ব্রেকিং:
দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরো ২৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে পাঁচ হাজার ৭ জনে। এছাড়া, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ১ হাজার ৫৫৭ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। দিনাজপুরে গত ২৪ ঘন্টায় ৯ জন ব্যক্তি করোনা ভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৩৩২৮ জনে। মঙ্গলবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দিনাজপুরের সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ আব্দুল কুদ্দুছ।
  • বুধবার   ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ ||

  • আশ্বিন ৭ ১৪২৭

  • || ০৫ সফর ১৪৪২

সর্বশেষ:
রংপুরের বহুল আলোচিত দুই বোন হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ খালিদ মাহমুদ চৌধুরীর রোগমুক্তি কামনায় বীরগঞ্জে দোয়া মাহফিল নীলফামারীতে কাঁটাতার কেটে চিলাহাটি-হলদিবাড়ি জুড়ছে রেল লাইন কুড়িগ্রামে হত্যা মামলায় একজনের মৃত্যুদন্ড র‌্যাবের অভিযানে নীলফামারীতে ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার
১৪

রংপুরে মানুষ কেনাবেচার হাট!

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০  

আধুনিক সভ্য যুগে দাসপ্রথা বিলুপ্ত। কিন্তু এখনো মানুষ কেনাবেচা হয়! আগে মনিবরা সবসময়ের জন্য মানুষকে কিনে অধীনস্ত করতো। এখন মাত্র একদিনের জন্য টাকার বিনিময়ে মানুষের শ্রম কেনাবেচা হয়। আর নিজেদের শ্রম একদিনের জন্য বিক্রি করতে আসেন শ্রমজীবী মানুষরা। আর নিজেদের বিক্রি করা আয়েই জ্বলে তাদের রান্নাঘরের চুলা।

দেশের উত্তরের অন্যতম বৃহৎ ও প্রাচীন শহর রংপুরের প্রাণকেন্দ্র শাপলাচত্বরে বসে মানুষের শ্রম কেনাবেচার হাট। ভোর বেলা থেকে হাটে আসেন শ্রমজীবীরা। চত্বরকে ঘিরে আলাদা আলাদা দল বেঁধে বসা মানুষগুলো ক্রেতার অপেক্ষায় থাকেন। ক্রেতা এসে পছন্দ অনুযায়ী দরদাম করে তাদের নিয়ে যান।

হাটে ক্রেতারা এসে প্রথমে পছন্দ মতো লোক, সংখ্যা বাছাই করেন। পরে দাম বলে নির্দিষ্ট একটা কাজ বা পুরো দিনের জন্য নিজেকে বিক্রি করেন শ্রমজীবী মানুষ। আর এভাবে শ্রম বিক্রি হলেই পরিবার চালানোর অর্থ জোটে। 

হাটে নানা কাজে দক্ষ লোকেরা আসেন। এর মধ্যে রয়েছে বাসাবাড়ির নির্মাণের জন্য রাজমিস্ত্রি, কাঠ মিস্ত্রি, ইট-পাথর-বালু পরিবহনের শ্রমিক, ক্ষেতমজুর থেকে বাগানের মালি।

শ্রমিকদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, এখানে সব ধরনের কাজের মানুষ পাওয়া যায়। আগে সপ্তাহের প্রায় দিনই কাজ মিলতো। কিন্তু করোনাভাইরাস আসার পর থেকে কাজ পাওয়া মুশকিল হচ্ছে।

তাদের ভাষ্য, কর্মক্ষম থাকায় জনপ্রতিনিধিরা সরকারি সহায়তা বা প্রণোদনার জন্য তাদের নাম তুলে না। তাই দুর্যোগে কাজ হারিয়ে অনেক কষ্টে তাদের জীবন কাটছে।

নগর জুড়ে বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর