মঙ্গলবার   ১০ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২৫ ১৪২৬   ১২ রবিউস সানি ১৪৪১

সর্বশেষ:
পুরুষদের পাশাপাশি চ্যালেঞ্জ নিয়ে নারীরাও সমান দক্ষতার সাথে কাজ করে যাচ্ছে- বেগম রোকেয়া পদক অনুষ্ঠানে বললেন প্রধানমন্ত্রী। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৫২তম সমাবর্তন অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি। কর্মক্ষেত্রে নিজেদের যোগ্যতার প্রমাণ দিচ্ছেন নারীরা, বেগম রোকেয়ার সেই স্বপ্ন আজ বাস্তবতা - বললেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। নারী উদ্যোক্তাদের বিশেষ সুবিধা দেয়ার আশ্বাস। দুর্নীতিবাজদের স্বস্তিতে থাকতে দেয়া হবে না বললেন দুদক চেয়ারম্যান। এসএ গেমসে আর্চারির দশটি ইভেন্টেই স্বর্ণপদক বাংলাদেশের। এসএ গেমসে এ পর্যন্ত বাংলাদেশের স্বর্ণ সংখ্যা মোট ১৮টি। নিউজিল্যান্ডের হোয়াইট আইল্যান্ড আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাতে নিহত ১ জন, নিখোঁজ বেশ কয়েকজন পর্যটক। হংকংয়ে শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলন করছে আন্দোলনকারীরা। কর্নাটকে বিধানসভা আসনের উপনির্বাচনে এগিয়ে বিজেপি – কংগ্রেসের হার স্বীকার। ভারতের লোকসভায় বিতর্কিত নাগরিকত্ব বিল পাস হচ্ছে আজ।
১৫

মহানগর আ.লীগের সম্মেলন

সভাপতি বজলুর, সম্পাদক এসএম মান্নান কচি

প্রকাশিত: ৩০ নভেম্বর ২০১৯  

ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন শেখ বজলুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন এসএম মান্নান কচি। অন্যদিকে দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি হয়েছেন আবু আহম্মেদ মান্নাফি ও সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন হুমায়ুন কবির। 

শনিবার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটশনে ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের ১ম সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণা করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এর আগে প্রথম অধিবেশন সকাল ৯টার পরে শুরু হয় সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে। 

সভাপতি পদে মোট ১৫ জনের নাম প্রস্তাব করা হয়। এরমধ্যে ঢাকা মহানগর উত্তরের ৭ জন, দক্ষিণে সভাপতি পদে ৮ জন। উত্তর ও  দক্ষিণের সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী ২২ জন এর মধ্যে উত্তরের ৯ জন এবং দক্ষিণের ১৩ জনের নাম প্রস্তাব করা হয়।

ঢাকা মহানগর উত্তর সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিবরণী:

ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ছিলেন বজলুল রহমান। ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় আহত হয়েছিলেন শেখ বজলুর রহমান। অবিভক্ত ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি,যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন। মোহাম্মদপুর থানা আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক, ৪৬ নং ওয়ার্ড (বর্তমান ৩৩) আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং  ৪৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের এক নম্বর যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ছিলেন এসএম মান্নান কচি। অবিভক্ত ঢাকা মহানগর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন তিনি। বৃহত্তর মিরপুর থানা ছাত্রলীগের সভাপতি (১৯৮৩-৮৪)। ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের কার্যকরী সদস্য(১৯৯৭) এবং  ত্রাণ ও পুনর্বাসন সম্পাদক (২০০২) হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন এসএম মান্নান কচি।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের বিবরণী:

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ছিলেন আবু আহম্মেদ মান্নাফী। ১৯৬৭ সালে ওয়ারী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক পদ দিয়ে আওয়ামী রাজনীতিতে পথচলা শুরু। ১৯৬৪ সালে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার বিরুদ্ধে জনমত সৃষ্টির সময় বঙ্গবন্ধুর সঙ্গে তার দেখা হয়। মুক্তিযোদ্ধা আবু আহম্মেদ মান্নাফী ১৯৭১ সালে ৩ নম্বর সেক্টরে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন। ১৯৯২ সালে থেকে তিনি সূত্রাপুর থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং পরবর্তীতে সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ছিলেন মো. হুমায়ুন কবির। এর আগে বৃহত্তর লালবাগ থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের (১৯৯২-২০১৬) দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়া তিনি ১৯৯৪ থেকে ২০০২ এবং ২০০২ থেকে ২০১১ পর্যন্ত দুই মেয়াদে ৫৯ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর এবং ২০১৫ থেকে এখনপর্যন্ত ২৩ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, বিএম মোজাম্মেল হক প্রমুখ।

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –
এই বিভাগের আরো খবর