ব্রেকিং:
মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় গাইবান্ধার পাঁচ রাজাকারকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল

মঙ্গলবার   ১৫ অক্টোবর ২০১৯   আশ্বিন ৩০ ১৪২৬   ১৫ সফর ১৪৪১

সর্বশেষ:
সরকারি সফরে আজ কাতার যাচ্ছেন সেনাবাহিনী প্রধান ব্যবসায়ীরা ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ হওয়ার বিষয়টিকে পুঁজি করে দামে কারসাজি করছেন বলে অভিযোগ করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুন্সী সুন্দরবনে র‍্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে আমিনুর বাহিনীর প্রধান আমিনুরসহ চারজন নিহত হয়েছে ইউক্রেনের বিপক্ষে রোনালদোর পর্তুগালের হার কাতার বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপ ফুটবল বাছাইয়ের ‘ই’ গ্রুপের তৃতীয় ম্যাচে আজ ভারতের মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ।
১১

জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কাউন্সিল ২৮ অক্টোবর

প্রকাশিত: ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কাউন্সিল ২৮ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে বলে জানিয়েছেন দলেরে চেয়ারম্যান জিএম কাদের।

রোববার (২২ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টায় বনানীস্থ জাপা চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে খুলনা বিভাগীয় সাংগঠনিক সভায় সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।

জিএম কাদের বলেন, ‘আগামী মাসের ২৮ তারিখে কেন্দ্রীয় কাউন্সিল করার লক্ষ্যে জাতীয় ইঞ্জিনিয়ারিং ইনস্টিটিউটের হলও বুকিং করা হয়েছে। কিছু ঝামেলার কারণে ঘটা করে বিষয়টি জানানো হয়নি। কোনো ঝামেলা না হলে নির্ধারিত দিনেই আমাদের কাউন্সিল করা হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘দলকে সুসংগঠিত ও সুসংহত করতে সারা দেশের আটটি বিভাগে সাংগঠনিক সফর করা হয়েছে। সফরের পরে আমরা প্রত্যেকটি বিভাগে একটি করে আহ্বায়ক কমিটি করেছি। যারা পূর্ণাঙ্গ কমিটির জন্য কাজ করে যাবে। তারই ধারাবাহিকতায় খুলনা বিভাগ নিয়ে আজকের এই প্রথম সাংগঠনিক সভা। এই সভার মাধ্যমে খুলনা বিভাগের কমিটিগুলোর জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।’

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান বলেন, ‘দেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে একটি শূন্যতা আছে, অস্থিরতা আছে। এগুলোকে কাজে লাগিয়ে জণগনের সমর্থন নিয়ে আমরা কিছু একটা করতে চাই।’

সভায় স্বাগত বক্তব্যে দলটির নব্য নির্বাচিত প্রেসিডিয়াম সদস্য সাইদুর রহমান টেপা বলেন, ‘যারা আহ্বায়ক কমিটিতে নেই, তার চেয়ারম্যানের পেছনের আসন থেকে উঠে চলে যান। এই দলে চেহারা দেখানোর ব্যবসা বন্ধ হয়ে গেছে। প্রয়াত চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের সরলতা ও দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে যারা এত দিন চেহারা দেখানোর ব্যবসা করেছেন তাদের জন্য সেই সুযোগ আর রাখা হবে না।’

উল্লেখ্য, খুলনা বিভাগের মহানগরসহ মোট ১১টি জেলা থেকে আজকের এই সাংগঠনিক সভায় নতুন দায়ীত্বপ্রাপ্ত নেতাকর্মীদের আসার কথা থাকলে মাগুড়া ও চুয়াডাঙ্গার দায়ীত্বপ্রাপ্ত নেতারা অনুপস্থিত ছিলেন। এছাড়া বাকি নয়টি জেলার দায়ীত্বপ্রাপ্ত নেতাকর্মীরা উপস্থিত থেকে জিএম কাদেরের হাতে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান।

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –
এই বিভাগের আরো খবর