• বুধবার   ২৭ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১২ ১৪২৭

  • || ০৪ শাওয়াল ১৪৪১

সর্বশেষ:
নিলুফার মঞ্জুরের মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রীর শোক যে কোনো সময় ‘দ্বিতীয় ঝড়’ শুরু হবে: ডাব্লিউএইচও বাংলাদেশের তৈরী ৬৫ লাখ পিপিই গেল যুক্তরাষ্ট্রে করোনা: ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় রোগীদের খাবার পাঠালেন জেলা প্রশাসক সরকারি নির্দেশনায় ঈদের নামাজ আদায়: মুসুল্লীদের ধন্যবাদ
৯৬

রাসূল (সা.) এর বর্ণনায় কোয়ারেন্টাইনে থাকার ফজিলত

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ৩ এপ্রিল ২০২০  

প্রাণঘাতী নভেল করোনাভাইরাসের প্রকোপ ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বজুড়ে। গত ডিসেম্বরের শেষ দিকে চীনের উহানে প্রথম শনাক্ত হওয়া করোনাভাইরাস এখন বৈশ্বিক মহামারি। বিশ্বের প্রায় ২০৪টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে এ ভাইরাসটি। করোনাসহ যে কোনো সংক্রামক ভাইরাস থেকে নিরাপদ থাকতে কোয়ারেন্টাইন বা ঘরে অবস্থান করার বিকল্প নেই। 

আজ থেকে দেড় হাজার বছর আগে বিশ্বনবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম মহামারি সম্পর্কে যেমন নিজ নিজ অঞ্চলে অবস্থানের কথা বলেছেন তেমনি নিজ অঞ্চলে অবস্থান করার বিশাল ফজিলতের বর্ণনাও দিয়েছেন।

সাহাবি হজরত আব্দুর রহমান ইবনে আউফ (রা.) খলিফা হজরত ওমর রাদিয়াল্লাহু আনহুকে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের একটি হাদিস শোনালেন। আর তাহলো, ‘তোমরা যখন কোনো এলাকায় মহামারি প্লেগের বিস্তারের কথা শুনো, তখন সেখানে প্রবেশ করো না। আর যদি কোনো এলাকায় এর প্রাদুর্ভাব নেমে আসে, আর তোমরা সেখানে থাকো, তাহলে সেখান থেকে বেরিয়েও যেও না।’ (বুখারী)।

যারা মহামারির সময় কোয়ারেন্টাইন তথা ঘরে অবস্থান করবে তাদের জন্য রয়েছে মহা সুসংবাদ! হাদিসের বিখ্যাত গ্রন্থ মুসনাদে আহমদ এর বর্ণনায় এসেছে-

রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, ‘কোনো বান্দা যদি মহামারি আক্রান্ত এলাকায় অবস্থান করে। আর নিজ বাড়িতে ধৈর্য সহকারে সওয়াবের নিয়তে এ বিশ্বাস নিয়ে (ঘরে) অবস্থান করে যে, আল্লাহ তায়ালা তাকদিরে যা চূড়ান্ত করে রেখেছেন, তার বাইরে কোনো কিছু তাকে আক্রান্ত করবে না, তাহলে তার জন্য রয়েছে একজন শহিদের সমান সাওয়াব।’ (মুসনাদে আহমদ)।

বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ রাষ্ট্রীয় আইন জারি করে প্রশাসনিকভাবে তা বাস্তবায়ন করানোর সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। যাতে মানুষ কোনোভাবেই ঘরের বাইরে না আসে। আর তাহলো বিশ্বনবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের হাদিসেরই বাস্তবায়ন।

করোনাভাইরাসের এ সময়ে ঘর থেকে বের হয়ে নিজেদের ধ্বংসের মুখে ঠেলা দেয়া কোনো ঈমানদার ব্যক্তির কাজ হতে পারে না। তাই হাদিসের অনুসরণ মোতাবেক প্রত্যেক মানুষের জীবন পরিচালনা করা জরুরি।

মহান রাব্বুল আলামিন আল্লাহ তায়ালা মুসলিম উম্মাহকে কোয়ারেন্টাইন তথা ঘরে অবস্থান করে রাসূল (সা.) হাদিসের ওপর যথাযথ আমল করার তাওফিক দান করুন। প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস থেকে মুক্ত থাকার তাওফিক দান করুন। আমিন।

ধর্ম বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর