শুক্রবার   ২২ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৭ ১৪২৬   ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

সর্বশেষ:
সশস্ত্র বাহিনীর বীর শহীদদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা বিএনপি এখন গুজবের রাজনীতি করে: কাদের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর আশ্বাসে পরিবহন-মালিক শ্রমিকদের ধর্মঘট প্রত্যাহার সশস্ত্র বাহিনী দিবস আজ
১৪

বাংলাদেশে বিনিয়োগের জন্য ফ্রান্সেকে আহ্বান পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

প্রকাশিত: ২২ অক্টোবর ২০১৯  

বাংলাদেশে বিনিয়োগের জন্য ফ্রান্সের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন। 

মঙ্গলবার ঢাকায় পাওয়া এক বার্তায় বলা হয়, সোমবার প্যারিসে ফরাসি সিনেট কর্তৃক আয়োজিত বাংলাদেশ-ফ্রান্স ইকোনমিক ফোরামে বক্তব্য দেয়ার সময় মন্ত্রী এ আহ্বান জানান।

তিনি বাংলাদেশের অবকাঠামো, পরিবর্তনশীল জ্বালানি, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা এবং আইসিটি খাতে বিনিয়োগের আহ্বান জানান।

বাংলাদেশ ও ফ্রান্স উভয়ই বেসরকারি খাতের প্রতিনিধি এবং পাশাপাশি বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিআইডিএ), বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা), বাণিজ্য মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষ এবং প্রাসঙ্গিক ফরাসি সম্পর্কিত সরকারি সংস্থার প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন।

ড. মোমেন আলোকপাত করেন মধ্যম আয়ের দেশ হয়ে ওঠার ক্ষেত্রে বাংলাদেশের সাফল্য এবং একটি উন্নত দেশে পরিণত হওয়ার রোডম্যাপ।

তিনি অর্থনৈতিক ও সামাজিক বিকাশকে অন্তর্ভুক্তিমূলকভাবে সংঘটিত করার কথা বলেন, যাতে কেউ পিছনে না থাকে। প্যারিসে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত কাজী ইমতিয়াজ হোসেন, ফরাসি কর্তৃপক্ষ অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

এর আগে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফ্রান্সের বাণিজ্য ও বিনিয়োগের দায়িত্বে থাকা ইউরোপ ও বিদেশ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী জেন ব্যাপটিস্ট লেমনয়ের সঙ্গে বৈঠক করেন।

ড. মোমেন গত এক দশকে বাংলাদেশের অর্জনসমূহ তুলে ধরে এবং বাংলাদেশে ফ্রান্সের বিনিয়োগের আহ্বান জানান। তিনি ফ্রান্সের সফল বিনিয়োগগুলো সম্পর্কে জানান এবং ফ্রান্সের ব্যবসায়ী প্রতিনিধিদের বাংলাদেশ বিনিয়োগকারীদের যে সুযোগ দেয় তা মূল্যায়নের জন্য বাংলাদেশ সফর করার আমন্ত্রণ জানান।

বৈঠকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী রোহিঙ্গা সংকটের বিষয়টি উত্থাপন করেন এবং রোহিঙ্গাদের রাখাইনে রাজ্যে তাদের স্বদেশে শিগগিরই স্বদেশ প্রত্যাবাসন করার জন্য মিয়ানমারের ওপর চাপ আরোপ করতে ফ্রান্সকে এবং অন্যান্য ইইউ সদস্যদের অনুরোধ করেন।

জেন ব্যাপটিস্ট লেমনয়ে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্য থেকে নির্যাতন থেকে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়ার ক্ষেত্রে বাংলাদেশের মানবিক অবস্থানের জন্য প্রশংসা করেন। তিনি আগামী বছরের গোড়ার দিকে একটি ফরাসি ব্যবসায়ী প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেবেন বলেও জানান।

দ্বিপক্ষীয় বৈঠকে জলবায়ু পরিবর্তনের বিষয়টি নিয়েও আলোচনা করা হয় এবং উভয়ই একমত হন জলবায়ু পরিবর্তনের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় বাংলাদেশ ও ফ্রান্স নিবিড়ভাবে কাজ করবে।

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –
এই বিভাগের আরো খবর