ব্রেকিং:
আজ ২৮ মে রংপুর মেডিকেলে কলেজে ১৭৮ নমুনা পরীক্ষা করে ১৪ জন করোনা শনাক্ত। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রংপুর মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. নুরুন্নবী লাইজু। তিনি জানান, আক্রান্তরা হলেন, রংপুরের কাউনিয়া-২, শালবন-৩, মুলাটোল-১, ধাপ, কাকলি লেন-১, পূর্ব গুপ্তপাড়া-১, মেডিকেল মোড়-১, ধাপ জেল রোড-১, সেনপাড়া-১, সদ্যপূষ্করনী ইউনিয়ন -১, জেলা পুলিশ-১ এবং কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ি-১ জন। করোনাভাইরাসের কারণে দুইমাস বন্ধ থাকার পর ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি শুরু হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে ভারতের নাসিক থেকে ১৬শ’ মেট্রিক টন পেঁয়াজ নিয়ে দিনাজপুরের হিলি রেলস্টেশনে পৌঁছেছে মালবাহী একটি ট্রেন। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন হিলি স্থলবন্দরের আমদানিকারক শহীদুল ইসলাম শহীদ। কুড়িগ্রামের উলিপুরে বৌভা‌তের দাওয়াত খে‌য়ে বা‌ড়ি ফেরার প‌থে নৌকাডু‌বির ঘটনায় নি‌খোঁজ চারজ‌নের মর‌দেহ উদ্ধার ক‌রে‌ছে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের কর্মীরা। দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড দুই হাজারের বেশি করোনা রোগী সনাক্ত! মোট আক্রান্ত ৪০ হাজার ছাড়াল।
  • বৃহস্পতিবার   ২৮ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৪ ১৪২৭

  • || ০৫ শাওয়াল ১৪৪১

সর্বশেষ:
সাধারণ ছুটি বাড়ছে না, স্বাস্থ্যবিধি মেনে ৩১ মে থেকে চলবে অফিস! অবশেষে সীমিত আকারে চালু হচ্ছে গণপরিবহন অফিস খুললেও বয়স্ক-গর্ভবতীদের কর্মস্থলে যেতে হবে না নিরাপদ মাতৃত্ব দিবস আজ ভারত-চীন উত্তেজনার মধ্যেই ভারতে সেনা সম্মেলন শুরু
৬৮

ফিলিপাইনে আবারও ৬ দশমিক ৫ মাত্রার ভূমিকম্প

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১ নভেম্বর ২০১৯  

ফিলিপাইনের দক্ষিণাঞ্চলে আঘাত হেনেছে শক্তিশালী ভূমিকম্প। মাত্র দু’দিনের ব্যবধানে দেশটিতে ফের শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হানলো।

বৃহস্পতিবার ৬ দশমিক ৫ মাত্রার এ ভূমিকম্পে অন্তত পাঁচ জন নিহত ও আরো বেশ কয়েকজন আহত হয়েছে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। এছাড়া আগের ভূমিকম্পগুলোতে ক্ষতিগ্রস্ত অনেক ভবন ও বাড়ি ধসে পড়েছে বলেও জানিয়েছে তারা।

এর আগে মিন্দানাওয়ে ১৬ অক্টোবর ৬ দশমিক ৩ মাত্রার ও ২৯ অক্টোবর ৬ দশমিক ৬ মাত্রার দুটি ভূমিকম্প হয়। ওই দুই ভূমিকম্পে ইতোমধ্যে ওই অঞ্চলের অনেক ভবন ও বাড়ির কাঠামো দুর্বল হয়ে পড়েছিল।

দেশটির সমাজ কল্যাণ বিভাগের এক কর্মকর্তা জানান, ভূমিকম্পে উত্তর কোটাবাটো প্রদেশে পাঁচ জন নিহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে এক গ্রাম প্রধানও রয়েছেন। দপ্তরের দেয়াল ধসে তার ওপর পড়লে তিনি ঘটনাস্থলেই নিহত হন।

এদের নিয়ে এ অঞ্চলে পরপর তিনটি ভূমিকম্পে নিহতের সংখ্যা ২০ জনে দাঁড়িয়েছে।

এবারের ভূমিকম্পটির উৎপত্তি কোটাবাটো প্রদেশের টুলুনান শহরের ৩৩ কিলোমিটার উত্তরপূর্ব দিকে। ওই এলাকাটি ফিলিপিন্সের প্রেসিডেন্ট রদরিগো দুতার্তের নিজ শহর দাভাও এর পশ্চিমে।

ভূমিকম্পের সময় প্রেসিডেন্ট দুতার্তে দাভাওতেই ছিলেন বলে জানিয়েছেন তার মুখপাত্র সালভাদর পানেলো। তবে ফিলিপিন্সের নেতা নিরাপদ আছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

দাভাওতে একটি বহুতল ভবনের নিচতলা ধসে পড়ে আহত ৯ ব্যক্তিকে পুলিশ উদ্ধার করেছে বলে ডিজেডএমএম রেডিওর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

দাভাওয়ের নিকটবর্তী কিদাপাওয়ান শহরে ছয়তলা একটি হোটেল ভবন ধসে পড়লেও ভিতরে কেউ ছিল না বলে জানিয়েছেন মেয়র জোসেফ এভানজেলিস্তা।

আরও শক্তিশালী পরাঘাত হতে পারে বলে সতর্ক করে লোকজনকে বাড়ি ও অফিস ভবনের বাইরে থাকার পরামর্শ দিয়েছে ফিলিপিন্স ইনিস্টিটিউট অব ভলকানোলজি এন্ড সিসমোলজি (ফিভোলক্স)।

ভূতাত্ত্বিভাবে অতি সক্রিয় প্যাসিফিক রিং অব ফায়ারের (প্রশান্ত মহাসাগরীয় আগ্নেয় মেখলা) ওপর অবস্থিত ফিলিপিন্সে প্রায়ই ভূমিকম্প হয়।

আন্তর্জাতিক বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর