শুক্রবার   ২২ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৭ ১৪২৬   ২৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

সর্বশেষ:
সশস্ত্র বাহিনীর বীর শহীদদের প্রতি প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা বিএনপি এখন গুজবের রাজনীতি করে: কাদের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর আশ্বাসে পরিবহন-মালিক শ্রমিকদের ধর্মঘট প্রত্যাহার সশস্ত্র বাহিনী দিবস আজ
৬৩

বিএসএফ কর্তৃক র‍্যাব সদস্যদের মারপিটের গুজব এবং সত্যতা

প্রকাশিত: ১১ অক্টোবর ২০১৯  

গতকাল ভারতীয় সীমান্তে তিন জন র‍্যাব সদস্য এবং তাদেরই দুজন নারী সোর্স, মাদক কারবারিদের ধরার উদ্দেশ্যে, ছদ্মবেশে মাদক কিনতে গেলে, মাদক কারবারি র‍্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে ভারতে পালিয়ে যায়। তাদের পিছু ধাওয়া করে র‍্যাব সদস্যরা ভারতীয় সীমান্তে ঢুকে পড়েন। তখন ওই মাদক কারবারীদের সহযোগী এবং ভারতের ওই এলাকার স্থানীয় অধিবাসীসহ অনেকে র‍্যাব সদস্যদের ধরে মারধর করে, স্থানীয় বিএসএফের হাতে তুলে দেয়। এই খবরটিকে, বিভিন্ন হলুদ মিডিয়া উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে, বিকৃত করে প্রচার করছে। সেসব মিডিয়ায় বলা হচ্ছে “বিএসএফ বাংলাদেশের সীমান্তের অভ্যন্তরে ঢুকে, ৩ র‍্যাব সদস্য এবং দুইজন নারী সদস্যকে অপহরণ করে ভারতে নিয়ে যায়। তারপর তাদের বেধড়ক মারধর করে। পরে বাংলাদেশ থেকে অফিশিয়ালি আলোচনার মাধ্যমে তাদের ফিরিয়ে আনা হয়” – যে খবরটি আদৌ সত্যি নয়।

এখানে সন্দেহের কোন অবকাশ নেই যে, সীমান্তবর্তী এলাকায় দুই দেশের মানুষই মাদক ব্যবসার সাথে কোনো না কোনোভাবে জড়িত। কাজেই র‍্যাব সদস্যরা যখন অপরাধীদের পিছু ধাওয়া করতে যেয়ে, অনিচ্ছাকৃতভাবে ভারতীয় সীমান্তের অভ্যন্তরে ঢুকে পড়েন, তখন স্থানীয় মাদক ব্যবসায়ী এবং তাদের সহযোগীরা এই সুযোগের সদ্ব্যবহার করে। তারা স্থানীয় এলাকাবাসীদের ভুল বুঝিয়ে, সদস্যদের আটক করে বেধড়ক মারধর করে এবং পরে তাদেরকে স্থানীয় বিএসএফের হাতে তুলে দেয়। এসময় তাদের কাছ থেকে ব্যবহৃত একটি পিস্তল, সাতটি বুলেট এবং অন্যান্য সামগ্রী বিএসএফএর কাছে হস্তান্তর করে তারা।

এদিকে খবর পেয়ে কুমিল্লা থেকে র‍্যাব ও বিজিবির পদস্থ কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে, আটকদের ফিরিয়ে আনার প্রক্রিয়া শুরু করেন। এরপর গতকাল বিকেল চারটায় শুরু হয় বিজিবি এবং বিএসএফের পতাকা বৈঠক। ওই বৈঠক শেষে, বিকেল পাঁচটায় তাদের বাংলাদেশের ফেরত দেয়া হয়। বৈঠকে ভারতের ৭৪ বিএসএফের পরিদর্শক আর জে মিঠু ও বাংলাদেশের শংকুচাইল বিওপির কোম্পানি কমান্ডার সুবেদার নুরুল ইসলামসহ বিএসএফ এবং বিজিবির কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে সীমান্তের বিজিবির শংকুচাইল বিওপির কোম্পানি কমান্ডার সুবেদার নুরুল ইসলাম জানান, সীমান্তের ২০৫৯নং পিলারের কাছে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের রহিমপুর-আশাবাড়ি সীমান্ত এলাকা দিয়ে র‌্যাব সদস্যরা মাদক কারবারিদের পিছু নিয়ে, ভুলবশত ভারতে প্রবেশ করলে, ভারতীয়রা তাদের আটক করে বিএসএফের কাছে হস্তান্তর করে।

তাদের ফেরত আনতে দিনভর বিএসএফের সঙ্গে পত্রবিনিময় করার পর, বিকেল ৪টায় বিজিবি-বিএসএফের মধ্যে পতাকা বৈঠক শুরু হয়। পরে বিকেল ৫টার দিকে বিএসএফ ওই পাঁচজনকে হস্তান্তর করে। এসময় তারা খুবই অসুস্থ ছিলেন।

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –
এই বিভাগের আরো খবর