ব্রেকিং:
লক্ষ্মীপুর ও বগুড়াতে নতুন দুইটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে নির্বাচিত হলে নব্বই দিনের মধ্যেই সব নাগরিক সুবিধা দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়ার প্রতিশ্রুতি তাপসের আইএসও সনদ পেল ১১ প্রতিষ্ঠান

মঙ্গলবার   ২৮ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ১৪ ১৪২৬   ০২ জমাদিউস সানি ১৪৪১

সর্বশেষ:
সময়ানুযায়ী উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য প্রকল্প পরিচালকদের কড়া নির্দেশ দিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী ইরানি জনগণের কাছে ক্ষমা চেয়ে খোলা চিঠি পাঠিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের একটি শান্তিবাদী সংগঠন আওয়ামী লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর সভা অনুষ্ঠিত হবে মঙ্গলবার
৪৩

`তাদের মূল লক্ষ্য ছিল, বাংলাদেশ যেন মাথা তুলে দাঁড়াতে না পারে`

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯  

জাতীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল বলেছেন, ‘১৪ ডিসেম্বর দেশের ইতিহাসে এক কলঙ্কময় দিন’। মহান মুক্তিযুদ্ধের শেষ দিনগুলোতে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী, স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তি ও তাদের দোসররা পরাজয় নিশ্চিত জেনে বাংলাদেশকে মেধাশূন্য করার ঘৃণ্য ষড়যন্ত্রে নামে। তারা বাঙালি বুদ্ধিজীবীদের হত্যা করে। স্বাধীনতাবিরোধীরা এই পরিকল্পিত নৃশংস হত্যাযজ্ঞের মধ্য দিয়ে পরাজয়ের প্রতিশোধ নেয়। বাংলাদেশ যাতে আর কখনও মাথা তুলে দাঁড়াতে না পারে, সেটাই ছিল এ হত্যাযজ্ঞের মূল লক্ষ্য।’ 

১৪ ডিসেম্বর ২০১৯ শনিবার শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে বীরগঞ্জে ‘বিজয় চত্বরে’ শহীদদের স্মরণে মোমবাতি প্রজ্জলন শেষে আলোচনা সভায় এমপি মনোরঞ্জন শীল গোপাল এসব কথা বলেন।  

এসময় উপজেলা চেয়ারম্যান মো. আমিনুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. ইয়ামিন হোসেন, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সাবেক কমান্ডার অধ্যাপক কালীপদ রায়, বীরমুক্তিযোদ্ধা এস এম এ খালেক, উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মো. নুর ইসলাম নুর, দিনাজপুর জেলা পরিষদের সদস্য মো. আতাউর রহমান বাবু,উপজেলা আওয়ামী লীগের  যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শামিম আলম ফিরোজসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।   

এর আগে শহীদদের স্মরণে ১ মিনিট নিরবতা পালন ও বিশেষ প্রার্থনা করা হয়।

এই বিভাগের আরো খবর