• সোমবার   ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||

  • আশ্বিন ৬ ১৪২৭

  • || ০৩ সফর ১৪৪২

সর্বশেষ:
আওয়ামী লীগ জনগণের দল এবং জনগণই দলটির শক্তি: রেলমন্ত্রী রংপুরে প্রেম ঘটিত কারণে দুই বোনকে হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার-১ ১৮০০ মাদ্রাসায় ভবন নির্মাণে ৬ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ দিয়েছে সরকার জাতিসংঘের ১৭ তরুণ নেতার তালিকায় বাংলাদেশি জাহিন পরিবেশের বিপর্যয় রোধে মরিশাসের পাশে থাকবে বাংলাদেশ সরকার
৩৪

ব্রিটেনের রানির স্মৃতি বিজড়িত সেই সেলুন সংরক্ষণের উদ্যোগ 

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৫ সেপ্টেম্বর ২০২০  

অনেক বিশ্ববিখ্যাত ব্যক্তিদের স্মৃতির সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে বাংলাদেশ রেলওয়ের প্রেসিডেন্ট সেলুন। এতে চড়ে ব্রিটেনের রানিসহ পদস্থ কর্মকর্তারা ভারতের বিভিন্ন গন্তব্যে ভ্রমণ করেছেন বলে জনশ্রুতি রয়েছে। ১৯২৭ সালে ব্রিটেনে নির্মিত ওই বিলাসবহুল সেলুনটি দেশের বৃহত্তম সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানার ক্যারেজ শপে রাখা হয়েছে। বিখ্যাত ব্যক্তিদের স্মৃতি বিজড়িত এ সেলুনটিকে জাদুঘরে সংরক্ষণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। 


রেলওয়ে সূত্র জানায়, ব্রিটিশ আমলে বিলাসবহুল ওই প্রেসিডেন্ট সেলুনটি ভারতে আনা হয়। এর লোগোতে লেখা রয়েছে, সেলুনটি ১৯২৭ সালে ব্রিটেনের একটি কারখানায় তৈরি। মূলত ব্রিটেনের রানি ভারতের বিভিন্ন গন্তব্যে ভ্রমণের জন্য ওই সেলুনটি এখানে আনেন। দেশ বিভাগের পর ১৯৪৮ সালের ২৮ জুন তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তান রেলওয়েকে (পিইআর) ওই সেলুনটি উপহার হিসেবে দেয় ব্রিটিশ সরকার। এর নম্বর ১২৬৫। অনুরূপ একটি সেলুন ভারতীয় রেলওয়েকেও দেয়া হয়েছে।

সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানার ক্যারেজ শপের ইনচার্জ (এসএসএই) মো. নিজামুল হক জানান, স্বাধীনতার পরে দেশের অনেক রাষ্ট্রপ্রধান ওই প্রেসিডেন্ট সেলুনে ভ্রমণ করেছেন। পরে ১৯৮১ সালে তা অকেজো হয়ে পড়লে সৈয়দপুর কারখানায় আনা হয়।

সেলুনটির উল্লেখযোগ্য দিক হলো- এটি সম্পূর্ণ কাঠের তৈরি। এর অভ্যন্তরে রয়েছে প্রেসিডেন্টের শয়নকক্ষ, তার স্টাফদের জন্য পৃথক দুটি কক্ষ, রান্নাঘর ও এর কর্মচারীদের জন্য পৃথক একটি কক্ষ। আরো আছে বিলাসবহুল বাথরুম।

তিনি আরো জানান, এতে আছে হাই কমোড, বেসিন, বাথট্যাব ও শাওয়ার। এছাড়া আছে সভা করার জন্য একটি কনফারেন্স রুম। সাধারণ কোচে ৮টি চাকা থাকলেও সেলুনটিতে রয়েছে ১২টি। এর আসবাবপত্র, বৈদ্যুতিক ফিটিংস সবই আধুনিক এবং এখনো কার্যকর।

পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের প্রধান যন্ত্র প্রকৌশলী (সিএমই) মুহাম্মদ কুদরত-ই-খুদা জানান, বর্তমানে প্রেসিডেন্ট সেলুনটির প্রয়োজনীয় মেরামত হচ্ছে। আমি এটা পরিদর্শন করেছি। সেলুনটি রেলওয়ে ঐতিহ্যের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। আগামী প্রজন্মের জন্য তা অনেক বেশি শিক্ষণীয়। এসব কথা ভেবেই সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানায় রেলওয়ে জাদুঘরে তা স্থাপনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

নীলফামারী বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর