ব্রেকিং:
ট্রেন দুর্ঘটনায় তূর্ণা নিশীথার চালক, সহকারী চালক ও পরিচালককে বরখাস্ত ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলায় আন্তঃনগর উদয়ন এক্সপ্রেসে তুর্ণা নীশিতার ধাক্কায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৬ জনে দাঁড়িয়েছে।

বুধবার   ১৩ নভেম্বর ২০১৯   কার্তিক ২৮ ১৪২৬   ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

সর্বশেষ:
ট্রেন দুর্ঘটনার ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন, ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তদন্ত প্রতিবেদন দেয়ার নির্দেশ ঘূর্ণিঝড় বুলবুলে কৃষিতে ক্ষতি ২৬৩ কোটি টাকা ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহতদের পরিবার প্রতি ১ লাখ টাকা এবং আহতদের ১০ হাজার টাকা করে সাহায্যের ঘোষণা রেলপথ মন্ত্রীর ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবায় ভয়াবহ ট্রেন দুর্ঘটনায় হতাহতের ঘটনায় গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী স্বেচ্ছাসেবকলীগ ঢাকা মহানগর উত্তরের সম্মেলন আজ রাষ্ট্রপতি নেপাল যাচ্ছেন আজ জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠান আগামী ৮ ডিসেম্বর টি-টোয়েন্টি র‌্যাংকিংয়ে ৩৮তম স্থানে বাংলাদেশের মোহাম্মদ নাঈম
৫০০

বেগুনের উপকারিতা

নিউজ ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯ ডিসেম্বর ২০১৮  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

বেগুন একটি বহুল জনপ্রিয় সবজি। বাংলাদেশে আলুর পরই বেগুনের নাম উচ্চারিত হয়। এমনকি এটি বাসার ছাদে লাগিয়েও ফল পাওয়া যায়। বারান্দায় টবে লাগালেও বেগুন ফল দেয়। বেগুনের বৈজ্ঞানিক নাম Solanum Melongeana । পৃথিবীতে নানা জাতের বেগুন রয়েছে। তারমধ্যে খটখটিয়া, ইসলামপুরী, লাফফা, উত্তরা, নয়নকাজল, কাজলা বাংলাদেশে বিশেষভাবে চাষ হতে দেখা যায়।

জাতভেদে গাছ ও বেগুনের মধ্যে প্রকৃতি, আকৃতি ও রংগত পার্থক্য লক্ষ্য করা যায়। বেগুন ভর্তা, ভাজি, সবজি এবং মাছ-মাংসের তরকারি, সবভাবেই খাওয়া যায়। ওজন কমানোর খাদ্য তালিকায় এই সবজিটিকে রাখতে দেখা যায় না অথচ ১০০ গ্রাম বেগুনে রয়েছে মাত্র ২৫ ক্যালরি। এছাড়াও বেগুনে রয়েছে নানা পুষ্টিগুণ। নিম্নে বেগুনের গুরুত্বপূর্ণ পুষ্টিগুণের একটি তালিকা দেয়া হল:

বেগুন রক্তে সুগার ও গ্লুকোজের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারে। তাই ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণেও বেগুনের জুড়ি নেই। বেগুন কোলেস্টরলের মাত্রা কমাতে সাহায্য করে। শরীরে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণেও এটি বিশেষ ভূমিকা রাখে। এতে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম রয়েছে যা শরীরে পানিশূন্যতা দূর করে রক্ত চলাচল স্বাভাবিক রাখে। এটি মস্তিষ্কের কোষগুলোকে ক্ষতির হাত থেকে বাঁচায়।

আঁশযুক্ত খাবার হওয়ায় এটি পাকস্থলীর পরিপাক ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। পুরো হজম প্রক্রিয়াকেই এটি স্বাভাবিক রাখে। ক্লোন ক্যান্সারের ঝুঁকিও কমাতে সহায়তা করে বেগুন। প্রচুর জলীয় পদার্থ থাকতে বেগুন স্বাস্থ্যের জন্য তো ভালোই শরীরের ত্বকের জন্যও বেশ উপকারি। বেগুনে এমন সব ভিটামিন ও খনিজ পদার্থ আছে যা ত্বকের মসৃণতা এবং উজ্জ্বলতা বাড়াতে সাহায্য করে।

এছাড়াও বেগুনের নানা ঔষধি গুণ রয়েছে। সন্ধ্যেবেলা বেগুন পুড়িয়ে মধুর সঙ্গে খেলে রাতে ভালো ঘুম হয়। অনিদ্রা কাটে। বেগুন একবারে পুড়িয়ে তার ছাই বা ভস্ম গায়ে লাগালে চুলকানি বা চর্মরোগ ভালো হয়। কচি ও শাসালো বেগুন খেলে জ্বর ভালো হয়। কচি বেগুন পুড়িয়ে গুড় দিয়ে খেলে ম্যালেরিয়াজাত লিভার সমস্যা ভালো হয়। তবে উচ্চ এলার্জির রোগীদের জন্য বেগুন ঝুঁকিপূর্ণ বলে ডাক্তাররা অভিমত দেন।

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –