ব্রেকিং:
দেশে করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ৩৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ৩ হাজার ৪৭১ জন। এছাড়া নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন দুই হাজার ৯৯৬ জন। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৬৩ হাজার ৫০৩ জন।
  • মঙ্গলবার   ১১ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২৭ ১৪২৭

  • || ২১ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

সর্বশেষ:
শোক দিবসে দেশের সকল মসজিদে বিশেষ দোয়া ‘আধুনিক পদ্ধতি অনুসরণ করে শিশুদের পাঠদান করতে হবে’ লেবাননে পৌঁছেছে বাংলাদেশ সরকারের মানবিক সহায়তা ‘স্বাস্থ্যখাতের দুর্নীতি রোধে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে সরকার’ প্রণব মুখার্জির দ্রুত আরোগ্য কামনা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর
১৯৭

প্লে স্টোরের ৮৫টি অ্যাপের মাধ্যমে ছড়াচ্ছে ম্যালওয়্যার!

নীলফামারি বার্তা

প্রকাশিত: ২১ আগস্ট ২০১৯  

আবারও ম্যালওয়্যারের শিকার হয়েছে গুগল প্লে স্টোর। সম্প্রতি আইটি সিকিউরিটি প্রতিষ্ঠান ট্রেন্ড মাইক্রো এক প্রতিবেদনে প্লে স্টোরের বেশ কিছু অ্যাপে এই ম্যালওয়্যার খুঁজে পাবার খবর জানিয়েছে। 

তারা দাবি করেছে, তাদের গবেষকরা প্লে স্টোরের অন্তত ৮৫টি অ্যাপে ম্যালওয়্যারের সন্ধাণ পেয়েছেন, যার অধিকাংশই বেশ জনপ্রিয়। এই অ্যাপগুলোর ভেতরে ‘অ্যান্ড্রোয়েড ওএস_হিডেনড্যাড.এইচআরএক্সএইচ’ নামে একটি লুকানো বিজ্ঞাপনী সফটওয়্যারের মাধ্যমে এই ম্যালওয়্যার ছড়াচ্ছে।

এই সফটওয়্যারের মাধ্যমে অ্যান্ড্রোয়েড ডিভাইসের পর্দায় বিভিন্ন অযাচিত বিজ্ঞাপন দেখানো হয়ে থাকে। গুগল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এই ম্যালওয়্যার এরইমধ্যে অন্তত ৮০ লাখেরও বেশিবার ডাউনলোড করা হয়ে গেছে। 

ট্রেন্ড মাইক্রো তাদের ১৬ আগস্টে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে সর্ব প্রথম এই ম্যালওয়্যারের অস্তীত্বের কথা জানায়। তারা জানায়, এই ম্যালওয়্যারটি গুগলের সব ধরনের নিয়মকানুন ভঙ্গ করছে। 

এই ম্যালওয়্যারটির প্রভাবে স্মার্টফোন ব্যবহারকারী প্রায়সময়ই তার ডিভাইস ঠিকমতো ব্যবহার করতে পারেন না। এটি মাঝেমধ্যেই ডিভাইসের স্ক্রিনের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয় এবং তাদের নিজস্ব বিজ্ঞাপন দেখানো শুরু করে। আর সেই সময়ে ব্যবহারকারী কোনভাবেই সেই বিজ্ঞাপন শেষ না হওয়া পর্যন্ত ডিভাইসের নিয়ন্ত্রণ ফিরে পান না।

ট্রেন্ড মাইক্রো তাদের প্রতিবেদনে ম্যালওয়্যার ছড়ানো ৮৫টি অ্যাপের একটি তালিকাও প্রকাশ করেছে। এ তালিকায় থাকা অ্যাপগুলোর মধ্যে সুপার সেলফি ক্যামেরা, কস ক্যামেরা, পপ ক্যামেরা ও ওয়ান স্ট্রোক লাইন পাজল অন্যতম। এই অ্যাপগুলোর প্রত্যেকটিই অন্তত ১০ লক্ষবার ডাউনলোড করা হয়েছে।

ট্রেন্ড মাইক্রো জানিয়েছে, এই অ্যাপগুলো মূলত অ্যান্ড্রোয়েডের সর্বশেষ দুই সংস্করন ‘অ্যান্ড্রোয়েড ৮ – অরিও’ এবং ‘অ্যান্ড্রোয়েড ৯ – পাই’ এর আগের সংস্করণগুলোকে লক্ষ্য করে তৈরি করা হয়েছে। সুতরাং, এই ম্যালওয়্যার থেকে বাচঁতে হলে ব্যবহারকারীকে অবশ্যই অ্যান্ড্রোয়েডের সর্বশেষ সংস্করন দু’টি ব্যবহার করতে হবে। 


সূত্র: গিজ চায়না ডটকম

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর