ব্রেকিং:
করোনাভাইরাস মোকাবিলায় এপ্রিল মাসে স্থলবন্দর দিয়ে কাউকে ঢুকতে দেয়া হবে না: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ডাক্তার অনুপস্থিতির দুর্দিন এলে প্রয়োজনে বিদেশ থেকে আনা হবে:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত খুনি আব্দুল মাজেদকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে আদালত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনকে হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্বপরিবারে হত্যার দায়ে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামি আবদুল মাজেদ গ্রেফতার
  • মঙ্গলবার   ০৭ এপ্রিল ২০২০ ||

  • চৈত্র ২৪ ১৪২৬

  • || ১৩ শা'বান ১৪৪১

সর্বশেষ:
করোনার পরীক্ষামূলক ওষুধ তৈরিতে আশার আলো দেখাচ্ছে বাংলাদেশ! বিশ্বব্যাপী মহামারির মধ্যেই আজ বিশ্ব স্বাস্থ্য দিবস করোনা পরিস্থিতি দেখে ভয় পেলে ভয় পেলে চলবে না, সতর্ক থাকতে হবে:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা টেলিভিশনে প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের পাঠদান শুরু আজ জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন
৪৬

সর্দি-কাশি সারাতে কর্পূর

– নীলফামারি বার্তা নিউজ ডেস্ক –

প্রকাশিত: ১ জানুয়ারি ২০২০  

সর্দি-কাশি সারানোয়গৃহস্থালির বিভিন্ন কাজের পাশাপাশি অনেক রোগের ঘরোয়া টোটকা কর্পূর। গলা ব্যথা সারানো থেকে শুরু করে পিঁপড়া তাড়ানো সবকিছুতেই সস্তি দেবে এই কর্পূর। 

বাজারে দু’ ধরণের কর্পূর পাওয়া যায়। একটি কর্পূর গুল্ম থেকে আর অন্যটি কৃত্রিমভাবে তৈরি করা হয়। বাঙালি বাড়িতে পুরনো রীতি ছিল, গ্রীষ্মকালে পানিতে কর্পূর মিশিয়ে রাখা। এতে পানি ঠাণ্ডা থাকত। কর্পূরের প্রভাবে পানির স্বাদগন্ধেও কিছুটা পরিবর্তন আসে। তবে কর্পূরের রয়েছে অনেকগুণ। যা শারীরিক সমস্যায় ম্যাজিকের মতো কাজ করে। জেনে নিন কী কী কাজে ব্যবহার করবেন কর্পূর-   

১. আঘাত পাওয়া জায়গা অনেক সময় লাল হয়ে ফুলে থাকে। সেখানে কর্পূর মালিশ করলে দ্রুত উপশম পাওয়া যায়।

২. স্পর্শকাতর ত্বকের কারণে অনেকেই চুলকানি ও র‌্যাশের সমস্যায় ভোগেন। সেক্ষেত্রেও কর্পূর বেশ উপকারী। এক টুকরা ভোজ্য কর্পূর সামান্য পানির সঙ্গে মেশান। আক্রান্ত স্থান এই দ্রবণ দিয়ে ধুয়ে নিন। আবার কর্পূরের তেলও ব্যবহার করতে পারেন। হালকা করে ক্ষতস্থানে মালিশ করলে তাড়াতাড়ি আরাম পাওয়া যাবে।

৩. অনেকেরই নখে ছত্রাকজনিত সংক্রমণ হয়। ওষুধ খাওয়ার পাশাপাশি ঘরোয়া টোটকা হিসেবে কর্পূর খুবই কার্যকরী।

৪. শিশু বা প্রাপ্তবয়স্ক, দু’ক্ষেত্রেই একজিমায় তীব্র প্রদাহ ও যন্ত্রণা হয়। একজিমার সমস্যাতেও কর্পূর খুব কার্যকরী। একজিমার অয়েনমেন্ট ও লোশনের গুরুত্বপূর্ণ উপাদান হল কর্পূর।

৫. আপনার ঘরে যদি পিঁপড়ার উপদ্রব বাড়ে তাহলে এই সমস্যা থেকে রেহাই পাওয়ার জন্য বাজার চলতি কীটনাশক অনেকেই ব্যবহার করেন। তবে এর ক্ষতিকর পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়া বাড়ির শিশু ও বয়ষ্কদের জন্য মারাত্মক হতে পারে। তাই ক্ষতিকর কীটনাশকের পরিবর্তে পানির সঙ্গে কর্পূর মিশিয়ে ঘরের কোণায় কোণায় ছড়িয়ে দিন। গন্ধে পিঁপড়ার দল ঘর ছেড়ে পালাবে।

৬. ছারপোকা তাড়াতে কর্পূর অত্যন্ত কার্যকরী। এই সমস্যা থেকে মুক্ত পেতে বিছানার চাদর ধুয়ে তোষক, জাজিম রোদে দিন। এরপর একটি বড় কর্পূরের টুকরো কাপড়ে মুড়ে বিছানা ও জাজিমের মাঝামাঝি রেখে দিন। এতে বিছানা ছারপোকার উপদ্রব মুক্ত হবে।
 
৭. কর্পূরের গন্ধ ঘুম ডেকে আনতে সাহায্য করে। যারা অনিদ্রা বা ইনসমনিয়ায় ভোগেন, তারা বালিশে কয়েক ফোঁটা কর্পূরের তেল দিয়ে দেখতে পারেন। 

৮. বাজারে চলতি বিভিন্ন ধরণের কর্পূরের তেল পাওয়া যায়। সর্দি হলে ঘরোয়া টোটকা হিসেবে বুকে, পিঠে ও গলায় কর্পূরের তেল মালিশ করুন। তাৎক্ষণিক আপনাকে আরাম এনে দেবে। গলা ব্যথা থাকলেও নিস্তার মিলবে।

স্বাস্থ্য বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর