বৃহস্পতিবার   ১২ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৮ ১৪২৬   ১৪ রবিউস সানি ১৪৪১

৭৮১

যেভাবে করবেন সকালের নাস্তা

প্রকাশিত: ১৩ নভেম্বর ২০১৮  

ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

মানুষের জীবনে খাবারের প্রয়োজনীয়তা অপরীসীম। দিনের মধ্যে সকালের নাস্তাকে দিনের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ  খাবার বলা হয়। এমন কিছু মানুষ আছেন যারা নানা অজুহাতে সকালের নাশতায় ফাঁকি দেন। 
এক গবেষণা প্রতিবেদনে দেখা গেছে, সকালের নাশতা বেশি পরিমাণে ক্যালরি পোড়াতে সাহায্য করে ও সারাদিন ধরে রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণেও তা সাহায্য করে। প্রতিদিন সকালে স্বাস্থ্যকর ও ভারী নাস্তা খেলে মস্তিষ্ক পুরোদিনের জন্য তৈরি হয়ে যায় পাশাপাশি সারাদিন শক্তি পাওয়া যায়। সুস্থভাবে জীবন-যাপনে সময় হয়ে উঠবে উপভোগ্যময়- সকালের নাস্তায় কোন খাবারগুলো খাওয়া উচিত-    

ডিম 
ডিমকে বলা হয় ‘সুপারফুড’, কারণ ডিমে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ও মিনারেলস রয়েছে। প্রোটিনের সব চাইতে বড় উৎস হচ্ছে ডিম। এতে ক্যালোরির পরিমাণও বেশ কম থাকে। এই জন্য সকালের নাস্তায় অবশ্যই প্রত্যেকের ডিম খাওয়া উচিত। একজন পূর্ণবয়স্ক মানুষ হিসেবে সকালে ২ টি ডিম খেতে পারে। 


আটার তৈরি রুটি 
সকালের নাস্তার জন্য বেশ ভালো একটি খাবার হচ্ছে আটার তৈরি রুটি। বিশেষ করে ভারী খাবার যাদের বেশি পছন্দ। সকালে পাউরুটি অথবা ভাত খাবার চাইতে আটার রুটি সবজি ভাজি বা ডিম অথবা ঝোলের তরকারি কিংবা কলা দিয়ে খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য ভালো।


বিভিন্ন রকমের ফলমূল
সকালের নাস্তার জন্য সর্বোত্তম খাবার হচ্ছে ফলমূল। ফল্মূলের মধ্যে কলা, আপেল, কমলা, স্ট্রবেরি, আঙুর ইত্যাদি ধরণের ফলমূল বা মৌসুমি ফলমূল দিয়ে সকালের নাস্তা করা সব চাইতে ভালো। প্রায়শ ২ টি কলা, ১ টি আপেল, ১ টি কমলা, ২/৩ টি স্ট্রবেরি এভাবে শুধুমাত্র ফল দিয়ে নাস্তা করা সকালের জন্য ভালো।


শষ্যজাতীয় খাবার
শষ্যজাতীয় খাবার খাওয়ার অভ্যাস খুবই প্রয়োজন। শষ্যজাতীয় খাবারে থাকা আঁশ হৃদপিণ্ড ভালো রাখে পাশাপাশি এটি ক্ষুধা কমায়। তবে খাবারের ক্যালরির পরিমাণ জানা জরুরি। 


কেন সকালের নাস্তা অবশ্যই খাবেন 
ভালো একটা দিন শুরুর জন্য এবং শরীরে প্রয়োজনীয় শক্তির জন্য সকালের নাস্তা অতি গুরুত্বপূর্ণ। পাশাপাশি সকালের নাস্তা ওজন নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। সকালে নাস্তা না করা হলে শারীরিক এবং মানসিক দূর্বলতা অনুভূত হতে পারে। তাই দেখা যায়, সকালে না খেলে দুপুরে বেশি ক্ষুদা লাগার কারণে দুপুরে খাওয়ার পরিমাণ বেরে যেতে পারে। তাই ওজন বাড়ার সম্ভাবনাও বেশি থাকে। তাই সকালে পুষ্টিকর খাবার খেলে এই সম্ভাবনা কমে আসবে।

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –