সোমবার   ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৪ ১৪২৬   ১১ রবিউস সানি ১৪৪১

১১

বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে লোকবল সংকট

প্রকাশিত: ১৫ নভেম্বর ২০১৯  

চিকিৎসা সেবার জন্য দিনাজপুরের বীরগঞ্জে সাড়ে তিন লক্ষাধিক মানুষ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের উপর নির্ভরশীল। কিন্ত লোকবল সংকটের করণে স্বাস্থ্য সেবা কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। ফলে প্রয়োজনীয় চিকিৎসাসেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে বীরগঞ্জ উপজেলাবাসী। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ১১টি উনিয়ন ও একটি পৌরসভার মানুষ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটির ওপর নির্ভরশীল। ২০১৬ সালে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি ৩১ শয্যা থেকে ৫০ বিশিষ্ট শয্যায় উন্নীত করা হয়। কিন্তু এখনো সেই ৩১ শয্যার জনবল বহাল আছে। ৯ জন চিকিৎসকের জায়গায় কমরত মাত্র তিনজন কর্মরত থাকলেও একজন মাতৃকালীন ছুটিতে ও ডা: আবুল হাসনাত বদলিজনিত কারণে ঢাকায় কর্মরত আছেন। আবাসিক মেডিকেল অফিসারসহ পাঁচজন জুনিয়র কনসালট্যান্টের মধ্যে গাইনি ও অবস, মেডিসিন, সার্জারি ও অ্যানেসথেসিয়া কনসালট্যান্টের পদ শূন্য আছে। দীর্ঘদিন ধরে ডেন্টাল সার্জন ও মেডিক্যাল টেকনোলোজিষ্ট (ডেন্টাল) পদ দুটি ফাঁকা। এখনো ডেলিভারিসহ মাতৃস্বাস্থ্য নিশ্চিতকরণে চারজন মিডওয়াইফের মধ্যে তিনজন নিয়মিত কাজ করছেন। এ ছাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আলট্রসনোগ্রাম করতে হচ্ছে রোগীদের। বর্তমানে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সর ক্যাশিয়ার,পরিসংখ্যান, কার্মাসিষ্ট ও ষ্টোরকিপারের পদ শূন্য আছে। এখনো নার্সের ২৬ টি পদের মধ্যে কর্মরত ২০ জন।

নিরাপত্তা প্রহরী দুটি পদের মধ্যে দু'জন ও পাচঁজন পরিচ্ছন্নতাকর্মীর মধ্যে তিনজন কর্মরত। দিনাজপুর-আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য মনোরঞ্জন শীল গোপাল বলেন, 'জনবল নিয়োগের জন্য ঊধর্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করা হয়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মোঃ জাহাঙ্গীর করিব জানান, 'জনবল সংকটের সমস্যা সমাধানে হাসপাতালে রোভার স্কাউট ও গার্ল ইন রোভার তারা স্বেচ্ছাশ্রমে অনেকটা কাজে লেগেছে।

অন্যদিকে বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সেবার মান উন্নত হওয়ায় দিন দিন রোগীর সংখ্যা বাড়ার কারণে প্রয়োজনীয় ঔষধ সংকটে পড়েছেন হাসপাতালটি।

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –
এই বিভাগের আরো খবর