• বৃহস্পতিবার   ২৮ মে ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৩ ১৪২৭

  • || ০৫ শাওয়াল ১৪৪১

সর্বশেষ:
ভ্যাট রিটার্ন জমার সময় বাড়ালো ৯ জুন পর্যন্ত করোনা থেকে সুস্থ এক হাজারের অধিক পুলিশ সদস্য ব্রাজিলে হু হু করে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে দুর্যোগে জনগণের পাশে থাকাই আওয়ামী লীগের ঐতিহ্য: কাদের আম্ফানে সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের ক্ষয়ক্ষতি পৌনে দুই কোটি টাকা
৭৭

শিক্ষার্থীদের কোটি টাকা প্রণোদনা দেবে সরকার

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ২ অক্টোবর ২০১৯  

আগামী ১৪ অক্টোবর রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) শুরু হচ্ছে তিন দিনের প্রযুক্তি পণ্যের প্রদর্শনী 'ডিজিটাল ডিভাইস এবং ইনোভেশন এক্সপো-২০১৯'। 'মেইড ইন বাংলাদেশ :কোনো কিছুই অসম্ভব নয়' স্লোগানে মেলার যৌথ আয়োজক আইসিটি বিভাগ, হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ, বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি (বিসিএস) ও স্টার্টআপ বাংলাদেশ।

মেলায় দেশীয় প্রযুক্তিপণ্য ও উদ্ভাবনকে প্রাধান্য দেওয়া হবে বলে আয়োজক সূত্র জানিয়েছে। এ লক্ষ্যে শীর্ষ নতুন উদ্যোগ খুঁজে পেতে ইতিমধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে অ্যাক্টিভেশন কার্যক্রম পরিচালনা করছে আয়োজকরা। অ্যাক্টিভেশন প্রোগ্রামগুলো থেকে নির্বাচিত সেরা ৩০টি উদ্ভাবন এক্সপোতে প্রদর্শিত হবে। প্রদর্শনী শেষ হওয়ার পর শীর্ষ ১০ তরুণ ব্যবসায়ী উদ্যোগকে ১০ লাখ করে এক কোটি টাকা বঙ্গবন্ধু উদ্ভাবনী অনুদান (বিআইজি) দিয়ে ভূষিত করা হবে।

আয়োজক কর্তৃপক্ষ জানায়, মেলায় আইসিটি শিল্পসম্পর্কিত বিভিন্ন পণ্য এবং সেবা এক ছাদের নিচে এনে দেশের সাফল্যের গল্পগুলো প্রদর্শন করবেন আইসিটি ইন্ডাস্ট্রির ব্যবসায়ী ও উদ্যোক্তারা। স্থানীয় ও বিদেশি বিনিয়োগকারীরা মেলায় অংশ নিয়ে স্থানীয় উদ্ভাবনগুলো দেখবেন। এর ফলে হার্ডওয়্যার পণ্য খাতে নতুন করে বিনিয়োগ ও রফতানির মাধ্যমে এই সেক্টরে সাফল্যের পথ প্রশস্ত করবে। ডিজিটাল বাংলাদেশের ১০ বছরের সাফল্য বিভিন্ন সেমিনার ও সেশনের মাধ্যমে তুলে ধরা হবে।

জানা গেছে, মেলায় ওয়ালটন, স্যামসাং, সিল্ফম্ফনি, টেলিফোন শিল্প সংস্থা, টেকনো মোবাইল, ভিভো, এলজি, নিটল এবং আমরার মতো দেশের প্রায় সব বড় আইসিটি পণ্য ও পরিষেবা উৎপাদনকারী সংস্থা অংশ নেবে। অংশগ্রহণকারীরা তাদের পরিষেবা এবং মূল সরঞ্জাম উৎপাদন (ওইএম), সিকিউরিটি ও তত্ত্বাবধানের বিষয়গুলোসহ তাদের এন্টারপ্রাইজ সলিউশন, টেলিকম, ক্লাউড কম্পিউটিং, সরকারি সেবা, গেমিং-সম্পর্কিত আরও বিভিন্ন পণ্য প্রদর্শন করবে।

সরকারের এটুআই ইনোভেশন ল্যাব তাদের প্রযুক্তিভিত্তিক কৃষিক্ষেত্র, কর্মসংস্থান, পরিবেশ, মেয়েদের ক্ষমতায়ন, স্বাস্থ্য, আইন, পর্যটন ইত্যাদি ক্ষেত্রে উদ্যোগগুলো প্রদর্শন করবে। দেশি উদ্যোক্তাদের তৈরি পণ্যদ্রব্য প্রদর্শনের পাশাপাশি দেশের প্রযুক্তিতে আগ্রহী তরুণদের অংশগ্রহণকে মেলা চলাকালে সমানভাবে উৎসাহিত করা হবে। মেলা দেশের আইসিটি, টেলকো এবং ইলেকট্রনিক্স উৎপাদনকারীদের প্রতিষ্ঠানগুলোকে তাদের পণ্য বিশ্বব্যাপী ক্রেতাদের কাছে প্রচারকাজে সাহায্য করবে বলে জানান আয়োজকরা।

শিক্ষা বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর