শুক্রবার   ১৫ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ১ ১৪২৬   ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

৩৫৫

তাইজুলের জোড়া আঘাত, ফলো-অনের শঙ্কায় জিম্বাবুয়ে

প্রকাশিত: ১৩ নভেম্বর ২০১৮  

ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

ঢাকা টেস্টে ৫২২ রানের পাহাড় গড়ার পর বোলিংয়েও দারুণ শুরু করেছে বাংলাদেশ। মঙ্গলবার তৃতীয় দিন লাঞ্চের বিরতির পরপর টানা দুই উইকেট তুলে নিয়েছেন তাইজুল। জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ১৩১ রান।

দ্বিতীয় দিনের মাসাকাদজার উইকেট তুলে নিয়ে বাংলাদেশ শিবিরকে এগিয়ে রেখেছিলেন তাইজুল। তৃতীয় দিনের শুরু থেকে দারুণ সব বাউন্সারে শুরু করেন খালেদ আহমেদ। তবে উইকেট তুলে নিতে বেগ পেতে হয় বাংলাদেশের। অবশেষে রিয়াদের দারুণ এক রিভিউতে ফিরে গেলেন ক্রমশ বিপদজনক হয়ে ওঠা চারি।

১৯ রানের মাথায় খালেদের বলে চারির দেয়া পয়েন্টের ক্যাচটি মিস করেন তাইজুল। এরপরই ক্রমশ আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠেন তিনি। সেই তাইজুলের এক ওভারেই ঝড় তুলে অর্ধশতক পূরণ করেন চারি। আজ সকাল থেকেই বাংলাদেশের ফিল্ডারদের হাত যেন পিচ্ছিল হয়ে উঠেছে। একের পর এক ক্যাচ ফেলার হিড়িক তাতে দেখা গেলো।

৪২ তম ওভারের তিন নাম্বার বলে চারির একটি ক্যাচ ফেলেন দিলেন শর্টে ফিল্ডিং করা মাহমুদউল্লাহ। পরের বলেই একই রকম বলটি চারির প্যাডে লেগে উপরে উঠে যায়। ক্যাচ ধরলেন মমিনুল। স্বাভাবিকভাবে মনে হচ্ছিল বল শুধু প্যাডেই লেগেছিল। বোলার মিরাজ বা কোনো ফিল্ডারই তেমন কোনো আবেদনও করেননি আউটের। কিন্তু আগের ক্যাচ মিস করা রিয়াদ যেন শাপ মোচনে নামলেন। সবাইকে অবাক করে রিভিউ নিলেন। আর রিভিউতেই দেখা গেল প্যাডে বল লেগে যখন উপরে উঠে যায় তখন খুবই হালকা স্পর্শ লাগে চারির গ্লাভসে। থার্ড আম্পায়ার রড টাকার ঘোষণা আউট ঘোষণা করেন।

সকালে অবশ্য তাইজুল তুলে নিয়েছেন তিরিপানোর উইকেট। আর লাঞ্চ বিরতির ঠিক আগে মিরাজ তুলে নেন চারিকে। এর ফলে ৩ উইকেট হারিয়ে ১০০ রান নিয়ে লাঞ্চ বিরতিতে যায় জিম্বাবুয়ে।

লাঞ্চ বিরতি থেকে ফিরে জোড়া আঘাত করেন তাইজুল। উইলিয়ামস ও সিকান্দার রাজাকে সরাসরি বোল্ড করে জিম্বাবুয়েকে চাপে ফেলেন। এর ফলে ফলোঅনের শঙ্কায় পড়েছে সফরকারীরা। ফলো-অন এড়াতে আরো ১৯১ রান করতে হবে মাসাকাদজার দলকে।

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –