-ভোল্টেজ সমস্যা সমাধান করে গুণগত মানসম্পন্ন  বিদ্যুৎ সুবিধা তৈরি হওয়ায় আর্থিক কর্মকান্ডের সুযোগ বৃদ্ধি পাবে বলেও জানা গেছে। 

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –
এই বিভাগের আরো খবর