ব্রেকিং:
দেশে করোনাভাইরাসে গত ২৪ ঘণ্টায় আরো ২৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে মোট মারা গেলেন ১ হাজার ৯৯৭ জন। এছাড়া নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৩ হাজার ২৮৮ জন। মহামারি করোনাভইরাসের চিকিৎসায় শর্তসাপেক্ষে রেমডেসিভির ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)। শুক্রবার এই অনুমোদনের বিষয়টি নিশ্চিত করেন ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) হেলথ কমিশনার স্টেলা কাইরিয়াকাইডস।
  • শনিবার   ০৪ জুলাই ২০২০ ||

  • আষাঢ় ২০ ১৪২৭

  • || ১৩ জ্বিলকদ ১৪৪১

সর্বশেষ:
করোনায় আমাদের নেতাকর্মীরা মানুষের পাশে আছে- শেখ হাসিনা কুড়িগ্রামে ধরলার পানি বাড়ছে: বাঁধে ভাঙন তিন মাস পর ফিরলেন মোশাররফ করিম মৃত্যুর পর মানুষের ৯ আকাঙ্খা ও আফসোস যে কারণে ভারতকে সতর্ক করলো চীন
২৪

লকডাউন শেষে কাজে ফিরলে মেনে চলুন এসব নিয়ম

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১ জুন ২০২০  

একদিকে করোনা সংক্রমণ বাড়ছেই, অন্যদিকে যে যার কর্মস্থলে ছুটছে! জীবন ও জীবিকার তাগিদে এই লকডাউন শেষে তাই কর্মজীবীদের নিজ নিজ কর্মস্থলে যেতে হচ্ছে। 
এই করোনাকালে বাইরে বের হলেই যেন দুশ্চিন্তার শেষ নেই! মনে সবারই ভয় এই বুঝি ভাইরাস শরীরে প্রবেশ করছে, এমন ভয়ে সবাই এখন তটস্থ। শুধু ব্যক্তিগত সুরক্ষা ছাড়া এই ভাইরাস দমনের আর কোনো উপায় নেই। এজন্যই নিজেকে সতর্ক থেকে বাইরে চলাফেরা করতে হবে। এই সময় যারা অফিস শুরু করছেন তাদের কয়েকটি বিষয় মেনে চলা জরুরি-

> এই সময় বাইরে বের হলেও যতটা সম্ভব জনসমাগম এড়িয়ে চলুন। শুধু বিয়ের অনুষ্ঠান নয় বরং রেস্টুরেন্ট কিংবা হোটেলও এড়িয়ে চলুন। যদি কোনো খাবার কিনতেই হয় তবে পার্সেল নিয়ে নিন। 

> চারজনের বেশি মানুষ জমায়েত হয়েছে এমন জায়গা এড়িয়ে চলুন। সামনাসামনি মিটিং না করে বরং ভিডিও কলে তা সেরে নিন।

> এতো দিন ঘরে থেকে হয়ত শুধু হাত ধোয়ার অভ্যfস গড়েছেন, সেভাবে স্বাস্থ্যবিধি মানার প্রয়োজন পড়েনি! তবে এখন যেহেতু ঘরের বাইরে যাচ্ছেন তাই দ্বিগুণ হারে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলুন।

> কর্মস্থলের লিফটের বা বোতাম, ডেস্ক, কম্পিউটার, মাউস-যাই স্পর্শ করুন না কেন বারবার হাত পরিষ্কার করবেন। পাশাপাশি নিজের ব্যবহার্য জিনিসপত্রও জীবাণুনাশক দিয়ে পরিষ্কার করবেন। 

> অন্তত ২০-৩০ মিনিট পরপর চোখকে কম্পিউটার থেকে সরিয়ে রাখুন। এতে চোখ আরাম পাবে। 

> অফিসে চা খাওয়ার জন্য নিজের মগ ব্যবহার করুন। একইভাবে খাবার প্লেট বা টিফিন ক্যারিয়ার ব্যবহারের পর তা সাবান পানি দিয়ে ধুয়ে রাখুন।

> কাজের সময় দূরত্ব রাখুন। সহকর্মীর সিট থেকে নিজের সিটের ব্যবধান রাখুন কমপক্ষে ছয় ফুট। 

> অফিসে উঠা নামার জন্য লিফটের পরিবর্তে সিঁড়ি ব্যবহার করুন। সেক্ষেত্রে রেলিং হাত দিয়ে ধরবেন না।

> প্রতিদিন অফিসে যাওয়ার পূর্বে নিজের সুরক্ষা সামগ্রী যেমন- মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার, সাবান, গ্লাভস, টিস্যু পেপার সঙ্গে রাখুন। রাস্তায় তো বটেই, অফিসেও মাস্ক খুলবেন না। 

> কোনো কিছু ধরতে হলে গ্লাভস ব্যবহার করুন এবং তার উপর দিয়েও হাত সাবান পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। একটি গ্লাভস বারবার ব্যবহার করবেন না।

> অফিসের প্রয়োজনীয় নথিপত্র স্ক্যান করে রেখে দিন। সাধারণ স্বাক্ষরের পরিবর্তে ডিজিটাল স্বাক্ষর ব্যবহার করুন।

> এই সময় যদি গণপরিবহনে অফিসে যাতায়াত করেন তাহলে অবশ্যই ফেস মাস্ক ও গ্লাভস ব্যবহার করবেন। অফিসে বা বাড়িতে পৌঁছে দ্রুত নিজের হাত, ওয়ালেট, মোবাইল ফোন পরিষ্কার করে নিন।