ব্রেকিং:
রংপুর মেডিকেল কলেজে (রমেক) শনিবার ১৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করে নতুন ৬১ জন করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে রংপুরে ১৭ জন, লালমনিরহাটে ১৯ জন, গাইবান্ধায় ১৬ জন, কুড়িগ্রামে ৭ জন, ঠাকুরগাঁওয়ের ১ জন ও বগুড়ার ১ জন রয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রংপুর মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাঃ একেএম নুরুন্নবী লাইজু। রংপুর মেডিকেল কলেজে (রমেক) ১৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষায় নতুন করে ৬০ জন করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে রংপুরে ২৬ জন, কুড়িগ্রামে ১৪ জন, লালমনিরহাটে ১৩ জন ও গাইবান্ধায় ৭ জন। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন রংপুর মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাঃ একেএম নুরুন্নবী লাইজু। গত ২৪ ঘণ্টায়   দেশে করোনাভাইরাসে আরো ২৭ জনের মৃত্যু হয়েছে, এছাড়া নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন দুই হাজার ৮৫১ জন।
  • রোববার   ০৯ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ২৪ ১৪২৭

  • || ১৯ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

সর্বশেষ:
মহীয়সী নারী বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের ৯০তম জন্মবার্ষিকী আজ গণতন্ত্রী পার্টির সাবেক সভাপতি, রংপুর পৌরসভার সাবেক মেয়র মোহম্মদ আফজালের সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করলেন নৌ প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী অর্থনীতির সকল ক্ষেত্রে অভূতপূর্ব উন্নয়ন হয়েছে: কৃষিমন্ত্রী কারিগরি শিক্ষায় ভর্তির হার ৫০ শতাংশে উন্নীত করা হবে: শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি আগামী বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ভারতে, ২০২২-এ অস্ট্রেলিয়ায় মুজিববর্ষেই বঙ্গবন্ধুর পলাতক খুনীদের ফিরিয়ে আনা হবে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ. কে আব্দুল মোমেন
১৪

লকডাউনে সফল চবি: আক্রান্ত শূন্যের কোটায়

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২৬ জুলাই ২০২০  

টানা ২২ দিনের লকডাউনে সফলতা পেয়েছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) কর্তৃপক্ষ। গত ১২ জুলাই থেকে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে করোনা আক্রান্ত রোগী শূন্যের কোটায় নেমে এসেছে। আজ শনিবার সন্ধ্যায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর ড. রবিউল হাসান ভূঁইয়া।

রবিউল হাসান বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে লকডাউন শেষ হয়েছে। ক্যাম্পাসে এখন পর্যন্ত মোট ৩৬ জন করোনা পজিটিভ। তবে গত ১২ জুলাই থেকে এখন পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে করোনা আক্রান্ত শূন্যের কোটায়। লকডাউনে সফল হয়েছি আমরা। এরপরও স্বাস্থ্যবিধি মেনে অফিসিয়াল কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে।

জানা যায়, গত ৩ জুন বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে প্রথম পাঁচ পুলিশ সদস্যের করোনা শনাক্ত হয়। পর্যায়ক্রমে একজন দুই জন করে আক্রান্তে সংখ্যা বাড়তে থাকায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ৪ জুলাই থেকে লকডাউন শুরু করেন। লকডাউনে ১২ জুলাই পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১৯ জন পাওয়া যায়। এরপর থেকে আজ পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা শুন্যের কোটায় নেমে এসেছে।

এর আগে করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় চবিতে গত ৪ জুলাই থেকে ১৭ জুলাই (১৪ দিন) লকডাউন ঘোষণা করা হয়। পরে দ্বিতীয় দফা ৮ দিন বাড়িয়ে ২৫ জুলাই পর্যন্ত লকডাউন দেওয়া হয়।

শিক্ষা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর