ব্রেকিং:
দেশে করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ২৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ১ হাজার ৯৯৭ জন। এছাড়া নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজার ২৮৮ জন। মহামারি করোনাভইরাসের চিকিৎসায় শর্তসাপেক্ষে রেমডেসিভির ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)। শুক্রবার এই অনুমোদনের বিষয়টি নিশ্চিত করেন ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) হেলথ কমিশনার স্টেলা কাইরিয়াকাইডস।
  • শনিবার   ০৪ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ২০ ১৪২৭

  • || ১৩ জ্বিলকদ ১৪৪১

সর্বশেষ:
করোনায় আমাদের নেতাকর্মীরা মানুষের পাশে আছে- শেখ হাসিনা কুড়িগ্রামে ধরলার পানি বাড়ছে: বাঁধে ভাঙন তিন মাস পর ফিরলেন মোশাররফ করিম মৃত্যুর পর মানুষের ৯ আকাঙ্খা ও আফসোস যে কারণে ভারতকে সতর্ক করলো চীন
১০৮

তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার হবে ভার্চূয়াল আদালতে:  বিল চূড়ান্ত       

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৯ জুন ২০২০  

করোনা ভাইরাস সংক্রমণকালে আদালতে যাতে ভার্চূয়ালী বিচার কাজ পরিচালনা করতে পারে সে জন্য ‘আদালত কর্তৃক তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার বিল-২০২০’ চূড়ান্ত করলো বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটি।

স্থায়ী কমিটির ১১তম বৈঠক গতকাল রবিবার (২৮ জুন) জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে কমিটির সভাপতি আবদুল মতিন খসরু সভাপতিত্ব করেন। কমিটির সদস্য ও আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক, মোস্তাফিজুর রহমান, মোঃ আব্দুল মজিদ খান, মোঃ শহীদুজ্জামান সরকার, শামীম হায়দার পাটোয়ারী এবং গ্লোরিয়া ঝর্ণা সরকার অংশগ্রহণ করেন।

সোমবার (২৯ জুন) বিলটি পাশের জন্য সংসদে তোলা হবে। করােনারমত মহামারি বা এ ধরনের বিশেষ সময়ে প্রয়োজনের তাগিদে বিলটি প্রয়োগ করার কথা বলেছে কমিটি।

বৈঠকের কার্যপত্র থেকে জানা যায়, একাদশ জাতীয় সংসদের চলতি বাজেট অধিবেশনে বিলটি যাতে পাশ করা যায় সেজন্য আদালত কর্তৃক তথ্য-প্রযুক্তি ব্যবহার বিল, ২০২০ এর উপর আলোচনা করা হয়। এর আগে বিলটির উপর বিশেষজ্ঞদের মতামত নেয়া হয়।

আইনমন্ত্রী দেশে করোনা ভাইরাসের কারনে উদ্ভুদ বিশেষ পরিস্থিতির কারনে বিলটি উত্থাপনের প্রেক্ষাপট, বিলটি প্রয়োগের ক্ষেত্র, সীমাবদ্ধতা, বিশ্বের অন্যান্য দেশের সাথে এ বিলের সামঞ্জস্যতা ও প্রয়োজনীয়তা ব্যাখ্যা করে বক্তব্য উপস্থাপন করেন। বিলটি কমিটির উপস্থিত সকল সদস্য পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে পরীক্ষা নিরীক্ষাপূর্বক সংসদে উপস্থাপনের জন্য রিপোর্ট চূড়ান্ত করার সুপারিশ করেন।

বৈঠকে লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগের সচিব নরেন দাস, আইন ও বিচার বিভাগের সচিব মো: গোলাম সারওয়ার, বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের রেজিষ্ট্রার জেনারেল মো: আলী আকবর , আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় এবং বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

কোভিড-১৯ মহামারির মধ্যে ভিডিও কনফারেন্সসহ অন্যান্য ডিজিটাল মাধ্যমে আদালতের কার্যক্রম চালানোর সুযোগ রেখে গত ৭ মে মন্ত্রিপরিষদ সভা এ সংক্রান্ত অধ্যাদেশের খসড়ায় অনুমোদন দেয়ার পর তার ভিত্তিতে ভার্চুয়াল আদালতের কাজ ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে। নিয়মানুযায়ী জরুরী ভিত্তিতে চলতি (বাজেট) অধিবেশনে আগামী কাল ২৯ জুন এ বিলটি পাশ করতে হবে, সেকারনে করোনা পরিস্থিতির মধ্যে স্থায়ী কমিটির বৈঠক ডাকতে বাধ্য হয় কমিটি।

অধ্যাদেশটি আইনে পরিণত করতে হলে চলমান অধিবেশনের প্রথম বৈঠকের তারিখ হতে পরবর্তী ৩০ দিনের মধ্যে প্রশাসনিক মন্ত্রণালয়কে জাতীয় সংসদে উপস্থাপন করে অনুমোদন করাতে হবে। তা না হলে ৩০ দিন অতিবাহিত হলে অধ্যাদেশটি কার্যকারিতা লোপ পাবে।

আদালত বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর