• বৃহস্পতিবার   ০২ এপ্রিল ২০২০ ||

  • চৈত্র ১৯ ১৪২৬

  • || ০৮ শা'বান ১৪৪১

সর্বশেষ:
সোনাহাট স্থলবন্দর বন্ধের সময় বাড়ল ১০ দিন রংপুরে বিদেশ ফেরতদের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করতে চলছে তদারকি আজ থেকে রমেকে করোনাভাইরাসের নমুনা পরীক্ষা শুরু করোনা রোগীদের জন্য দেশেই তৈরি হবে ভেন্টিলেটর: জানিয়েছেন পলক হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করতে আজ থেকে কঠোর অবস্থানে সেনাবাহিনী
১০৬

ডিমলায় ইউএনও-এর হস্তক্ষেপে বন্ধ হলো বাল্যবিবাহ     

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১৫ মার্চ ২০২০  

সপ্তম শ্রেনীর ছাত্রী। বাল্য বিয়ে কবলে পড়তে যাচ্ছিল। তাকে উদ্ধার করলেন নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা জয়শ্রী রানী রায়। আজ রবিবার সন্ধ্যায় ছিল স্কুল ছাত্রীর বিয়ে। সাজ সাজ রব। উপজেলার খালিশা চাপানী ইউনিয়নের তালতলা গ্রাম এলাকায় এ বাল্যবিবাহটি বন্ধ করা হয়। 


ওই এলাকার নির্মল রায়ের মেয়ে ডালিয়া চাপানী উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্রী। তার সঙ্গে রংপুরের মোমিন পুর নামক এলাকার স্বপন কুমার রায়ের (২৪) বিয়ে ঠিক হয়। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ইউএনও সহ ডিমলা থানার ওসি মফিজ উদ্দিন শেখ, ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান সরকার বাল্য বিয়ের অনুষ্ঠানে হাজির হন তারা। বিয়ের অনুষ্ঠানে কনে ও বর পক্ষের সকলের সামনে বাল্যবিয়ের কুফল সম্পর্কে এবং সচেতনতামূলক মুক্ত আলোচনা করেন ইউএনও জয়শ্রী রানী রায়। 


পরে বাল্যবিবাহের আয়োজন করার অপরাধে ঘটনাস্থলেই ছাত্রীটির পরিবারের কাছে একটি লিখিত অঙ্গিকার নামা নেয়া হয়। যাতে প্রাপ্ত বয়স না হওয়া পর্যন্ত আবার কোন ভাবেই বিয়ে না দেওয়ার হয়।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট জয়শ্রী রানী রায় বলেন, বাল্যবিয়ে আমাদের দেশের জন্য একটি অভিশাপ। সচেতনাতার মাধ্যমে বাল্যবিবাহের অভিশাপ থেকে দেশ ও জাতিকে মুক্ত করতে হবে। বাল্যবিবাহের অপরাধে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না, আর বাল্যবিবাহ বন্ধের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।

নীলফামারী বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর