বৃহস্পতিবার   ১২ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৮ ১৪২৬   ১৪ রবিউস সানি ১৪৪১

৩৩৩

`নখ` বিষয়ে থাকতে হবে সচেতন

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮  

ছবি সংগৃহীত

ছবি সংগৃহীত

নখের নানান পরিচর্যা নারীরা করে থাকেন। কিন্তু সুস্থ নখ সুস্বাস্থ্যের লক্ষণ, এটা অনেকেই জানেন না। নখের রং পাল্টে যাওয়া, নখ মরে যাওয়া, ভঙ্গুর হয়ে পড়া বা নখে গর্ত হতে পারে নানান ধরনের রোগের লক্ষণ। এ বিষয়ে থাকতে হবে সচেতন।

: খসখসে ভঙ্গুর নখ, চামচের মতো বেঁকে যাওয়া ফ্যাকাশে নখ ভিটামিনের অভাব, বিশেষ করে আয়রনের অভাবে হয়ে থাকে। আবার যকৃতের রোগে নখ সাদা হয়ে যেতে পারে। নীলচে নখ রক্তে কম অক্সিজেনের উপস্থিতিকে নির্দেশ করে।
: আমিষের অভাবে নখ ভঙ্গুর ও নরম হয়ে যেতে পারে। ভিটামিন সি, ই ও ফলিক অ্যাসিডের অভাবেও নখ বিবর্ণ ও ভঙ্গুর হয়।
: কারও কারও নখ আবার খুব মোটা ও পুরু হয়ে যায়। ছত্রাক সংক্রমণে এবং কখনো কখনো সোরিয়াসিসে এমন মোটা নখ দেখা যায়।
: সোরিয়াসিসে নখ মোটা, হলদে ও পুরু এবং নখে গর্ত হয়ে যেতে পারে। সোরিয়াসিসের সঙ্গে ত্বকের সমস্যা বা সন্ধিতে সমস্যা হতে পারে।
: নখের নিচে বা কোণে সংক্রমণ হলে জায়গাটা লাল হয়ে যায়, ফুলে যায় ও ব্যথা করে।

কী করবেন না
দাঁত দিয়ে নখ কাটবেন না। নখের কোণে বেড়ে থাকা বা ঝুলন্ত ত্বক টেনে ছিঁড়বেন না বা তুলবেন না। নখ সব সময় ভেজা বা স্যাঁতসেঁতে রাখা ঠিক নয়। খুব গভীরভাবে নখ কাটবেন না। এতে সংক্রমণের ঝুঁকি থাকে। নেইলপলিশ রিমুভার খুব ঘন ঘন লাগানো উচিত নয়। যদি দিতেই হয়, অ্যাসিটোনমুক্ত রিমুভার নিরাপদ।

কী করবেন
নখ পরিচ্ছন্ন ও জীবাণুমুক্ত রাখুন। পানির কাজ বেশি করতে হলে দস্তানা ব্যবহার করুন। নখ কাটার সময় সোজা করে কাটুন, কোনাগুলো বেশি না বাঁকিয়ে। ধারালো ম্যানিকিউর সেট বা নেইলকাটার ব্যবহার করবেন। নখ পরিষ্কার করে ভালো করে মুছে ময়েশ্চারাইজার বা লোশন লাগাবেন। ভিটামিন ও আমিষযুক্ত সুষম খাদ্যাভ্যাস দরকার। নখে যেকোনো রঙের বা আকৃতির পরিবর্তন হলে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হন।

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –