ব্রেকিং:
নিরাপদ সড়ক ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে নিজ নিজ অবস্থানে থেকে সবাইকে দায়িত্বশীল হতে হবে; জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস এর আলোচনা সভায় বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ফিটনেসবিহীন গাড়ি চলাচল বন্ধ করতে হবে। আনুষ্ঠানিকভাবে সিংহাসনে বসেছেন সম্রাট জাপানের সম্রাট নারুহিতো। অভিষেক অনুষ্ঠানে যোগ দিতে জাপানে অবস্থান করছেন রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ। কানাডায় সাধারণ নির্বাচনে জয়ের পথে জাস্টিন ট্রুডোর লিবারেল পার্টি, গঠন করতে হতে পারে জোট সরকার। ভারতের মহারাষ্ট্র এবং হরিয়ানায় বুথ ফেরত জরিপে বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোটের জয়ের আভাস। ২৪ অক্টোবর ফল ঘোষণা। আসন্ন নির্বাচনকে প্রভাবিত করার অভিযোগে, চারটি রুশ ও ইরানি অ্যাকাউন্ট বন্ধ করলো ফেসবুক। ব্রেক্সিট ইস্যুতে সরকারের উত্থাপিত হ্যাঁ অথবা না ভোটের প্রস্তাবকে নাকচ করলেন যুক্তরাজ্যের পার্লামেন্ট। সুনির্দিষ্ট সময়ে সরকার গঠনে ব্যর্থ ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। এবার সুযোগ পাবে প্রধান বিরোধীরা। চিলিতে ভয়াবহ সহিংসতায় নিহত ১১। গ্রেফতার দেড় হাজারের বেশি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ১০ হাজার সেনা সদস্য মোতায়েন। থাইল্যান্ডের রাজার সাথে বিশ্বাসঘাতকতা এবং অশোভনীয় আচরণের দায়ে রাজসঙ্গির মর্যাদা প্রত্যাহার। যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটনের কাছে পাঠানো ৩০০০ গোপন ইমেইল থেকে, মুয়াম্মার গাদ্দাফিকে হত্যার ঘটনায় ফ্রান্সের জড়িত থাকার তথ্য ফাঁস।

বুধবার   ২৩ অক্টোবর ২০১৯   কার্তিক ৭ ১৪২৬   ২৩ সফর ১৪৪১

সর্বশেষ:
দুপুরে সাকিব-তামিমদের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বিসিবির কর্মকর্তারা। ক্রিকেটারদের ধর্মঘটের পরিপ্রেক্ষিতে উদ্ভূত পরিস্থিতির সমাধানে বোর্ড পরিচালকদের নিয়ে জরুরি সভায় বিসিবি, মিটিং শেষে বড় সিদ্ধান্ত আসার সম্ভাবনা। দেশের মানুষের মাথাপিছু আয় ১৯০৯ ডলারে উন্নীত। গত এক বছরে সরাসরি বৈদেশিক বিনিয়োগ বেড়েছে প্রায় ৫১ শতাংশ, মন্ত্রিসভার বৈঠকে তথ্য প্রকাশ। নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে পালিত হচ্ছে জাতীয় নিরাপদ সড়ক দিবস। সড়ক দুর্ঘটনায় নোয়াখালীতে নির্মাণ শ্রমিক ও যশোরে শিশু নিহত। ডাক বিভাগের ডিজিটাল লেনদেন নগদকে, পরিচয় অ্যাপ্লিকেশনের সাথে যুক্ত করে এক মিনিটে নগদ একাউন্ট সেবা উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। পদ্মা সেতুর দুটি নতুন থানা ও একটি নতুন পৌরসভা গঠনের অনুমোদন দিয়েছে প্রশাসনিক পুনর্বিন্যাস সংক্রান্ত জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি। ১১ দফা দাবিতে ধর্মঘটের ডাক দিয়েছেন জাতীয় ক্রিকেটাররা। তবে ধর্মঘটের আওতামুক্ত থাকবে বয়সভিত্তিক ক্রিকেট।

দিনাজপুরের ঐতিহাসিক কান্তজীউ মন্দির স্থাপত্যের উজ্জ্বল নিদর্শন

প্রকাশিত: ৯ অক্টোবর ২০১৯  

উত্তরবঙ্গের দিনাজপুরের স্থাপত্য শিল্পের উজ্জ্বল নিদর্শন। শ্রী শ্রী কান্তজীউ মন্দির কাহারোল উপজেলার সুন্দরপুর ইউনিয়নের ঢেপা নদীর তীরে কান্তনগরে শির উঁচু করে দাঁড়িয়ে আছে। টেরাকোটা অলঙ্করণ বৈচিত্র্য এবং ইন্দো- পারস্য স্থাপনা কৌশল অবলম্বনে কান্তজীউ মন্দিরটি নির্মিত। শ্রীকৃষ্ণের যুদ্ধ -বিগ্রহ অধিষ্ঠানের জন্য মন্দিরটি নির্মিত হয়। এর অবস্থান শ্যামগড় এলাকায় হলেও বিগ্রহের নামানুসারে নাম দেওয়া হয় কান্তনগর। মন্দিরের উত্তরের ভিত্তি বেদির শিলালিপি থেকে জানা যায়,মহারাজা প্রাণনাথের প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধান ও পৃষ্ঠপোষকতায় ১৭০৪ খ্রিস্টাব্দ থেকে মন্দিরটি নির্মাণ কাজ শুরু হয়। মহারাজার দত্তক পুত্র রাজ রামনাথ ১৭৫২ খ্রি, এর নির্মাণ কাজ শেষ করেন। প্রায় এক মিটির উঁচু এবং ১৮ মিটির বাহুবিশিষ্ট বর্গাকার বেদির ওপর মন্দিরটি নির্মিত। ইটের তৈরি মন্দিরের প্রত্যেক বাহুর দৈর্ঘ্য ১৬ মিটার। তিনতলা বিশিষ্ট এ মন্দিরের নয়টি চূড়া রয়েছে। এজন্য এটাকে নবরত্ন মন্দির বলা হয়।

শুরুতে কান্তজীউ মন্দিরের উচ্চতা ছিল ৭০ ফুট। ১৮৯৭ সালে কান্তজীউ মন্দিরটি ভূমিকম্পের কবলে পড়লে এর চূড়াগুলো ভেঙে যায়। পরে রাজা গিরিজনাথ মন্দিরের সংস্কার করলেও এর চূড়াগুলো আর নির্মাণ করা হয়নি। মন্দিরের প্রাঙ্গণ আয়াতকার হলেও পাথরের ভিত্তির ওপর দাঁড়ানো ৫০ ফুট উচ্চতার মন্দিরটি বর্গাকার। এর পরিমাণ ১৯.২০ গুণ ১৯.২০ বর্গামিটার। মন্দিরটি ১৫.৮৪ গুণ ১৫.৮৪ বর্গমিটার আয়তনের একটি বর্গাকার ইমারত। প্রতিটি তলার চারপাশে বারান্দা রয়েছে। মন্দিরের টেরাকোটা চিত্রে রামায়ণ ও মহাভারতের ঘটনা সংবলিত চিত্র ও মোঘল আমলের বাংলার সাধারণ মানুষের জীবনযাত্রার ছবি ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। মন্দিরের পশ্চিম দিকে দ্বিতীয় বারান্দা থেকে সিঁড়ি উপরের দিকে উঠে গেছে। এর নিচতলায় ২৪ টি, দ্বিতীয় তলায় ২০টি এবং তৃতীয় তলায় ১২টি দরজা রয়েছে।ধারণা করা হয়, কান্তজীউ মন্দির নির্মাণে ব্যবহৃত পাথর আনা হয় হিমালয়,আসামের পার্বত্যা ল ও বিহারের রাজ মহল পাহাড় থেকে। এ ছাড়া ইট-বালু টেরাকোটা ও কঠিন পাথরের সংমিশ্রণে এটি মন্দিরটি তৈরি করা হয়েছে।

ঐতিহাসিক বুকানন হ্যামিলটনের মতে, কান্তজীউ বাংলাদেশের সবচেয়ে সুন্দরতম মন্দির। দিনাজপুর রাজদেবোত্তর এস্টেট বর্তমানে মন্দিরটি দেখাশোনা করে। প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতর মন্দিরটি দেখাশোনায় সহযোগিতা করে। এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের সহায়তায় মন্দিরটির সামগ্রিক উন্নয়নে বিভিন্ন কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে।   

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –
এই বিভাগের আরো খবর