ব্রেকিং:
দেশে করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ৪৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ২ হাজার ৩৫২ জন। এছাড়া নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ২ হাজার ৬৬৬ জন। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ৮৩ হাজার ৭৯৫ জন।
  • সোমবার   ১৩ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ২৯ ১৪২৭

  • || ২২ জ্বিলকদ ১৪৪১

সর্বশেষ:
রংপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় করোনা আক্রান্ত মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যু অনুমতি দেয়া পাঁচ বেসরকারি হাসপাতাল ও ডায়াগনস্টিক সেন্টারের কোভিড-১৯ পরীক্ষা স্থগিত রাখার নির্দেশ দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর ২০২০ সালে নিবন্ধিত হজযাত্রীদের জন্য ৮ নির্দেশনা দিয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয় বন্যার সার্বিক পরিস্থিতি সার্বক্ষণিকভাবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা খোজ খবর নিচ্ছেন-পানিসম্পদ উপমন্ত্রী মানবদেহে কোভিড ভ্যাকসিনের সফল প্রয়োগের দাবি রাশিয়ার!
১২১

রিকশাচালকের সততায় হারানো ২০ লাখ টাকা ফিরে পেলেন ব্যবসায়ী

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১৫ নভেম্বর ২০১৯  

বগুড়ায় রিকশাচালকের সততায় হারানোর চার ঘণ্টা পর ২০ লাখ টাকা ফিরে পেয়েছেন এক সার ব্যবসায়ী।

শুক্রবার সকালে বগুড়ার এসপি আলী আশরাফ ভূঞার কার্যালয়ে রিকশাচালক লাল মিয়া টাকাসহ ব্যাগটি ব্যবসায়ী রাজীব প্রসাদকে ফেরত দেন। এ সময় লাল মিয়াকে নতুন রিকশা কেনার জন্য ৫০ হাজার টাকা দেন রাজীব। লাল মিয়া বলেন, মানুষের টাকার ওপর লোভ নেই তাই টাকা ফেরত দেয়ার চেষ্টা করেছি।

রাজীব প্রসাদ জানান, তিনি রনবাঘা বাজারে সারের ব্যবসা করেন। জেলা শহরের জলেশ্বরীতলা এলাকায় ভাড়া বাড়িতে থাকেন। শুক্রবার সকালে জলেশ্বরীতলা কালীবাড়ি মোড় এলাকা থেকে একটি রিকশায় উঠে সাতমাথায় রাজশাহী রুটের বাস ধরার জন্য নামেন তিনি। তার সঙ্গে ছিল তিনটি ব্যাগ। কিন্তু ভুলবশত এর মধ্যে ২০ লাখ টাকা ভর্তি ব্যাগটি তিনি রিকশায় ফেলে যান। ১০ মিনিট পর ব্যাগটির কথা মনে হলে সাতমাথা এলাকায় রিকশাচালককে খুঁজতে থাকেন। এ সময় তিনি বিষয়টি সদর পুলিশকে জানান। পুলিশ সাতমাথা এলাকার সিসিটিভি ফুটেজ দেখে রিকশাচালককে শনাক্ত করেন।

লাল মিয়া জানান, যাত্রীকে নামিয়ে তিনি একটি ব্যাগ দেখতে পান। ভিড়ের মধ্যে ওই যাত্রীকে আর খুঁজে পাননি। পরে ব্যাগ খুলে টাকা দেখে ভয় পেয়ে যান। টাকা ভর্তি ব্যাগ বাড়িতে রেখে মালিককে খুঁজতে থাকেন। একপর্যায়ে পুলিশ তার সঙ্গে যোগাযোগ করলে রেখে আসা টাকার ব্যাগটি ফেরত দেন। এ সময় লাল মিয়াকে সঙ্গে নিয়ে এসপির কার্যালয়ে গিয়ে ব্যবসায়ী রাজীব প্রসাদের কাছে পুরো টাকা বুঝিয়ে দেয়া হয়।

এসপি আলী আশরাফ ভূঞা জানান, রিকশাচালকের সততা ছিল। ইচ্ছে করলে তিনি টাকা নিয়ে চলে যেতে পারতেন, তবে সে ধরনের কিছু চোখে পড়েনি।

ইত্যাদি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর