সোমবার   ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯   পৌষ ১ ১৪২৬   ১৮ রবিউস সানি ১৪৪১

৬২

বাংলাদেশ সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্ব আইনের খসড়া অনুমোদন

প্রকাশিত: ১১ নভেম্বর ২০১৯  

বাংলাদেশ সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্ব (সংশোধন) আইন, ২০১৯-এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। আইনে সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্ব বা পিপিপি কর্তৃপক্ষের সাংগঠনিক কাঠামো ও প্রস্তাবিত চাকরি প্রবিধানমালায় বিভিন্ন পদে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগের বিধান রাখা হয়েছে। 

সোমবার দুপুরে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদের বৈঠকে এ অনুমোদন দেয়া হয়। বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, পিপিপি কর্তৃপক্ষের সাংগঠনিক কাঠামো ও প্রস্তাবিত চাকরি প্রবিধানমালায় বিভিন্ন পদে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগের বিধান রাখা হয়েছে। পিপিপি কর্তৃপক্ষের সরাসরি নিয়োগ দেয়া কর্মচারীদের চাকরির শর্তাবলী প্রবিধান দিয়ে নির্ধারিত হলেও চুক্তিভিত্তিক নিয়োগের আলাদা বিধানের কথা বলা হয়েছে। ফলে পিপিপি কর্তৃপক্ষ চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ দিতে পারবে। আইনে অন্তর্ভুক্তির ফলে পিপিপিতে সব সময়ই চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ দেয়া হবে। দক্ষ জনবল তৈরি না করে খসড়া আইনে চুক্তিভিত্তিক নিয়োগের বিধান রাখা হয়েছে।

দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ আকৃষ্ট করার মধ্য দিয়ে বেসরকারি খাতের সঙ্গে অংশীদারিত্ব সৃষ্টির লক্ষ্যে সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্ব আইন, ২০১৫ তথা পিপিপি আইন প্রণয়ন করা হয়। জনগণের জীবনমান উন্নয়ন, আর্থ-সামাজিক অগ্রগতি তরান্বিত করা ও অবকাঠামো গড়ে তোলা এর লক্ষ্য। পিপিপি আইনের বাস্তবায়ন পর্যায়ে লব্ধ অভিজ্ঞতার আলোকে এ আইনে কতিপয় সংশোধন আবশ্যক মর্মে প্রতীয়মান হওয়ায় সে অনুযায়ী সংশোধন করা হয়েছে। 

মন্ত্রিসভার বৈঠকে এমপি মইন উদ্দীন খান বাদলের মৃত্যুতে শোক প্রস্তাব গৃহীত হয় বলেও জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব।

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –
এই বিভাগের আরো খবর