ব্রেকিং:
দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরো ২৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে পাঁচ হাজার ৭ জনে। এছাড়া, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ১ হাজার ৫৫৭ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। দিনাজপুরে গত ২৪ ঘন্টায় ৯ জন ব্যক্তি করোনা ভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৩৩২৮ জনে। মঙ্গলবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দিনাজপুরের সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ আব্দুল কুদ্দুছ।
  • বুধবার   ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||

  • আশ্বিন ৭ ১৪২৭

  • || ০৫ সফর ১৪৪২

সর্বশেষ:
রংপুরের বহুল আলোচিত দুই বোন হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ খালিদ মাহমুদ চৌধুরীর রোগমুক্তি কামনায় বীরগঞ্জে দোয়া মাহফিল নীলফামারীতে কাঁটাতার কেটে চিলাহাটি-হলদিবাড়ি জুড়ছে রেল লাইন কুড়িগ্রামে হত্যা মামলায় একজনের মৃত্যুদন্ড র‌্যাবের অভিযানে নীলফামারীতে ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার
৮১

দলীয় নেতা-কর্মীদের কার্যক্রমে হতাশ খালেদা জিয়া

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০  

শারীরিক অসুস্থতা, বয়স আর রাজনৈতিকভাবে নিষ্ক্রিয়তার কারণে দল নিয়ে হতাশায় মানসিকভাবে ভেঙে পড়েছেন বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া। রাজনীতিতে পুনরায় সক্রিয় হওয়ার প্রবল ইচ্ছা থাকলেও দলের সাংগঠনিক অবস্থা ও বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় তিনি তা পারছেন না। 
সম্প্রতি জিয়া পরিবারের ঘনিষ্ঠ স্বজনদের সঙ্গে কথা বলে এমনটাই জানা গেছে।

সূত্রটি জানায়, বিএনপির বড় একটি অংশ প্রতিনিয়ত চান খালেদা জিয়া আবারো রাজনীতিতে সক্রিয় হন। এজন্য তারা বিভিন্নভাবে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু পরিবারের পক্ষ থেকে সম্পূর্ণভাবে বিষয়টিকে নিয়ন্ত্রণে রাখা হচ্ছে।

জানা গেছে, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদের মতো নেতারা দলে তারেক জিয়ার নেতৃত্বকে দমাতে খালেদা জিয়াকে রাজনীতিতে ফিরিয়ে আনার জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছেন। কিন্তু তারেক ও পরিবারের সদস্যদের কারণে তা সম্ভব হচ্ছে না।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জিয়া পরিবারের একজন ঘনিষ্ঠ স্বজন জানান, পুনরায় রাজনীতি করার ইচ্ছা থাকলেও অদৃশ্য কারণে তা পারছেন না খালেদা জিয়া। তাই মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ অনেক সিনিয়র নেতা বারবার তাকে রাজনীতিতে সক্রিয় করার চেষ্টা করলেও তাতে তিনি রাজি হচ্ছেন না। বারবার তাদের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করছেন।

তিনি বলেন, যেহেতু দলের দায়িত্ব তারেক রহমানের হাতে দেয়া হয়েছে তাই নতুন করে সেখানে গিয়ে দ্বন্দ্ব বাড়ানোর মতো কিছু করবেন না খালেদা জিয়া।

এ বিষয়ে রাজনৈতিক বিশ্লেষক ও বুদ্ধিজীবীরা বলেন, দলীয় আন্দোলন কর্মসূচির মাধ্যমে খালেদা জিয়ার মুক্তি হলে তার আজ এই হাল হতো না। দলও ফিরে পেত হারানো জৌলুশ। খালেদার পরিবারের সদস্যরা সরকারের কাছে কাকুতি মিনতি করে জামিন নিয়েছেন। তাই তিনি আর রাজনীতিতে সক্রিয় হওয়ার জন্য মুখ রাখেন না। কেননা দলীয় নেতা-কর্মীদের কার্যক্রমে তিনি নিজেও হতাশ।

রাজনীতি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর