ব্রেকিং:
দেশে করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ৪১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এই নিয়ে দেশে করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেলেন ১ হাজার ৮৮৮ জন। অপরদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় ১৭ হাজার ৮৭৫টি নমুনা পরীক্ষা করে ভাইরাসটির সংক্রমণ পাওয়া গেছে ৩ হাজার ৭৭৫ জনের শরীরে। এ নিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ১ লাখ ৪৯ হাজার ২৫৮ জন। আজ বুধবার রংপুর মেডিকেল কলেজে ১৮৮টি নমুনা পরীক্ষা করে ৪১ জনের করোনা শনাক্ত হয় । নমুনা পরীক্ষা বিবেচনায় শনাক্তের হার ২১.৮০ শতাংশ। নিরাপদ ও কার্যকর ভ্যাকসিন পেয়ে যাব তার নিশ্চয়তা নেই- ফাউচি
  • বৃহস্পতিবার   ০২ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ১৭ ১৪২৭

  • || ১১ জ্বিলকদ ১৪৪১

সর্বশেষ:
রংপুরের পাঁচ নদীর পানি বিপৎসীমার উপরে: প্লাবিত হচ্ছে নতুন এলাকা বিএনপিতে ভাইপন্থীদের নিয়ে বিব্রত হাইকমান্ড শতবর্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ২০ কোটি টাকা খাবারের বিলের খবর ভিত্তিহীন- ঢামেক পরিচালক দেশে জঙ্গিবাদ নিয়ন্ত্রণে- র‌্যাব ডিজি
৭৭

বিডিআর বিদ্রোহ: খালাসপ্রাপ্তদের বিরুদ্ধে আপিল করা হবে

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৮ জানুয়ারি ২০২০  

বহুল আলোচিত বিডিআর বিদ্রোহের মামলায় হাইকোর্টে খালাসপ্রাপ্তদের বিরুদ্ধে আপিল করা হবে বলে জানিয়েছেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। বুধবার ২৯ হাজার ৫৯ পৃষ্ঠার রায় প্রকাশের পর নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান।

অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, ‘আজকে রায়টা সই করে পূর্ণাঙ্গভাবে প্রচার করা হয়েছে। মোট ২৯ হাজার ৫৯ পৃষ্ঠার রায়। তিনজন বিচারপতি ঐক্যমতে পৌঁছেছেন। কিন্তু তিনজনেই আলাদা আলাদা রায় দিয়েছেন।

এ ঘটনায় ২০১৩ সালের ৫ নভেম্বর ১৫২ জন বিডিআর সদস্যকে মৃত্যুদণ্ড দিয়ে রায় দেন বিচারিক আদালত। ওই রায়ের ডেথ রেফারেন্স এবং আপিলের ওপর হাইকোর্ট ২০১৭ সালের ২৬ ও ২৭ নভেম্বর রায় ঘোষণা করেন।

অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, রায়ে ১৩৯ জনের মৃত্যুদণ্ড বহাল রাখেন। এরইমধ্যে তিনজন মারা গেছে। যাবজ্জীবন দেয়া হয়েছে ১৮৫জনকে। তার ভেতরে একজন মৃত্যুবরণ করেছেন। ১৩ বছর সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন ২ জনকে।

১৫৭জনকে ১০ বছর কারাদণ্ড দিয়েছেন, এর ভেতর ২ জন মারা গেছে। ১৩ জনকে সাত বছর, ১৪জনকে ৩ বছর, ১ বছর কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে ২ জনকে। মোট ৫৫২জনকে সাজা এবং ২৮৩জনকে খালাস দেওয়া হয়েছে। মোট মারা গেছেন ১৪ জন।

আপিল করা হবে কি না এ বিষয়ে তিনি বলেন, রায় পর্যালোচনা করে সিদ্ধান্ত নিব। তবে যারা খালাস পেয়েছেন তাদের ব্যাপারে আপিল করা হবে। ফৌজদারি নিয়ম অনুসারে ৩০ দিনের মধ্যে আপিল করা যাবে।

এরমধ্যে একজন মারা গেছেন। বাকি ১২ জনের মধ্যে ৮ জনের সর্বোচ্চ সাজা কমিয়ে যাবজ্জীবন ও অন্য চারজনকে বেকসুর খালাস দেয়া হয়।

আদালত বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর