ব্রেকিং:
ভারতের সাবেক মন্ত্রী ও বিজেপি নেতা যশবন্ত সিং মারা গেছেন। হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে রোববার সকাল ৭টার দিকে দিল্লির আর্মি হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন সাবেক এই সেনা কর্মকর্তা।
  • সোমবার   ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||

  • আশ্বিন ১৩ ১৪২৭

  • || ১০ সফর ১৪৪২

সর্বশেষ:
আজ শেখ হাসিনার ৭৪তম জন্মদিন: রাজপথ থেকে অর্থনীতির কাণ্ডারি বাংলাদেশের পর্যটন পণ্যের সম্ভাবনা অনেক- পর্যটন প্রতিমন্ত্রী কুড়িগ্রামে ধরলার পানি বিপদসীমার ওপরে দিনাজপুরে দেয়ালচাপা পড়ে একই পরিবারের চারজন নিহত গ্রুপিং-লবিংয়ে বিপর্যস্ত বিএনপি
১৯৫

বিষ্ময় সৃষ্টি করেছেন নীলফামারীর প্রতিবন্ধী মিম 

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

ইনজেকশনের সিরিঞ্জ দিয়ে পানির চাপপ্রয়োগ করে ভেকু মেশিন, ড্রোন, কাগজের ফুলসহ অবিকল যন্ত্র তৈরি করে বিষ্ময় সৃষ্টি করেছেন প্রতিবন্ধী মেহেদী হাসান মিম।
মিম নীলফামারীর ডোমার উপজেলার সোনারায় ইউপির হাজীপাড়া গ্রামের দরিদ্র কৃষক এরশাদুল ইসলামের ছেলে । 

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, উপজেলার সোনারায় ইউপির হাজীপাড়া গ্রামের দরিদ্র কৃষক এরশাদুল ইসলামের দ্বিতীয় ছেলে মিম জন্ম থেকেই বাক ও শ্রবণ প্রতিবন্ধী। 

প্রতিবন্ধী থাকা সত্বেও তাকে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করতে পারেনি। প্রতিবন্ধী মিমের লেখাপড়ায় প্রবল আগ্রহ থাকায় দারিদ্রতার মধ্যেও লেখাপড়া চালিয়ে যেতেন তার বাবা এরশাদুল।

এসএসসি পাশ করে বিজনেস ম্যানেজম্যান্ট কলেজে প্রথম বর্ষে ভর্তি হন মিম। দুই বছর ধরে বিভিন্ন যন্ত্রপাতি দেখে হুবহু যন্ত্রপাতি তৈরি করা, কাগজ দিয়ে মনোমুগ্ধকর ফুল, ড্রোন তৈরি করে বিক্রি করে  লেখাপড়ার খরচসহ দরিদ্র বাবাকে সাহায্য করে যাচ্ছেন। 

সদ্য ইনজেকশনের ৮টি সিরিজ দিয়ে পানির চাপ প্রয়োগ করে ভেকু (স্কোভিটার মেশিন) তৈরি করে এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছেন। প্রতিবন্ধী মিম তার নিজের তৈরি ভেকু মেশিন সর্ব সাধারণের জন্যে প্রদর্শন করে বেড়াচ্ছেন।

মিমের বাবা এরশাদুর ইসলাম জানান, ছেলের নতুনত্ব আবিষ্কারে আমি মুগ্ধ। সরকারের দেয়া প্রতিবন্ধী ভাতা,তার আবিষ্কৃত জিনিসপত্র বিক্রি করে কোনো মতে লেখাপড়ার খরচ চালিয়ে যাচ্ছি। ছেলের প্রতিভাকে কাজে লাগাতে সমাজের বিত্তবানসহ সরকারের সহযোগীতা কামনা করছি।  

নীলফামারী বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর