ব্রেকিং:
শহীদদের নামে রংপুরের সড়কগুলোর নামকরণের দাবি উত্তরের ফসলি জমি গিলে খাচ্ছে তামাক আজ ২০ ফেব্রুয়ারি ‘বিশ্ব সামাজিক ন্যায়বিচার দিবস’ মহান শহীদ দিবস উপলক্ষে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এলাকাকে পাঁচটি সেক্টরে বিভক্ত করে তিন ধাপের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছে র‌্যাব নারী বিশ্বকাপ ওয়ার্ম-আপ ম্যাচ: পাকিস্তানকে ৫ রানে হারালো বাংলাদেশ

বৃহস্পতিবার   ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০   ফাল্গুন ৮ ১৪২৬   ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪১

সর্বশেষ:
আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উপলক্ষে শুক্রবার অমর একুশে গ্রন্থমেলার দ্বার খুলবে সকাল ৮টায় সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচন ১১ ও ১২ মার্চ দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে দুই ডাকাত নিহত লালমনিরহটের হাতীবান্ধা উপজেলায় ষাটোর্ধ্ব এক বৃদ্ধা মাকে মারধর করে ঘর থেকে বের করে দিয়েছেন ছেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অমর একুশে ফেব্রুয়ারি ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের প্রাক্কালে ২০ ব্যক্তি এবং এক প্রতিষ্ঠানের মাঝে ‘একুশে পদক-২০২০’ প্রদান করেছে
৩৪

বড়পুকুরিয়ায় ছয় ঘণ্টা কয়লা উত্তোলন বন্ধ

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৫ নভেম্বর ২০১৯  

দিনাজপুরের পার্বতীপুরে বড়পুকুরিয়া কয়লাখনির শ্রমিকরা কর্মবিরতি পালন করেছেন। সোমবার দুপুরে ১২ টা থেকে সন্ধ্যা ৬ টা পর্যন্ত নানা অভিযোগ এনে কর্মবিরতি পালন করেন তারা।

অভিযোগগুলো হচ্ছে- ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এক্সএমসি ও সিএমসি কর্মরত শ্রমিকদের ওপর হয়রানি, জরিমানা ও ছাঁটাই।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বড়পুকুরিয়া কয়লা খনির শ্রমিক কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি মো. রবিউল ইসলাম জানান, দীর্ঘ আন্দোলনের পর চলতি বছরের ১৪ জুলাই চীনা ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এক্সএমসি ও সিএমসি’র বোর্ড রুমে ত্রি-পক্ষীয় চুক্তি সম্পাদিত হয়। এরইমধ্যে ওই চুক্তির শর্ত লঙ্ঘন করায় দুই শ্রমিককে ছাঁটাই করেছে প্রতিষ্ঠানটি। তারা হলেন-  ফুলবাড়ির বারোকোনা গ্রামের শাহিন ও মহেশপুর গ্রামের আলতাব হোসেন। এছাড়া দশ শ্রমিককে ১০হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়। তারা হলেন- পার্বতীপুরের তেলিপাড়া গ্রামের আরিফুল ইসলাম, আশরাফুল হক, পাতরাপাড়া গ্রামের মেরাজ উদ্দীন, দলাইকোটা গ্রামের রবিউল ইসলাম, আফতাবুর রহমান, শেরপুর গ্রামের মাহমুদুন নবী, ঢেরেরহাটের উজ্জল রায়, দূর্গাপুরের গঙ্গা চন্দ্র রায় ও ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের নুর ইসলাম। তাছাড়া আরো শতাধিক শ্রমিককে ৫০০ থেকে ৮০০ টাকা করে জরিমানা করা হয়।

শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আবু সুফিয়ান অভিযোগ করেন, ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান শ্রমিকদের সঙ্গে সম্পাদিত চুক্তি বার বার লঙ্ঘন করে শ্রমিক অসন্তোষ সৃষ্টি করে। আমরা এর স্থায়ী সমাধান চাই। ছয় ঘণ্টা কর্মবিরতি পর বৈঠকে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান সমস্যাগুলোর সমাধানের আশ্বাস দেয়। এতে কর্মবিরতি প্রত্যাহার করা হয়েছে।