রোববার   ২৬ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ১২ ১৪২৬   ৩০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

সর্বশেষ:
করোনা ভাইরাস: ভারতে পর্যবেক্ষণে ১১ জন, বাংলাদেশে সতর্কতা আগামীকাল চালু হচ্ছে অত্যাধুনিক ‘জামালপুর এক্সপ্রেস’ জানুয়ারি মাসের শেষে টানা তিন দিন বৃষ্টির সম্ভাবনা। চীনে করোনা ভাইরাসে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৪১। ভারত-বাংলাদেশ বাণিজ্যে প্রভাব ফেলবেনা পেঁয়াজ ও সীমান্ত ইস্যু- বাণিজ্যমন্ত্রী নির্বাচন থেকে সরে যাওয়ার নানামুখী পথ খুঁজছে বিএনপি- কাদের আমরা বন্ধুত্ব ধরে রাখতে চাই: আ’লীগকে উদ্দেশ্য করে মশিউর রহমান রাঙ্গা।
৫৮২

বেগুনের উপকারিতা

নীলফামারি বার্তা

প্রকাশিত: ৯ ডিসেম্বর ২০১৮  

বেগুন একটি বহুল জনপ্রিয় সবজি। বাংলাদেশে আলুর পরই বেগুনের নাম উচ্চারিত হয়। এমনকি এটি বাসার ছাদে লাগিয়েও ফল পাওয়া যায়। বারান্দায় টবে লাগালেও বেগুন ফল দেয়। বেগুনের বৈজ্ঞানিক নাম Solanum Melongeana । পৃথিবীতে নানা জাতের বেগুন রয়েছে। তারমধ্যে খটখটিয়া, ইসলামপুরী, লাফফা, উত্তরা, নয়নকাজল, কাজলা বাংলাদেশে বিশেষভাবে চাষ হতে দেখা যায়।

জাতভেদে গাছ ও বেগুনের মধ্যে প্রকৃতি, আকৃতি ও রংগত পার্থক্য লক্ষ্য করা যায়। বেগুন ভর্তা, ভাজি, সবজি এবং মাছ-মাংসের তরকারি, সবভাবেই খাওয়া যায়। ওজন কমানোর খাদ্য তালিকায় এই সবজিটিকে রাখতে দেখা যায় না অথচ ১০০ গ্রাম বেগুনে রয়েছে মাত্র ২৫ ক্যালরি। এছাড়াও বেগুনে রয়েছে নানা পুষ্টিগুণ। নিম্নে বেগুনের গুরুত্বপূর্ণ পুষ্টিগুণের একটি তালিকা দেয়া হল:

বেগুন রক্তে সুগার ও গ্লুকোজের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে রাখতে পারে। তাই ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণেও বেগুনের জুড়ি নেই। বেগুন কোলেস্টরলের মাত্রা কমাতে সাহায্য করে। শরীরে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণেও এটি বিশেষ ভূমিকা রাখে। এতে প্রচুর পরিমাণে পটাশিয়াম রয়েছে যা শরীরে পানিশূন্যতা দূর করে রক্ত চলাচল স্বাভাবিক রাখে। এটি মস্তিষ্কের কোষগুলোকে ক্ষতির হাত থেকে বাঁচায়।

আঁশযুক্ত খাবার হওয়ায় এটি পাকস্থলীর পরিপাক ক্ষমতা বৃদ্ধি করে। পুরো হজম প্রক্রিয়াকেই এটি স্বাভাবিক রাখে। ক্লোন ক্যান্সারের ঝুঁকিও কমাতে সহায়তা করে বেগুন। প্রচুর জলীয় পদার্থ থাকতে বেগুন স্বাস্থ্যের জন্য তো ভালোই শরীরের ত্বকের জন্যও বেশ উপকারি। বেগুনে এমন সব ভিটামিন ও খনিজ পদার্থ আছে যা ত্বকের মসৃণতা এবং উজ্জ্বলতা বাড়াতে সাহায্য করে।

এছাড়াও বেগুনের নানা ঔষধি গুণ রয়েছে। সন্ধ্যেবেলা বেগুন পুড়িয়ে মধুর সঙ্গে খেলে রাতে ভালো ঘুম হয়। অনিদ্রা কাটে। বেগুন একবারে পুড়িয়ে তার ছাই বা ভস্ম গায়ে লাগালে চুলকানি বা চর্মরোগ ভালো হয়। কচি ও শাসালো বেগুন খেলে জ্বর ভালো হয়। কচি বেগুন পুড়িয়ে গুড় দিয়ে খেলে ম্যালেরিয়াজাত লিভার সমস্যা ভালো হয়। তবে উচ্চ এলার্জির রোগীদের জন্য বেগুন ঝুঁকিপূর্ণ বলে ডাক্তাররা অভিমত দেন।