ব্রেকিং:
দেশে করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ৩৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ৩ হাজার ৪৭১ জন। এছাড়া নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন দুই হাজার ৯৯৬ জন। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৬৩ হাজার ৫০৩ জন।
  • মঙ্গলবার   ১১ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২৭ ১৪২৭

  • || ২১ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

সর্বশেষ:
শোক দিবসে দেশের সকল মসজিদে বিশেষ দোয়া ‘আধুনিক পদ্ধতি অনুসরণ করে শিশুদের পাঠদান করতে হবে’ লেবাননে পৌঁছেছে বাংলাদেশ সরকারের মানবিক সহায়তা ‘স্বাস্থ্যখাতের দুর্নীতি রোধে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে সরকার’ প্রণব মুখার্জির দ্রুত আরোগ্য কামনা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর
১১০

মালয়েশিয়ায় অবৈধ শ্রমিক ফেরাতে বিমানের ১৬টি বিশেষ ফ্লাইট

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৫ ডিসেম্বর ২০১৯  

মালয়েশিয়া সরকার ঘোষিত সাধারণ ক্ষমার আওতায় বাংলাদেশে ফিরে আসছেন সেখানকার অবৈধ শ্রমিকেরা। এসব শ্রমিকদের দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য চলতি মাসে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ঢাকা টু মালয়েশিয়া রুটে তাদের নিয়মিত ফ্লাইটের অতিরিক্ত হিসেবে ১৬টি বিশেষ ফ্লাইট পরিচালনা করবে। বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

বৃহস্পতিবার গণমাধ্যমে পাঠানো বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

এতে বলা হয়, প্রবাসী শ্রমিকদের ফিরিয়ে আনার জন্য বোয়িং ৭৩৭ ও ৭৮৭-৮ ড্রিমলাইনার দিয়ে এসব ফ্লাইট পরিচালনা করা হবে। মালয়েশিয়ান সরকার ঘোষিত সাধারণ ক্ষমার আওতায় টিকেট সঙ্কটের কারণে আটকে পড়ায় তাদের সহায়তা করতে ও সুস্থভাবে বাড়ি ফিরিয়ে আনার জন্য এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ে প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী বলেন, জাতীয় পতাকাবাহী  সংস্থা হিসেবে দেশের মানুষের প্রতি বিমানের সবসময়ই দায়বদ্ধতা রয়েছে। বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়  এবং বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস সেই দায়বদ্ধতা থেকে এই বিশেষ ফ্লাইট পরিচালনা করছে।

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মহিবুল হক বলেন, প্রবাসী ভাইদের সাহায্য করতে পেরে আমরা আনন্দিত। দেশের মানুষের স্বার্থ ও প্রয়োজনে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় এবং এর অধীনস্থ দফতর সংস্থাগুলো সবসময়ই প্রস্তুত।

উল্লেখ্য যে, মালয়েশিয়ান সরকার সে দেশে বসবাসরত বাংলাদেশি অবৈধ শ্রমিকদের দেশে ফিরে আসার সুযোগ প্রদান করলেও টিকেট সঙ্কটের কারণে সেখানে অনেক শ্রমিক আটকে আছেন। সময় মত ফ্লাইট না পাওয়ায় তারা এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে দেশে ফিরতে গিয়ে বিপাকে পড়েছেন। মালয়েশিয়ান সরকার ঘোষিত এ সুযোগ এ বছরের ৩১ ডিসেম্বর শেষ হবে।