ব্রেকিং:
অর্থনীতিতে যৌথভাবে নোবেল পুরস্কার জিতেছেন - ভারতের অভিজিত ব্যানার্জি, ইস্থার ডাফলো এবং মাইকেল ক্রেমার জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার কারণে ২৫ অক্টোবর থেকে ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত সব কোচিং সেন্টার বন্ধের নির্দেশ দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি দেশের আটটি উপজেলা পরিষদ, দু’টি পৌরসভা ও ১৪টি ইউনিয়ন পরিষদে ভোটগ্রহণ চলছে

সোমবার   ১৪ অক্টোবর ২০১৯   আশ্বিন ২৯ ১৪২৬   ১৪ সফর ১৪৪১

সর্বশেষ:
যারা বিএনপি জামায়াতকে দলে ঢুকিয়েছেন আর যারা ঢুকে পড়েছে তাদের খুজে ঝেটিয়ে বের করে দিতে হবে - রংপুরে জাহাঙ্গীর কবীর নানক ঠাকুরগাঁওয়ে ঘুষের টাকাসহ আঞ্চলিক পাসপোর্ট দফতরের অফিস সহায়ককে আটক করেছে দুদক রাজধানীতে পুলিশের ওপর বোমা হামলার ঘটনায় জড়িত নব্য জেএমবির দুই সদস্য গ্রেফতার শিক্ষার্থীদের দাবি পূরণে কাজ করছি: বুয়েট ভিসি জাতীয় ক্রিকেট লিগের প্রথম রাউন্ড শেষে ড্র করেছে ঢাকা ও রাজশাহী আগামী মঙ্গলবার চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লড়াইয়ে মাঠে নামবে বাংলাদেশ ও ভারতের অনুর্ধ্ব-১৫ কিশোরীরা।

ব্যান্ড পার্টি নিয়ে মনোনয়ন জমা দিলেন মিশা-জায়েদ প্যানেল

প্রকাশিত: ৩ অক্টোবর ২০১৯  

আগামী ২৫ অক্টোবর বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন। বৃহস্পতিবার সম্ভাব্য প্রার্থীরা মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন। এদিন বিকেলে ব্যান্ড পার্টি নিয়ে মনোনয়ন পত্র জমা দেন মিশা সওদাগর ও জায়েদ খান প্যানেল।

মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার সময় মিশা-জায়েদের সঙ্গে ছিলেন ডিপজল, আলেক জেন্ডার বো, ইমন, জয় চৌধুরী, জ্যাকি আলমগীর, অঞ্জনা, রোজিনাসহ একঝাঁক শিল্পীরা। এছাড়াও প্রযোজক সমিতির সভাপতি খোরশেদ আলম খসরুও এ সময় তাদের সঙ্গে ছিলেন।

মনোনয়ন পত্র জমার দেয়ার আগে ব্যান্ড পার্টি নিয়ে এফডিসিতে শো ডাউন করে মিশা-জায়েদ প্যানেল। এ সময় মিশা সওদাগর বলেন, শিল্পীদের নির্বাচন হবে আনন্দঘন। আমাদের নির্বাচনও শিল্পীসত্তার বহিঃপ্রকাশ থাকবে। তার ধারাবাহিকতায় ব্যান্ড পার্টি নিয়ে মনোনয়ন জমা দিচ্ছি আমরা। আশা করি সকল শিল্পীরা আমাদের প্যানেলের সঙ্গে থাকবে।  

মনোনয়ন পত্র জমা দিচ্ছেন মিশা-জায়েদ প্যানেল

মনোনয়ন পত্র জমা দিচ্ছেন মিশা-জায়েদ প্যানেল

মিশা সওদাগরের কথার সঙ্গে একমত পোষন করে জায়েদ খান বলেন, আমরা নেতৃত্বে আসার পরই শিল্পী সমিতিতে আনন্দের সমিতি বানানোর চেষ্টা করেছি। তাদের উন্নয়নে যতটা সম্ভব কাজ করেছি। সবাইকে নিয়েই মনোনয়ন জমা দিয়েছি। আমাদের মাথার উপর সিনিয়র সব শিল্পীদরে আর্শিবাদ আছে। আমাদের প্যানেলে ডিপজল, রুবেল, অঞ্জনা ও রোজিনার মতো তারকা শিল্পীরা আছেন। আশা করি এবারো আমরা জয়ী হবো।

এদিকে, নির্বাচনের আগেই মিশা-জায়েদ প্যানেলের জয় জয়কার দেখা যাচ্ছে। কারণ নির্বাচনের ২১ পদের বিপরীতে ৬০ টি মনোনয়ন বিক্রি হলেও জমা পড়েছে মাত্র ২৬টি। এরমধ্যে ২১ টি মিশা-জায়েদ প্যানেলের। স্বতন্ত্র সভাপতি প্রার্থী পদে মৌসুমী, সহ-সভাপতি পদে নানা শাহ, সাধারণ সম্পাদক পদে ইলিয়াস কোবরা, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক পদে সাঙ্কু পাঞ্জা, কোষাধ্যক্ষ পদে সাইফুল ইসলাম স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে পাঁচটি মনোনয়নপত্র জমা পড়েছে। ফলে স্বাভাবিকভাবে প্রার্থী না থাকায় মিশা-জায়েদ প্যানেলের একাধিক প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ী হতে যাচ্ছেন।

প্রসঙ্গত, শুরু থেকে মিশা-জায়েদ প্যানেলের বিপরীতে মৌসুমী-ডিএ তায়েব প্যানেল নির্বাচন করবে শোনা যাচ্ছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ডিএ তায়েবও মনোনয়ন জমা দেননি। এ কারণে মৌসুমী একা স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়ে লড়ছেন। 

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –