সোমবার   ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৪ ১৪২৬   ১১ রবিউস সানি ১৪৪১

৬৮

রংপুরের আ`লীগ কর্মীরা দীর্ঘ দিন পর নৌকা প্রতীক পেয়ে উচ্ছ্বসিত

প্রকাশিত: ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

রংপুর -৩ আসনের উপ-নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পেয়েছেন সাবেক ছাত্র নেতা ও রংপুর জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাড: রেজাউল করিম রাজু। দীর্ঘ দিন পর নৌকা প্রতীক পেয়ে উচ্ছ্বসিত রংপুর অঞ্চলের আওয়ামীলীগ নেতা-কর্মীরা।

১৯৮৬ সালের জাতীয় নির্বাচন থেকে রংপুর সদর আর কখনও জাতীয় পার্টির হাতছাড়া হয়নি। সর্বশেষ দুই নির্বাচনে এ আসন থেকে এমপি হন হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। ২০১৪ ও ২০১৮ সালের এ দুই নির্বাচনে এরশাদের বিপরীতে কোনো প্রার্থী দেয়নি মহাজোটে তাদের শরিক আওয়ামী লীগ।

এদিকে এরশাদের মৃত্যুতে রংপুর-৩ আসনের উপ-নির্বাচন নিয়েও অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ব রয়েছে জাপায়। দলীয় চাপে কয়েকজন জাপা নেতা নির্বাচন থেকে সরে গেলেও তাদের ভিতরে চাপা ক্ষোভ কাজ করছে। এসব জাপা নেতারা দলীয় প্রার্থী সাদ এর পক্ষে কতটা আন্তরিকতা নিয়ে কাজ করবেন সেটা নিয়ে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। এছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন নিয়েছেন এরশাদের ভাতিজা আসিফ শাহারিয়ার। জাপার এই দ্বন্দ্বকে কাজে লাগিয়ে সুবিধা আদায় করে নিতে চায় আওয়ামীলীগ।

শুধু আ.লীগ কর্মীরাই নয়, সাধারণ মানুষের ভিতরেও লক্ষ্য করা গেছে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা। নগরীর স্টেশন রোডের ব্যবসায়ী মনিরুল ইসলাম জানান, এতো দিন আমরা বাধ্য হয়ে লাঙ্গলে ভোট দিয়েছি। লাঙ্গলে ভোট দিয়ে রংপুরের কোন কাজ হয়নি। এবার আমরা পরিবর্তন চাই। সরকার দলীয় এমপি নির্বাচিত করে রংপুরের উন্নয়ন বুঝে নিতে চাই। 

মহানগর স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা মনির হোসেন বলেন,রংপুরের আ’লীগের রাজনীতির এক উজ্জ্বল নক্ষত্র রাজু ভাই। তিনি শিক্ষা-দীক্ষায়, রাজনীতিতে সব দিক থেকেই অন্য প্রার্থীর চেয়ে এগিয়ে। সাধারন মানুষ নৌকা প্রতীকে ভোট দিতে চায়। এবার সেই সুযোগ এসেছে।

আ’লীগ নেতা মফিজার রহমান বলেন, সদর আসন আর জাতীয় পার্টিকে ছাড় দেওয়া হবে না। দীর্ঘদিন থেকে রংপুর সদর আসনটি এরশাদের জাপা দখল করে রেখেছিলেন। আর এবার আ’লীগ থেকে একজন যোগ্য প্রার্থী দেওয়ায়  এই আসনে নৌকার বিজয় হবে বলে আমাদের বিশ্বাস।

রংপুর মহানগর যুবলীগের সভাপতি সিরাজুম মনির বাসার বলেন,মার্জিত আচরণ ও সৃজনশীল চিন্তা এবং প্রবল ব্যক্তিত্বের কারণে দলীয় নেতা -কর্মী ও সাধারণ মানুষের মধ্যে পরিচ্ছন্ন নেতা হিসেবে রাজু ভাইয়ের খ্যাতি আছে। সাধারন মানুষ আর সস্তা আবেগ নিয়ে থাকতে চায় না। এবার সময় হয়েছে পরিবর্তনের। এবার নৌকার বিজয় সু-নিশ্চিত।

আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী এ্যাড: রেজাউল করিম রাজু বলেন, রংপুরের উন্নয়নে জাতীয় পার্টি কোন কাজ করেনি। সাধারন মানুষের দাবী ছিলো নৌকা প্রতীকে প্রার্থী দেওয়ার। জননেত্রী আমাকে সেই প্রতীক দিয়েছেন। আমি রংপুরের মানুষের আশা আকাঙ্ক্ষার প্রতিফলন দেখাতে চাই।

তিনি আরও বলেন, একটি পক্ষ বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে যে, রংপুরে জাপা প্রার্থীকে সমর্থন দিবে আ.লীগ। এটা এক ধরনের গুজব ছাড়া আর কিছু না। আমরা শেষ পর্যন্ত নির্বাচনে থাকবো। নৌকা থাকবে এবং বিজয়ী হবে।

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –
এই বিভাগের আরো খবর