ব্রেকিং:
কুড়িগ্রামে জেএমবি কর্তৃক ধর্মান্তরিত মুক্তিযোদ্ধা হোসেন আলী হত্যা মামলার সাক্ষ্য গ্রহন অনুষ্ঠিত দিনাজপুরে বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনায় বেকারী মালিক সমিতির নির্বাচন সম্পন্ন সৈয়দপুরে তিন দিনব্যাপী জাতীয় লাইট ইঞ্জিনিয়ারিং পণ্য ও প্রযুক্তি মেলার শুরু সৈয়দপুর বিমানবন্দরে জোরপূর্বক প্রবেশের চেষ্টাকালে তিন যুবক গ্রেফতার সালমান শাহ পারিবারিক কলহে আত্মহত্যা করেছেন : পিবিআই

মঙ্গলবার   ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ১৩ ১৪২৬   ০১ রজব ১৪৪১

সর্বশেষ:
পিলখানা বিদ্রোহ আর হত্যাযজ্ঞের ১১ বছর আজ ডিজিএফআইয়ের নতুন ডিজি মেজর জেনারেল সাইফুল আলম লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলায় সালাম না দেয়ায় সরকারি এক কর্মকর্তাকে পিটিয়ে আহত করেছেন সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান বিশ্বজয়ী আকবর আলী ও জাতীয় টেবিল টেনিস চ্যাম্পিয়ন হৃদয়কে সম্মানী ভাতা দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন রসিক মেয়র সীমান্তে চোরাচালান রোধে বিজিবিকে সজাগ থাকার আহ্বান রাষ্ট্রপতির
১০১

বুড়িমারী স্থলবন্দরের রাস্তার বেহাল দশা- ভোগান্তিতে সাধারন মানুষ

নীলফামারি বার্তা

প্রকাশিত: ২৮ আগস্ট ২০১৯  

কথায় আছে, একটা ছবি অনেক কিছু বলে দেয়। ওপরের ছবিটিই বলে দেয়- এই একটি মাত্র রাস্তার কারণে ব্যাপক সমস্যা এবং দুর্ভোগের কথা। শুধু আমদানি এবং রপ্তানিকারকরাই নন, বরং এলাকার সাধারণ জনগণও, লালমনিরহাট জেলার পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী স্থলবন্দরের অধীনে, এই তিন কিলোমিটার ভাঙাচোরা রাস্তার কারণে প্রচন্ডভাবে দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন।

এখানে এ রাস্তাটির কারণে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন ধরনের দুর্ঘটনার শিকার হন অনেকে। কারণ এখানে আমদানি এবং রপ্তানি পণ্যবাহী হেভি লোডেড ট্রাকগুলো বন্দরের এই ভাঙ্গা রাস্তা দিয়েই যাতায়াত করে থাকে। আর বৃষ্টি হলে তো কোন কথাই নেই! এই রাস্তার অবস্থা আরো করুণ এবং বেহাল হয়ে পড়ে। সাধারণ এলাকাবাসীর জন্য তখন এই রাস্তা হয়ে দাঁড়ায় একটি জলজ্যান্ত মৃত্যুফাঁদ!

এ বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে, বুড়িমারী স্থল বন্দরের ডেপুটি ডিরেক্টর মনিরুল ইসলাম আমাদের জানান, আমি বিভিন্ন সময়ে রোডস এন্ড হাইওয়ে ডিপার্টমেন্ট অথরিটিকে জরুরী ভিত্তিতে পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য এবং এই রাস্তাটি মেরামত করার জন্য অনেকবার চিঠি লিখেছি কিন্তু এখন পর্যন্ত তাদের পক্ষ থেকে কোন ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। বুড়িমারী স্থল বন্দরের ক্লিয়ারিং এবং ফরওয়ার্ডিং এজেন্ট এবং পাটগ্রাম উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, জনাব রুহুল আমিন বাবুল বলেন, “ট্রাক ড্রাইভাররা এই রাস্তা দিয়ে মালামাল পরিবহনের জন্য অতিরিক্ত চার্জ আদায় করেন। যে কারণে, ব্যবসায়ীদেরকে যেকোনো ধরনের পণ্য পরিবহনের জন্য অতিরিক্ত টাকা গুনতে হয় এবং এতে করে সেই পণ্যটির দাম বেড়ে যায়। যেটা কোনোভাবেই আমাদের কাম্য নয়।“

বুড়িমারী বাজারের একজন ব্যবসায়ী জনাব নুর ইসলাম বলেন, “গত বছরেই রোডস এন্ড হাইওয়ে ডিপার্টমেন্ট প্রায় ৮০ লক্ষ টাকা খরচ করে, এই বুড়িমারী স্থলবন্দরের রাস্তাটি মেরামত করে দেন। কিন্তু অত্যন্ত নিম্নমানের কাজ হওয়ার কারণে, মাত্র এক বছরের মধ্যেই এই রাস্তার আবার বেহাল দশা হয়েছে।“

জনাব শমসের আলী প্রধান, যিনি বুড়িমারী স্থলবন্দরের একজন স্থানীয় এলাকাবাসী, তিনি বলেন, “গাড়িঘোড়া তো দূরের কথা, হাঁটাপথেও এই রাস্তায় লোকজন চলাচল করতে পারে না বললেই চলে। আর তাছাড়া বৃষ্টি হলে এই অবস্থা আরও দুর্বিষহ হয়ে যায়।“

বুড়িমারী স্থল বন্দর এর একজন ট্রাক ড্রাইভার, সাইফুল ইসলাম আমাদের জানান, এই রাস্তায় ট্রাক নিয়ে চলাচল করতে গেলে, অনেক সময়ই ট্রাক স্থায়ী ক্ষতির সম্মুখীন হয়, যেটা তাদেরকে আবার টাকা খরচ করে মেরামত করে নিতে হয়। এজন্য তারা চার্জ বেশি করে নেন এই রাস্তায় চলাচল করতে গেলে।

এ ব্যাপারে বাংলাদেশ রোডস এন্ড হাইওয়ে ডিপার্টমেন্টের একজন সাব-ডিভিশনাল ইঞ্জিনিয়ার, জনাব বখতিয়ার আলম কে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি জানান, এই রাস্তাটি মেরামতের জন্য সরকারের পক্ষ থেকে ২৮.৯০ কোটি ৩৯ হাজার টাকা এসেছে এবং সেটা কনট্রাক্টরকে দিয়ে দেয়া হয়েছে এবং খুব শিগগিরই বুড়িমারী স্থল বন্দর থেকে পাটগ্রাম উপজেলা হেডকোয়ার্টার পর্যন্ত ১০ কিলোমিটার রাস্তা মেরামতের কাজ শুরু হবে। এর আগের বছরের কাজের কথা জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন, “আমি এখানে নতুন এসেছি কাজেই আগের মেরামত বা কাজের সম্পর্কে আমি আসলে কিছু বলতে পারব না।“