ব্রেকিং:
দেশে করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ৪৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ২ হাজার ৩৫২ জন। এছাড়া নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ২ হাজার ৬৬৬ জন। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ৮৩ হাজার ৭৯৫ জন।
  • রোববার   ১২ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ২৮ ১৪২৭

  • || ২১ জ্বিলকদ ১৪৪১

সর্বশেষ:
মুজিববর্ষ উপলক্ষে এক কোটি গাছ রোপণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী করোনার ভুয়া রিপোর্টের ঘটনায় ডা. সাবরিনা গ্রেফতার সরকারি উদ্যোগে সারাদেশে কোরবানির পশুর ডিজিটাল হাট বর্তমান সরকার কৃষি খাতকে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে- কৃষিমন্ত্রী ই-নথি ব্যবস্থাপনায় এবারো শীর্ষে শিল্প মন্ত্রণালয়
৪৯১

যেসব খাবার বিভিন্ন রোগের প্রতিষেধক

নীলফামারি বার্তা

প্রকাশিত: ১৭ নভেম্বর ২০১৮  

নিজেকে সুস্থ রাখতে প্রতিনিয়তই আমরা বিভিন্ন ধরনের খাবার খেয়ে থাকি। কিন্তু কোন খাবারটি কোন রোগের প্রতিষেধক তা আমরা সঠিকভাবে জানিনা। প্রতিদিনের স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভাস আমাদেরকে কঠিন রোগ থেকে দূরে রাখতে পারে। বিভিন্ন ধরনের রোগ ও সমস্যা থেকে দূরে থাকতে প্রতিদিন স্বল্প পরিমাণে হলেও এসব খাবার খাওয়া উচিত-

১.‌ মুখে দুর্গন্ধজনিত সমস্যা থাকলে কাঁচা পেয়ারা খাওয়ার অভ্যাস করতে পারেন।

২. জন্ডিস জাতীয় সমস্যা থেকে বাঁচতে ডালিম বেশ কার্যকরী।

৩. হরমোনজনিত সমস্যা হলে বেশি করে পাকা পেয়ারা খেতে হবে।

৪. কিডনিতে পাথর জাতীয় সমস্যা থেকে দূরে থাকতে পাকা আম খাওয়ার অভ্যাস করতে হবে।

৫. মূত্রজনিত সমস্যায় মিষ্টি কুমড়া খাবেন।

৬. কৃমি থেকে দূরে থাকতে আনারস অনেক কার্যকরী।

 

1.যেসব খাবার বিভিন্ন রোগের প্রতিষেধক

৭. নিয়মিত টমেটো খেলে প্রোস্টেট ক্যান্সার প্রতিরোধ করা যায়।

৮. হারক্ষয় রোধ করতে নিয়মিত আঙ্গুর খাওয়া সর্বোত্তম প্রতিকার।

৯. রুক্ষ শুষ্ক চুল ঝলমলে নরম সিল্কি করতে প্রতিনিয়ত শসা খাবেন।

১০. যাদের ডায়াবেটিসের সমস্যা রয়েছে তারা এর প্রতিকার হিসেবে কালোজাম খেতে পারেন।

১১. অন্যান্য খাবারের পাশাপাশি পেঁয়াজ খেলে শ্বাস-প্রশ্বাসজনিত সমস্যা থেকে দূরে রাখে।

১২. যদি শরীরে পাইলসের সমস্যা থেকে থাকে তবে পেঁপে এক্ষেত্রে ব্যাপক ভূমিকা পালন করে।

১৩. নিউমোনিয়া থেকে দূরে থাকতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি জাতীয় খাবার যেমন কমলা লেবু ইত্যাদি খাবেন।

এবার তাহলে জেনে নিন বিভিন্ন খাবারের জানা-অজানা কিছু উপকারিতা-

 

2.যেসব খাবার বিভিন্ন রোগের প্রতিষেধক

*আম- এই ফলে রয়েছে ভিটামিন বি কমপ্লেক্স, যা শরীরে স্নায়ু গুলোতে অক্সিজেনের সরবরাহ বাড়িয়ে দেয়।অনিদ্রা জনিত সমস্যা দূর করে ঘুমাতে সাহায্য করে। শরীর সতেজ রাখে‌।

*গাজর- গাজর দৃষ্টিশক্তি বৃদ্ধি করে। নিয়মিত গাজর খেলে ক্যান্সারের ঝুঁকি অনেকাংশে কমে যায়। গাজরের ভিটামিন এ এবং অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ত্বকের রোদে পোড়া ভাব দূর করে।

*কাঁচ কলা- নিয়মিত কাজ কলা খেলে শরীর খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমে। কাঁচকলা পেট ঠান্ডা রাখে ও রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে।রক্তে শর্করার পরিমাণ বজায় রাখে এবং পটাশিয়ামের ঘাটতি দূর করে। শরীরের পুষ্টি জনিত ঘাটতিও দূর করতে কাঁচ কলার ভূমিকা অনেক।

 

3.যেসব খাবার বিভিন্ন রোগের প্রতিষেধক

*শসা- দেহে পানিশূন্যতা দূর করে শসা। দ্রুত হজম করতে এবং ওজন কমাতে সাহায্য করে। অতিরিক্ত কোলেষ্টেরলের মাত্রা কমায়, ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। ত্বক ও চুল সতেজ রাখে।

*টমেটো- রক্ত স্বল্পতা ও রক্ত সমস্যা জনিত সমাধানে টমেটো কার্যকর ভূমিকা পালন করে। হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি কমায় টমেটো।ক্যান্সার প্রতিরোধে টমেটো সাহায্য করে।

*কাঁচা মরিচ- প্রতিদিন একটি কাঁচা মরিচ শরীরে রক্ত জমাট বাঁধার ঝুঁকি কমায়। কাঁচামরিচ শরীরের মেটাবলিজম বাড়িয়ে ক্যালোরি পোড়াতে সাহায্য করে। কাঁচা মরিচ হৃদপিণ্ড ভালো রাখে।

*জাম- রক্ত পরিশোধনের সাহায্য করে। ত্বকের স্বাস্থ্য ভালো রাখে। ব্রণ দূর করতে সাহায্য করে। হজম প্রক্রিয়া স্বাভাবিক রাখতে সাহায্য করে।

*রসুন- রসুনের রয়েছে নানা গুণ যা বলেও শেষ করা যায় না। দুধের সঙ্গে কয়েক কোয়া রসুন মিশিয়ে খেলে শরীরের ওজন বাড়তে সাহায্য করে। সরিষার তেলের সঙ্গে রসুনের কোয়া মিশিয়ে মালিশ করলে অনেক উপকার পাওয়া যায়। অনেকদিন যাবৎ হালকা জ্বর থাকলে ঘি এর সঙ্গে রসুন মিশিয়ে খেলে জ্বর সেরে যায়। সর্দি কাশি সারতেও রসুন বেশ কার্যকরী।

*কমলা লেবু- ক্যান্সারের জীবাণু ধ্বংস করতে সাহায্য করে। ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। হার্ট সুস্থ রাখে।

কমলালেবু দৃষ্টিশক্তি বাড়াতে সাহায্য করে।

স্বাস্থ্য বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর