ব্রেকিং:
নবম শ্রেণি থেকেই বিষয় ভিত্তিক বিভাজন না করার পক্ষে প্রধানমন্ত্রী পেঁয়াজ রফতানির ওপর নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে ভারত সরকার আগামী বছর থেকেই বাংলাদেশ থেকে ট্রেনে চড়ে যাওয়া যাবে ভারতের পর্যটনখ্যাত রাজ্য দার্জিলিংয়ে প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে চীনা প্রেসিডেন্টের চিঠি

বৃহস্পতিবার   ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ১৫ ১৪২৬   ০৩ রজব ১৪৪১

সর্বশেষ:
প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের কারণে ওমরাহ যাত্রী ও মসজিদে নববী ভ্রমণকারীদের জন্য সৌদি আরবে প্রবেশ সাময়িকভাবে স্থগিত পদকে এগিয়ে বেগম রোকেয়ার মেয়েরা তাবলীগ জামাতের দুই গ্রুপে সংঘর্ষের আশঙ্কা, ইজতেমা বন্ধ নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপঃ টস হেরে ফিল্ডিংয়ে বাংলাদেশ পার্বতীপুরে মামলার বাদীকে প্রাণনাশের হুমকি! শপথ গ্রহণ করলেন ঢাকার নবনির্বাচিত মেয়র তাপস-আতিকুল
৫১

দিনাজপুর প্রেসক্লাবে এসিডে ঝলসে যাওয়া মহিলার সাংবাদিক সম্মেলন

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

দিনাজপুর প্রেসক্লাব নিমতলা কার্যালয়ে দুর্বৃত্তদের ছুঁড়ে দেওয়া এসিডে ঝলসে যাওয়া মোছাঃ জোহর নেগার (৩৫), স্বামী মোঃ আবেদ আলী, সাং-রাজপুর, থানা-কাহারোল, জেলা, দিনাজপুর, গতকাল সোমবার সাংবাদিক সম্মেলনে দুর্বৃত্ত কর্তৃক এসিডে আক্রান্ত নির্যাতিত নারী, মুমুর্ষ অবস্থায় এসিড নিক্ষেপকারীদের নাম পরিচয় প্রকাশ করেন।  

তিনি বলেন, আসামী-১ গনি মিয়া, ২ আহের আলী,  উভয়ের পিতা-মৃত রজ্জব আলী, ৩. মোঃ তোজাম্মেল, পিতা-ইব্রাহিম, রাগপুর, থানা-কাহারোল, জেলা-দিনাজপুর। উক্ত ব্যক্তিরা আদালতে দায়ের করা একাধিক মামলার আসামী। উক্ত আসামীরা আমি ও আমার পরিবারকে মেরে ফেলার অসৎ উদ্দেশ্যে ঘটনার দিন আমার সমস্ত শরীর এসিড দ্বারা ঝলসে দেয়। গত ১২/০৮/২০১৯ইং তারিখ হইতে ১৭/০৮/২০১৯ইং তারিখ পর্যন্ত আমি এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলাম। আমার চিকিৎসার অবনতি হলে কর্মরত ডাক্তার আমাকে রংপুর ও ঢাকায় যেতে বলে। আমি ঢাকায় গিয়ে চিকিৎসা নেই ১৬/০৯/২০১৯ইং তারিখ পর্যন্ত। আমি কিছুটা সুস্থ হয়ে ছাড়পত্র নিয়ে কাহারোল থানার এসআই সুভাশ চন্দ্রকে ফোন করে দিনাজপুরে আসি।

এসআই সুভাশ চন্দ্র, আমি ও আমার পরিবারবর্গসহ স্বাক্ষীগণদের জবানবন্দী গ্রহণ করে সাক্ষ্য নেন। আমি ও আমার পরিবার বাড়িতে যাওয়ার অনুমতি প্রার্থনা করলে তিনি বলেন, আমার নিরাপত্তা নাই।

ঘটনার প্রায় ১ মাস পূর্বে, আমি এবং আমার স্বামী একটি জিডি নিয়ে এস আই একরামুল, এসআই মানিক ও এসআই মহিদুল এর নিকট প্রায় ৭ দিন ঘোরাঘুরি করি, কিন্তু কেউই আমার জিডি গ্রহণ করেননি। উক্ত মামলার আসামীগণ অত্যন্ত দূর্দান্ত ও প্রভাবশালী হওয়ায় থানা কর্তৃপক্ষ এবং এলাকাবাসীর প্রধানদের একাত্মতায় আমি ন্যায় বিচার হতে বঞ্চিত হচ্ছি। এসিড নিক্ষেপের বিষয়ে কাহারোল থানায় একটি মামলা দায়ের করি যার মামলা নং-০৫, তারিখ-২০-০৮-২০১৯, এসিড অপরাধ দমন আইন-(২০২)এর -৫ (ক) ও ৫ (খ) ধারা।

দিনাজপুরে আসামীরা সকলে মিলে গত ১১/৮/২০১৯ইং তারিখে দিবাগত রাতে আমার বাড়িতে এসে ফিল্মি স্টাইলে আমার গায়ে এসিড ঢেলে আমাকে ঝলসে দেয় এবং হুমকি দেয়, আমার মেয়েকে পেট্রোল ঢেলে পুড়িয়ে দেবে। তাই আমি আজ চরম নিরাপত্তাহীনতায় দিনযাপন করছি। আমার বাড়ী ছেড়ে আমি দিনাজপুরে এসে আমার আত্মিয়ের বাড়ীতে অবস্থান করছি। তাই আমি আপনাদের লেখনীর মাধ্যমে আমার উপর এসিড নিক্ষেপের ঘটনার তদন্ত সাপেক্ষে আসামীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করছি এবং সেই সাথে গণজাপ্রতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, পুলিশের আইজিপি, জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম, জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছি। আমার ও আমার পরিবারের জীবন রক্ষার জন্য সকলের নিকট আর্জি জানাচ্ছি।