শনিবার   ১৮ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ৫ ১৪২৬   ২২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

৪০০

ফের আত্মগোপনে আনপ্রেডিক্টেবল হিরো এরশাদ, গণভবনে রওশন

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ২০ নভেম্বর ২০১৮  

নির্বাচনকে আবারো আত্মগোপনে দেশের রাজনীতির আনপ্রেডিক্টেবল হিরো জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। গেল শনিবার গভীর রাতে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। রাতেই তাকে নেয়া হয় ঢাকা সিএমএইচে। ভর্তি করা হয় হিমোগ্লোবিনের সমস্যার কারণ দেখিয়ে। একদিন পরই ছাড়েন হাসপাতাল। কিন্তু আর ফেরেননি বারিধারার প্রেসিডেন্ট পার্কের বাসভবনে। তবে কেউ কেউ বলছেন নিজ বাসভবনেই আছেন তিনি। কিন্তু কোনো হদিস পাওয়া যায়নি তার।

এছাড়া গত দুদিন ধরে গণমাধ্যমের সামনেও আসেননি তিনি। প্রশ্ন কোথায় গেলেন এরশাদ? এ বিষয়ে জাপাও নেতারা মুখ খুলছেন না। তবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক নেতা জানান, অজ্ঞাত স্থানে 'বিশ্রামে আছেন' পার্টির চেয়ারম্যান। গত শনিবার রাতে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল (সিএমএইচ) থেকে ছাড়া পেয়ে বারিধারার প্রেসিডেন্ট পার্কের বাসভবনে ফেরেননি তিনি। এরশাদ কোথায় তা জানতে জাপা মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদারকে ফোন দিলে তিনি বলেন, এরশাদ নিজ বাসায় আছেন। বিশ্রাম করছেন। নেতাকর্মীদের চাপে বিশ্রামে আছেন তিনি।

নাম প্রকাশে আরেক নেতা বলেন, গতবার গুলশানের যে বাসায় তিনি একদিন ছিলেন এবারও সেখানেই আছেন। আর এ কারণে শনিবারের সাক্ষাতকার স্থগিত করা হয়েছে। তবে ওই নেতা বলেন, মঙ্গলবার ইমান্যুয়েলসে মনোনয়ন প্রত্যাশীদের সাক্ষাতকার নেবেন এরশাদ।

দেশের রাজনীতিতে একমাত্র আনপ্রেডিক্টেবল চরিত্র সাবেক রাষ্ট্রপতি এরশাদ। এবার আওয়ামী লীগের সঙ্গে জোট করে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার ঘোষণা দিলেও এরশাদ শেষ পর্যন্ত কী করবেন, তা নিয়ে রয়েছে সংশয়।

বিএনপির সঙ্গে জোট করেও ২০০১ সালের নির্বাচনের আগে চার দল ছাড়েন এরশাদ। আবার বিএনপির সঙ্গে আলাপ চালিয়েও ২০০৬ সালে ভোটের আগে যোগ দেন মহাজোটে। তিন দিন 'আত্মগোপনে' থাকার পর ওই বছর ১৮ ডিসেম্বর পল্টনে আওয়ামী লীগের মহাসমাবেশে যোগ দিয়ে রাজনীতিতে আলোচনার জন্ম দেন এরশাদ। ২০১৪ সালের জাতীয় নির্বাচনের আগেও হাসপাতালে ছিলেন তিনি। একদিন ছিলেন আত্মগোপনে। তৎকালীন ভারতীয় পররাষ্ট্র সচিব সুজাতা সিংকে সাক্ষাৎ দিতে এক রাত পর বারিধারার প্রেসিডেন্ট পার্কের বাসায় ফেরেন সাবেক রাষ্ট্রপতি।

এবারও নির্বাচন ও আসন বন্টনের আগে এরশাদ হাসাপাতালে যাওয়ায় প্রশ্ন উঠেছে। তবে হাসপাতাল থেকে বের হয়ে আড়ালে চলে যাওয়ায় ফের রহস্যের জন্ম দিয়েছেন আনপ্রেডিক্টেবল এরশাদ।

এদিকে সোমবার দুপুরে বনানীতে জাপা চেয়ারম্যানের অফিসে সম্মিলিত জাতীয় জোটের বৈঠকে শরিকদের আসন বন্টন নিয়ে আলোচনা হয়েছে। কিন্তু সে বৈঠকেও ছিলেন না এরশাদ। বনানীতে তার অফিসের চারদিকে বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তা। বনানী অফিস ও বারিধারার প্রেসিডেন্ট পার্কের বাসভবনের নিরাপত্তায় কাজ করছে আইনশৃঙ্খলাবাহিনী।

এদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –
এই বিভাগের আরো খবর