ব্রেকিং:
কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী বাণিজ্যের প্রসার ও রাজস্ব আহরণে শুল্কায়ন ব্যবস্থাপনাকে আরও সহজতর করতে হবে: রংপুরে নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী

সোমবার   ২৭ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ১৩ ১৪২৬   ০১ জমাদিউস সানি ১৪৪১

সর্বশেষ:
করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে ১১ দেশে: বাংলাদেশে সতর্কতা জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির নির্বাচন আগামীকাল। বরগুনার বহুল আলোচিত রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় স্ত্রী আয়শা সিদ্দিকা মিন্নির জামিন বাতিলের শুনানির দিন পিছিয়ে আগামী ২ ফেব্রুয়ারি নির্ধারণ করেছে আদালত। ওয়াসার আধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর শেখ রাসেল পানি শোধনাগার প্রকল্প উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উপজেলা পর্যায়ে ৩২৯টি টেকনিক্যাল স্কুল ও কলেজ স্থাপন একনেক সভায় অনুমোদন হওয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে শুভেচ্ছা র‌্যালি করেছে ঠাকুরগাঁওয়ের কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠনের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মচারীরা। অর্থনৈতিকভাবে অভূতপূর্ব সাফল্য অর্জন করেছে বাংলাদেশ- প্রধানমন্ত্রী। বাণিজ্যের প্রসার ও রাজস্ব আহরণে শুল্কায়ন ব্যবস্থাপনাকে আরও সহজতর করতে হবে: রংপুরে নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী তিনদিন পর দুঃখ প্রকাশ করে দুইজনের মরদেহ ফেরত দিয়েছে বিএসএফ পাকিস্তান সিরিজের শেষ ম্যাচে জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওপর আস্থাশীল ৮৬ শতাংশ মানুষ ভারতের ‘পদ্মভূষণ’ ও ‘পদ্মশ্রী’ পদক পেলেন দুই বাংলাদেশি কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী
৪৭৬

যার নামে ‘কক্সবাজার’

নীলফামারি বার্তা

প্রকাশিত: ১৫ নভেম্বর ২০১৮  

বহু বছর আগের কথা, বহু মানে ৩০ বা ৫০ বছর নয়, প্রায় সাড়ে ৫শ বছর আগের কথা বলি। ঝাউবন, বালুর নরম বিছানা, নীল জলরাশি আর শোঁ শোঁ গর্জনের মনোমুগ্ধকর সমুদ্র সৈকতের এক এলাকা। নির্জন সেই এলাকাটি ‘প্যানোয়া’ নামেই পরিচিত স্থানীয় গুটিকয়েক মানুষের কাছে। আরাকান রাজ্যের কাছাকাছি হওয়ায় নামটাও তাদেরই দেয়া। প্যানোয়া শব্দের অর্থ ‘হলুদ ফুল’। কারণ আশপাশের এলাকা হলুদ ফুলে ঝকমক করতো। এরপর আরো প্রায় এক শতক পর ওই এলাকায় আনাগোণা শুরু হয় মোগলদের। নতুন নামকরণ হয় ‘পালংকী’। এখনো যদি কারো চিনতে সমস্যা হয় তো বলতে হবে, যে অঞ্চলের কথা বলছি তার নাম কক্সবাজার। যেখানে রয়েছে বিশ্বের বৃহত্তম সমুদ্র সৈকত।

এরপর বাংলায় পড়লো ইংরেজদের পা। অবশ্য পড়লো না বলে পা দিলো বলাটাই যুক্তিযুক্ত। ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানির একট রেজিমেন্ট আসন গাড়লো পালংকীতে। রেজিমেন্টের দায়িত্বে ক্যাপ্টেন হিরাম কক্স। আশপাশের নির্জনতা দুর করতে বা আরো পরিস্কার করে বলতে গেলে, এলাকায় লোক সমাগম বাড়াতেই বিশাল এক বাজার তৈরির আদেশ দিলেন "কক্স সাহেব"। লোক মুখে সেই বাজারের নাম করণ হলো ‘কক্স সাহেবের বাজার’ নামে। ধীরে ধীরে এলাকার পালংকী নামটাই বিলুপ্ত হয়ে গেল রয়ে গেল কক্সবাজার।

এ জেলার ওপর দিয়ে বয়ে গেছে মাতামুহুরী, বাঁকখালী, রেজু, কুহেলিয়া ও নাফ নদী। বনজ সম্পদ, মৎস্য, শুটকি মাছ, শামুক, ঝিনুক ও সিলিকা সমৃদ্ধ বালুর জন্য কক্সবাজার বরাবরই ভ্রমণবিলাসী পর্যটকদের কাছে অন্যতম আকর্ষণ।

কক্সবাজারে অন্যতম দর্শনীয় স্থান সমুদ্র সৈকত, হিমছড়ি, মাহাসিংদোগ্রী বৌদ্ধ মন্দিরের ঐতিহাসিক পটভূমি, রামকোট তীর্থধাম, শ্রী শ্রী রামকূট বৌদ্ধ বিহার, মৎস্য অবতরণ ও পাইকারী মৎস্য বাজার, বরইতলী মৎস্য খামার, পাতাবাড়ী বৌদ্ধ বিহার, বড়ঘোপ সমুদ্র সৈকত, রাখাইন পাড়া, চৌফলদণ্ডি-খুরুশকুল সংযোগ সেতু, গোলাপ বাগান, বার্মিজ মার্কেট, মাতামুহুরী নদী, মগনামা ঘাট, ইনানী সি বিচ, কানা রাজার সুড়ঙ্গ, আদিনাথ মন্দির, অগ্গ মেধা বৌদ্ধ ক্যাং, রাডার স্টেশন, চৌধুরী পাড়া মসজিদ বা আজগবি মসজিদ, রাখাইন সম্প্রদায়ের প্যাগোড়া (জাদী), ছেংখাইব ক্যাং, মাথিনের কূপ, মহেশখালী আদিনাথশিব মন্দিরের পাশে অষ্টভূজা মূর্তি।