ব্রেকিং:
মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলায় গাইবান্ধার পাঁচ রাজাকারকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল

মঙ্গলবার   ১৫ অক্টোবর ২০১৯   আশ্বিন ৩০ ১৪২৬   ১৫ সফর ১৪৪১

সর্বশেষ:
সরকারি সফরে আজ কাতার যাচ্ছেন সেনাবাহিনী প্রধান ব্যবসায়ীরা ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি বন্ধ হওয়ার বিষয়টিকে পুঁজি করে দামে কারসাজি করছেন বলে অভিযোগ করেছেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুন্সী সুন্দরবনে র‍্যাবের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে আমিনুর বাহিনীর প্রধান আমিনুরসহ চারজন নিহত হয়েছে ইউক্রেনের বিপক্ষে রোনালদোর পর্তুগালের হার কাতার বিশ্বকাপ ও এশিয়ান কাপ ফুটবল বাছাইয়ের ‘ই’ গ্রুপের তৃতীয় ম্যাচে আজ ভারতের মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ।
৪৭

রংপুর-৩ উপ-নির্বাচন: বিক্ষোভ, সড়ক অবরোধ আ.লীগ নেতাকর্মীদের

প্রকাশিত: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

আগামী ৫ অক্টোবর রংপুর সদর -৩ আসনের উপ-নির্বাচন। আর এ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে, নির্বাচনী উত্তাপ ছড়িয়ে পড়েছিল পুরো রংপুরে। নানা বিশ্লেষণ চলছিল। এবারও রাজত্ব টিকিয়ে রাখতে মরিয়া হয়ে ছিল জাতীয় পার্টি। তবে সেই রাজত্ব ছিনিয়ে নিতে ও জাতীয় পার্টির দুর্গে হানা দিতে প্রস্তুত ছিল নৌকার প্রার্থী ও জেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাড: রেজাউল করিম রাজু। তাকে নৌকা দেওয়ায় এই উপ-নির্বাচনকে কেন্দ্র করে যেমন নেতা-কর্মীরাও উজ্জ্বীবিত হয়ে উঠেছিল, তেমনি নতুন এক সমীকরণ সৃষ্টি হয়েছিল। কিন্তু সব কিছুর অবসান ঘটিয়ে এই আসনে মহাজোট হওয়ায়, এই আসনের নৌকার প্রার্থী আজ প্রত্যাহার পত্র জমা দিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন। তবে হতাশা আর ক্ষোভে এ ফেটে পড়েছিল শত শত আওয়ামী লীগ নেতা কর্মী।

সোমবার বিকাল ৩টা বাজার কিছু আগে থেকে হাজার খানেক নেতা-কর্মী, রংপুর নির্বাচন অফিস ঢোকার মূল গেটে জড়ো হয়। এরপর তারা যখন জানতে পারে, তাদের নৌকার প্রার্থী প্রত্যাহার পত্র জমা দিতে আসবেন, তখন রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন নেতা-কর্মীরা। এক পর্যায়ে রাস্তায় শুয়ে পড়েন শত শত ছাত্রলীগ -যুবলীগের নেতা কর্মীরা। তবে এত সবের মধ্য দিয়েও বিকাল ৪:৩৭ মিনিটে নির্বাচন অফিসে গিয়ে প্রত্যাহার পত্র জমা দিয়ে নির্বাচন থেকে সরে আসেন রেজাউল করিম রাজু। এসময় তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন জেলা আ’লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মমতাজ আহমেদ, মহানগর আ’লীগের সভাপতি সাফিয়ার রহমান, সাধারণ সম্পাদক তুষার কান্তি মণ্ডল, জেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মেতাহার হোসেন মওলা, দপ্তর সম্পাদক তৌহিদুল ইসলাম টুটুল, কোষাধ্যক্ষ আবুল কাশেম সহ জেলা ও মহানগর আ’লীগের নেতৃবৃন্দ।

পরে নেতা-কর্মীদের নানা ভাবে বুঝিয়ে ও নেত্রীর আদেশ মেনে নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করেন রেজাউল করিম রাজু। পরে সাংবাদিকদের সামনে কান্না জড়িত কণ্ঠে রংপুরে’র মানুষকে কৃতজ্ঞতা জানিয়ে রেজাউল করিম রাজু বলেন, “অপশক্তি আজকে বাংলাদেশের রাজনীতি নিয়ন্ত্রণ করছে। বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা রাজনীতিবিদদের হাতে রাজনীতি ফেরত দেওয়ার চেষ্টা করছেন। আমাদের নেত্রীকে সহযোগিতা করতে হবে।“

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –
এই বিভাগের আরো খবর