ব্রেকিং:
হাটবাজার, দোকানপাট ও শপিংমল খোলা রাখার সময় বাড়ানো হয়েছে। সময় এক ঘণ্টা বাড়িয়ে রাত আটটা পর্যন্ত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। যা এতদিন সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত ছিল। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও সব ধরনের কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার নির্দেশ করোনার উপসর্গ নিয়ে কুড়িগ্রামে পুলিশ সদস্যের মৃত্যু পানিবন্দি ৩০ লাখ মানুষকে খাদ্য সহায়তা অব্যাহত:ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ৪৮ ঘণ্টা আগেই রংপুর সিটিতে পশুর বর্জ্য অপসারণ গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনাভাইরাসে আরো ৩০ জনের মৃত্যু হয়েছে এবং নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন এক হাজার ৩৫৬ জন।
  • মঙ্গলবার   ০৪ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ১৯ ১৪২৭

  • || ১৪ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

সর্বশেষ:
বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর জনগণ সব সম্ভাবনা হারিয়ে ফেলে- প্রধানমন্ত্রী ঠাকুরগাঁওয়ে রত্নাই সীমান্তের নাগর নদীতে বাংলাদেশির লাশ ভিয়েনায় `বঙ্গবন্ধু স্মৃতি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট` উদ্বোধন দেশবাসী নিরাপদে ঈদ উদযাপন করেছে- স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বাংলাদেশে ধর্ম যার যার উৎসব কিন্তু সবার- তথ্যমন্ত্রী
১৩৪

নীলফামারীতে বাড়ি উপহার পেল তিন পরিবার  

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৭ জুলাই ২০২০  

মুজিববর্ষ উপলক্ষে নীলফামারীর ডোমার উপজেলায় তিন মুক্তিযোদ্ধা সাবেক সেনা সদস্য পাকা বাড়ি উপহার পেয়েছে। সেনা কল্যাণের অর্থায়নে রংপুর এরিয়া সদর দপ্তরের তত্ত্বাবধানে খোলাহাটি সেনানিবাসের ১৯ মিডিয়াম রেজিমেন্ট আর্টিলারির সদস্যরা উক্ত বাড়ি উপহার হিসাবে ওই তিন পরিবারকে হস্তান্তর করেন।

মঙ্গলবার দুপুরে আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের পরিবারকে বাড়িগুলোর চাবি হস্তান্তর করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন খোলাহাটি সেনানিবাসের ১৯ মিডিয়াম রেজিমেন্ট আর্টিলারির অধিনায়ক লে..কর্ণেল আরিফ হোসেন, লেফটেন্যাট নকিব হাসানসহ অন্যান্য সেনা সদস্যরা। 


বাড়ি উপহার পাওয়া পরিবারগুলো হলো ডোমার উপজেলার চিলাহাটি চৌকিদার মোড় গ্রামের রফিকুল ইসলাম ও একই গ্রামের আফিজার রহমান ও ডোমার পৌরসভার কলেজ পাড়া এলাকার রশিদুল হকের পরিবার। ওই সাবেক তিন সদস্যই ১৯৭১ সালের বীরমুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক সেনা সদস্য ছিলেন । এদের মধ্যে রফিকুল ইসলাম ও রশিদুল হক মৃত্যু বরন করেছেন। 


অবসরপ্রাপ্ত সৈনিক মুক্তিযোদ্ধা আফিজার রহমান জানান, বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সবসময় দেশের সকল সংকটে ঝাঁপিয়ে পড়ে। আমি গর্বিত যে, আমি সেনাবাহিনীর একজন সাবেক সদস্য। আজ আমার বৃদ্ধ বয়সে ভালোবাসার প্রতিষ্ঠান হতে ভালোবাসা হিসেবে একটি ভালো বাড়ি উপহার পেলাম।


মৃত রফিকুল ইসলামের স্ত্রী বিলকিস বানু (৫৮) নতুন ঘর পেয়ে আনন্দে আগাল্পুপ্ত হয়ে জানান, আমার স্বামীর মৃত্যু পরও তার কর্মস্থল হতে নতুন বাড়ি পেলাম। আর কিছু চাওয়ার নাই। সেনাবাহিনীর সদস্যদের জন্য আমার দোয়া রইল। 


প্রসঙ্গত, প্রতিটি বাড়িতে দুইটি থাকার ঘর, একটি বাথরুম, একটি টিউবওয়েল, একটি রান্না ঘর রয়েছে। এক একটি বাড়ি নির্মানে পাঁচ লক্ষ টাকা ব্যয় হয়েছে। সেনাবাহিনীর সদস্যদের পক্ষ হতে রংপুর বিভাগে মোট ১৪ জন মুক্তিযোদ্ধা ও সাবেক সেনা সদস্যের পরিবারকে ৭৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে বাড়ি উপহার দেওয়া হবে।

নীলফামারী বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর