ব্রেকিং:
কুড়িগ্রামে জেএমবি কর্তৃক ধর্মান্তরিত মুক্তিযোদ্ধা হোসেন আলী হত্যা মামলার সাক্ষ্য গ্রহন অনুষ্ঠিত দিনাজপুরে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনায় বেকারী মালিক সমিতির নির্বাচন সম্পন্ন সৈয়দপুরে তিন দিনব্যাপী জাতীয় লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং পণ্য ও প্রযুক্তি মেলার শুরু সৈয়দপুর বিমানবন্দরে জোরপূর্বক প্রবেশের চেষ্টাকালে তিন যুবক গ্রেফতার সালমান শাহ পারিবারিক কলহে আত্মহত্যা করেছেন : পিবিআই

মঙ্গলবার   ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ১৩ ১৪২৬   ০১ রজব ১৪৪১

সর্বশেষ:
পিলখানা বিদ্রোহ আর হত্যাযজ্ঞের ১১ বছর আজ ডিজিএফআইয়ের নতুন ডিজি মেজর জেনারেল সাইফুল আলম লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলায় সালাম না দেয়ায় সরকারি এক কর্মকর্তাকে পিটিয়ে আহত করেছেন সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান বিশ্বজয়ী আকবর আলী ও জাতীয় টেবিল টেনিস চ্যাম্পিয়ন হৃদয়কে সম্মানী ভাতা দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন রসিক মেয়র সীমান্তে চোরাচালান রোধে বিজিবিকে সজাগ থাকার আহ্বান রাষ্ট্রপতির
৫৭

ফুলবাড়ীতে নির্মাণের তিন বছরেও হস্তান্তর হয়নি মহিলা মার্কেট

নীলফামারি বার্তা

প্রকাশিত: ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলার খড়িবাড়ী হাট মহিলা মার্কেট নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার ৩ বছর শেষ হলেও, প্রশাসনিক জটিলতায় নারী সুবিধাভোগীদের কাছে তা হস্তান্তর করা হয়নি । এ নিয়ে সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদকে বারবার উপজেলা প্রশাসন থেকে তাগিদ দেয়ার পরও, কাজের কাজ কিছুই হয়নি। ফলে নারীর উন্নয়নে সরকারের যে অগ্রণী ভুমিকা, তা প্রশ্নবিদ্ধ করা সহ, আয়ের উৎস থেকে বঞ্চিত হচ্ছে নারী সুবিধাভোগীরা।

জানা গেছে, ফুলবাড়ী উপজেলায় গ্রামীণ অর্থনীতি চাঙ্গা ও নারী উদ্যোক্তা সৃষ্টির লক্ষ্যে পুরুষের পাশাপাশি হতদরিদ্র ও নিম্ন আয়ের নারীদের উন্নয়নের জন্য সরকার এলজিইডি’র মাধ্যমে মহিলা মার্কেট চালু করে । কিন্তু সরকারের এই মহৎ উদ্দেশ্য আজ ভেস্তে যেতে বসেছে। মার্কেটটি পড়ে থাকতে থাকতে নষ্ট হবার উপক্রম হয়েছে। সুবিধাভোগীরা ঘর বরাদ্দ পাওয়ার আশায় ধর্না দিয়েও পাচ্ছেন না বরাদ্দের ঘর।

নির্মাণের তিনবছর অতিবাহিত হলেও কেন বরাদ্দ দেয়া হচ্ছে না, এর পেছনে রয়েছে অন্য কোন উদ্দেশ্য, এমন অভিযোগ করেছেন একাধিক ব্যবসায়ী। এর আগে একই অবস্থা সৃষ্টি হয়েছে ফুলবাড়ী উপজেলায় বালার হাট ও নেওয়াশি বাজারে মহিলা মার্কেট নির্মাণের পর। এই দুই বাজারের দোকান গুলো পুরুষরা দখল করে নিয়ে ব্যবসা করছেন। ওইসব ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সাইনবোর্ডে মহিলা মার্কেট কথাটি পর্যন্ত লেখা নেই। বাজারের একটি দোকানও মহিলা দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে না। ফলে এখানকার  নারীরা দোকান করে স্বাবলম্বী হওয়া বা অর্থনৈতিক উন্নয়নে কোনো অবদান রাখার সুযোগ পাচ্ছেন না। বরং সরকারের নেয়া মহৎ উদ্যোগ বিনষ্ট হয়ে গেছে।

উপজেলা প্রকৌশলী আসিক ইকবাল রাজিব জানান, ভবনের কাজ শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবগত করা হয়েছে। তারা পদক্ষেপ নিলে হস্তান্তর করা হবে।

ইউএনও মাছুমা আরেফিন জানান, আবেদন গুলো চেয়াম্যানের কাছে পাঠানো হয়েছে। যাছাই বাছাই করে দ্রুতই ব্যবস্থা নেয়া হবে।