ব্রেকিং:
রংপুর মেডিকেল কলেজে (রমেক) শনিবার ১৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করে নতুন ৬১ জন করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে রংপুরে ১৭ জন, লালমনিরহাটে ১৯ জন, গাইবান্ধায় ১৬ জন, কুড়িগ্রামে ৭ জন, ঠাকুরগাঁওয়ের ১ জন ও বগুড়ার ১ জন রয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রংপুর মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাঃ একেএম নুরুন্নবী লাইজু। রংপুর মেডিকেল কলেজে (রমেক) ১৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষায় নতুন করে ৬০ জন করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে রংপুরে ২৬ জন, কুড়িগ্রামে ১৪ জন, লালমনিরহাটে ১৩ জন ও গাইবান্ধায় ৭ জন। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন রংপুর মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাঃ একেএম নুরুন্নবী লাইজু। গত ২৪ ঘণ্টায়   দেশে করোনাভাইরাসে আরো ২৭ জনের মৃত্যু হয়েছে, এছাড়া নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন দুই হাজার ৮৫১ জন।
  • রোববার   ০৯ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২৪ ১৪২৭

  • || ১৯ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

সর্বশেষ:
মহীয়সী নারী বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯০তম জন্মবার্ষিকী আজ গণতন্ত্রী পার্টির সাবেক সভাপতি, রংপুর পৌরসভার সাবেক মেয়র মোহম্মদ আফজালের সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করলেন নৌ প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী অর্থনীতির সকল ক্ষেত্রে অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে: কৃষিমন্ত্রী কারিগরি শিক্ষায় ভর্তির হার ৫০ শতাংশে উন্নীত করা হবে: শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি আগামী বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ভারতে, ২০২২-এ অস্ট্রেলিয়ায় মুজিববর্ষেই বঙ্গবন্ধুর পলাতক খুনীদের ফিরিয়ে আনা হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে আব্দুল মোমেন
৩৩

বাংলাদেশে মোবাইল টাওয়ার নকশা কেন্দ্র স্থাপন করবে ইডটকো

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৮ জুলাই ২০২০  

আগামীদিনের নেটওয়ার্ক সংযোগ সেবা নিশ্চিত করার মাধ্যমে টেলিযোগাযোগ শিল্পকে এগিয়ে নিতে নিজেদের প্রথম মোবাইল টাওয়ার নকশা কেন্দ্র স্থাপনের ঘোষণা দিল শীর্ষ স্থানীয় আঞ্চলিক ও সমন্বিত টেলিযোগাযোগ অবকাঠামো সেবা কম্পানি ইডটকো গ্রুপ (ইডটকো)। ‘সেন্টার অব ডিজাইন এক্সিলেন্স’  বা কোড নামের এই টাওয়ার নকশা কেন্দ্রটি স্থাপন করা হচ্ছে রাজধানী ঢাকাতেই। 

সংশ্লিষ্টরা জানান, একটি টেকসই টেলিযোগাযোগ শিল্প গড়ে তোলার লক্ষ্যে ইডটকো গ্রুপের দেওয়া প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়নের অংশ হিসেবেই এই পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। ‘কোড’ কে একটি দক্ষ প্রতিষ্ঠানে পরিণত করার লক্ষ্যে বাংলাদেশসহ অন্যান্য দেশে কর্মরত ইডটকোর দক্ষ ও মেধাবী প্রকৌশলীদের অংশগ্রহণে একটি ‘ভার্চ্যুয়াল টিম’ গঠন করা হচ্ছে।

সাশ্রয়ী মূল্যে টেকসই নকশা সমাধান গড়ে তোলার প্রতি জোর দেওয়ার পাশাপাশি প্রত্যেক বাজারের নিজস্ব চাহিদার কথা মাথায় রেখে সমাধান তৈরির লক্ষ্যে গবেষণা ও উন্নয়ন কার্যক্রম পরিচালনা করবে ‘কোড’। কম্পানির জন্য দক্ষ প্রকৌশলী গড়ে তোলা ছাড়াও এই অঞ্চলে গুরুত্বপূর্ণ প্রকৌশল মেধার উন্নয়নে এই কেন্দ্রটি মূখ্য ভূমিকা পালন করবে।  

ইডটকো বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজিং ডিরেক্টর রিকি স্টেইন এ বিষয়ে বলেন, ‘বাংলাদেশ ইডটকোর দ্বিতীয় বৃহত্তম বাজার এবং যে মেধা ও দক্ষতা আমাদের রয়েছে, সেগুলোই আমাদের কার্যক্রম পরিচালনার স্তম্ভ। আমাদের স্থানীয় মেধাবীরা ইডটকোর অন্যান্য বাজারের জন্য অভিনব সব টাওয়ার নকশা তৈরি এবং টেকসই প্রযুক্তিগত সমাধান গড়ে তোলার ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে। তাদের তৈরি অভিনব সমাধানগুলোর মধ্যে রয়েছে ‘স্মার্ট ল্যাম্প পোল’, সম্প্রতি যেটি প্রথমবারের মতো বাংলাদেশে স্থাপন করা হয়েছে। 

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর